Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, রবিবার, ২১ জুলাই, ২০১৯ , ৬ শ্রাবণ ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.3/5 (4 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৫-১৬-২০১৯

বাংলাদেশে পুরুষের তুলনায় নারীরা দ্বিগুণ ‘অলস’

বাংলাদেশে পুরুষের তুলনায় নারীরা দ্বিগুণ ‘অলস’

বাংলাদেশি পুরুষদের তুলনায় নারীরা বেশি ‘অলস’ বা শরীর চর্চায় বিমুখ বলে দাবি করা হয়েছে জরিপে। আর এই অলসদের তালিকায় বাংলাদেশের ১৬ দশমিক ১ ভাগ পুরুষও রয়েছে যেখানে নারীর হার ৩৯ দশমিক ৫ শতাংশ। এই জরিপ শুধু বাংলাদেশ নয়, বিশ্বের ১৬৮টি দেশের মানুষের ওপর করা হয়েছে, যেখানে দেখা গেছে সারা বিশ্বের ২৭ দশমিক ৫ ভাগ মানুষ কম কাজ করতে চায় বা শরীর চর্চায় বিমুখ। এর মধ্যে পুরুষ ২৩ দশমিক ৪ ভাগ ও নারী ৩১ দশমিক ৭ ভাগ।

অথাৎ, শরীর চর্চায় বিমুখতা বা অলসতার দিক দিয়ে ১৬৮ দেশের গড় হিসেবের তুলনায় বাংলাদেশের নারীরা প্রায় ৮ শতাংশ এগিয়ে আছে ও পুরুষরা প্রায় ৭ ভাগ পিছিয়ে আছে। অবশ্য গবেষণায় এমন দেশও পাওয়া গেছে যেখানকার নারী-পুরুষ উভয় ক্ষেত্রেই অলসতার হার ৫০ শতাংশের উপরে। কুয়েতে ৬১ দশমিক ৩ শতাংশ পুরুষই অলস, যেখানে নারীর অলসতার হার ৭৪ দশমিক ৬ শতাংশ।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) জরিপে এমন তথ্যই প্রকাশ করা হয়। ২০০১ সাল থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত বিশ্বের ১৬৮ দেশের ১৯ লাখ মানুষের ওপর জরিপ চালিয়ে ওই প্রতিবেদন প্রকাশ করে সংস্থাটি।

ডব্লিউএইচও’র ওই প্রতিবেদন সম্প্রতি প্রকাশ করা হয়েছে ল্যানসেট গ্লোবাল হেলথ জার্নালে।

বলা হয়েছে, যারা সপ্তাহে দুইবার অন্তত ৭৫ মিনিটের জন্য ভারী ব্যায়াম, ১৫০ মিনিটের মাঝারি মাত্রার ব্যায়াম বা দুটোর মিশ্রণে ব্যায়াম করেন তাদের শরীর চর্চায় সক্রিয় বলে ধরা হয়েছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ওই জরিপে ২০০৩ সালে ৫ হাজার ৪০২ জন এবং ২০০৯ সালে ৯ হাজার ২৭৫ জন বাংলাদেশি অংশগ্রহণ করে। জরিপে অংশগ্রহণকারী এসব মানুষ ১৮ থেকে ৯৯ বছর বয়সী বাংলাদেশি নারী-পুরুষ বলে জানানো হয়েছে।

জরিপের ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বাংলাদেশি ২৭ দশমিক ৮ শতাংশ মানুষ ‘অলস’ কিংবা শরীর চর্চা করেন না। এরমধ্যে ১৬ দশমিক ১ শতাংশ পুরুষ এবং ৩৯ দশমিক ৫ শতাংশ নারী ‘অলস’ বা শরীর চর্চায় বিমুখ।

এই বিবেচনায় সবচেয়ে ‘অলস’ দেশের তালিকায় রয়েছে কুয়েত এবং সবচেয়ে সক্রিয় দেশের তালিকায় রয়েছে উগান্ডা। কুয়েতের শতকরা ৬৭ ভাগ মানুষ শরীর চর্চায় অনাগ্রহী এবং উগান্ডার ৫ দশমিক ৫ শতাংশ মানুষ।

অবশ্য শীর্ষ ১০ অলস দেশের তালিকায় নাম নেই বাংলাদেশের। সেই তালিকায় প্রথম স্থানে জায়গা করে নিয়েছে কুয়েত। তালিকাটা নিচে দেওয়া হলো-

১) কুয়েত (৬৭ শতাংশ)

২) আমেরিকান সামোয়া (৫৩.৪ শতাংশ)

৩) সৌদি আরব (৫৩ শতাংশ)

৪) ইরাক (৫২ শতাংশ)

৫) ব্রাজিল (৪৭ শতাংশ)

৬) কোস্টারিকা (৪৬.১ শতাংশ)

৭) সাইপ্রাস (৪৪.৪ শতাংশ)

৮) সুরিনাম (৪৪.৪ শতাংশ)

৯) কলম্বিয়া (৪৪ শতাংশ)

১০) মার্শাল আইল্যান্ডস (৪৩.৫ শতাংশ)

অন্যদিকে সবচেয়ে সক্রিয় ১০ দেশের তালিকায়ও নেই বাংলাদেশের নাম। সেখানে দিন-রাত পরিশ্রম করে প্রথম স্থান অধিকার করেছে উগান্ডা। তালিকটা নিচে দেওয়া হলো-

১) উগান্ডা (৫.৫ শতাংশ)

২) মোজাম্বিক (৫.৬ শতাংশ)

৩) লেসোথো (৬.৩ শতাংশ)

৪) তানজানিয়া (৬.৫ শতাংশ)

৫) নিউয়ে (৬.৯ শতাংশ)

৬) ভানুয়াতু (৮ শতাংশ)

৭) টোগো (৯.৮ শতাংশ)

৮) ক্যাম্বোডিয়া (১০.৫ শতাংশ)

৯) মিয়ানমার (১০.৭ শতাংশ)

১০) তোকেলাউ (১১.১ শতাংশ)

এমএ/ ১১:৪৪/ ১৬ মে

জানা-অজানা

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে