Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, রবিবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০ , ১২ আশ্বিন ১৪২৭

গড় রেটিং: 2.6/5 (40 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৯-০৭-২০১৩

ঘুমের সাতকাহন

ফারুক হোসেন


ঘুমের সাতকাহন

একটি আন্তর্জাতিক সার্ভেতে দেখা গেছে বিভিন্ন দেশ ও সংস্কৃতির মানুষ বিভিন্নভাবে ঘুমাতে পছন্দ করে। কেউ প্রতিদিনই বিছানার চাদর বদলায় বা বিছানায় দিগম্বর হয়ে ঘুমাতে স্বাচ্ছন্দ বোধ করে।

যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, কানাডা, মেক্সিকো, জার্মানী ও জাপানের ২৫ থেকে ৫৫বছর বয়সী ১৫০০ মানুষের ঘুমের অভ্যাস, রীতিনীতি ও পছন্দ সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করা হয়।
 
মেক্সিকোর অর্ধেকের বেশি (৬২%) মানুষ এবং যুক্তরাষ্ট্রের প্রায় অর্ধেক ঘুমানোর আগে প্রার্থনা বা মেডিটেশন করে থাকে। যা অন্যান্য দেশের তুলনায় বেশি।
 
ঘুমের আগে হালকা পানীয় পান করায় সবার উপরে আছে বৃটেন। এদের এক-তৃতীয়াংশ উলঙ্গ ঘুমাতে পছন্দ করে।
 
গড়পড়তা সবদেশের মানুষই দুটি বালিশ ব্যবহার করে যেখানে জাপানীরা বা মেক্সিকানরা একটি বালিশ ব্যবহার করে। জাপান ও মেক্সিকোতে ১০জনে একজন বালিশ ছাড়াই ঘুমায়।
 
ন্যাশনাল স্লিপ ফাউন্ডেশনের সার্ভে অনুযায়ী পৃথিবীর প্রায় সব দেশের মানুষের মধ্যে একটি সাধারণ বৈশিষ্ট্য হচ্ছে যে, কমপক্ষে দুই-তৃতীয়াংশ মানূষ ঘুমের আগে টেলিভিশন দেখে।
 
একটি আন্তর্জাতিক সার্ভেতে দেখা গেছে বিভিন্ন দেশ ও সংস্কৃতির মানুষ বিভিন্নভাবে ঘুমাতে পছন্দ করে। কেউ প্রতিদিনই বিছানার চাদর বদলায় বা বিছানায় দিগম্বর হয়ে ঘুমাতে স্বাচ্ছন্দ বোধ করে।
যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, কানাডা, মেক্সিকো, জার্মানী ও জাপানের ২৫ থেকে ৫৫বছর বয়সী ১৫০০ মানুষের ঘুমের অভ্যাস, রীতিনীতি ও পছন্দ সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করা হয়।
 
মেক্সিকোর অর্ধেকের বেশি (৬২%) মানুষ এবং যুক্তরাষ্ট্রের প্রায় অর্ধেক ঘুমানোর আগে প্রার্থনা বা মেডিটেশন করে থাকে। যা অন্যান্য দেশের তুলনায় বেশি।
ঘুমের আগে হালকা পানীয় পান করায় সবার উপরে আছে বৃটেন। এদের এক-তৃতীয়াংশ উলঙ্গ ঘুমাতে পছন্দ করে।
 
গড়পড়তা সবদেশের মানুষই দুটি বালিশ ব্যবহার করে যেখানে জাপানীরা বা মেক্সিকানরা একটি বালিশ ব্যবহার করে। জাপান ও মেক্সিকোতে ১০জনে একজন বালিশ ছাড়াই ঘুমায়।
ন্যাশনাল স্লিপ ফাউন্ডেশনের সার্ভে অনুযায়ী পৃথিবীর প্রায় সব দেশের মানুষের মধ্যে একটি সাধারণ বৈশিষ্ট্য হচ্ছে যে, কমপক্ষে দুই-তৃতীয়াংশ মানূষ ঘুমের আগে টেলিভিশন দেখে।
 
কাদের বিছানা বেশি পরিচ্ছন্ন?
 
কুঁড়ি শতাংশ জাপানিরা বলেন তারা কখনোই বিছানা বদলান না। অন্যদিকে মেক্সিকানরা এগিয়ে আছেন। তাদের ৮২শতাংশ প্রতিদিনই বিছানা পরিবর্তন করেন। মেক্সিকানরা এই দিক দিয়ে এগিয়ে আছেন। তাদের মধ্যে এক সিকি শতাংশই সপ্তাহে কমপক্ষে একবার বিছানা পেতে থাকেন। যেখানে জাপানের এক-তৃতীয়াংশ তিন সপ্তাহে একবার বিছানা পরিবর্তন করেন। সেখানে এই হার জার্মানীতে ১২শতাংশ।
 
মেক্সিকো, জার্মানী ও যুক্তরাজ্যের ১০জনের মধ্যে নয় জনই বলেন, তারা ঘরে হালকা আনন্দদায়ক সুবাস পছন্দ করেন। তিন-চতুর্থাংশ কানাডিয়ান ও মার্কিনিরাও এর সাথে একমত পোষণ করেন।
 
জার্মানীদের জন্য ঘরে সতেজ বাতাস প্রবেশ খুবেই গুরুত্বপূর্ণ। তারা সপ্তাহে অথবা প্রায়ই ঘরের বাতাস পরিবর্তনের জন্য চেষ্টা করেন।
 
মানুষ কতক্ষন ঘুমায়
সবদেশের মানুষেরেই মধ্যেই ছুটির দিনগুলোতে একটু বেশি ঘুমানেরা প্রবণতা দেখা যায়। জাপান ও আমেরিকানরা অন্যান্য দিন ছয় থেকে সাড়ে ছয় ঘন্টা ঘুমালেও ছুটির দিনগুলোতে ৩০ থেকে ৪০ মিনিট বেশি ঘুমান।
 
দুই-তৃতীয়াংশ জাপানী কাজের দিনগুলোতে সাত ঘন্টারও কম ঘুমিয়ে থাকে। যা তুলনামূলকভাবে আমেরিকানদের অর্ধেক এবং যুক্তরাজ্যের ৪০শতাংশ, জার্মানীর ৩৬শতাংশ ও কানাডিয়ান ও মেক্সিকানদের ৩০শতাংশ।
 
ঘুম সম্পর্কে যে তথ্যগুলো আপনার অবশ্য জানা দরকার:
 
১. প্রতিদিন একই সময়ে ঘুমাতে যান
 
২. এমন সময় নির্বাচন করুন যাতে কমপক্ষে সাত ঘন্টা ঘুমাতে পারেন।
 
৩. বিরক্তিকর শব্দ ও আলো প্রতিরোধ করুন।
 
৪. বিছানাতে শুধুই ঘুম ও সঙ্গীর জন্য রাখুন ( টেলিভিশন দেখা, বইপড়া ও খাওয়া-দাওয়া নয়)।
 
৫. নিয়মিত শরীরচর্চা করুন। তবে ঘুমের আগে নয়।

 

 

 

কাদের বিছানা বেশি পরিচ্ছন্ন?
 
কুঁড়ি শতাংশ জাপানিরা বলেন তারা কখনোই বিছানা বদলান না। অন্যদিকে মেক্সিকানরা এগিয়ে আছেন। তাদের ৮২শতাংশ প্রতিদিনই বিছানা পরিবর্তন করেন। মেক্সিকানরা এই দিক দিয়ে এগিয়ে আছেন। তাদের মধ্যে এক সিকি শতাংশই সপ্তাহে কমপক্ষে একবার বিছানা পেতে থাকেন। যেখানে জাপানের এক-তৃতীয়াংশ তিন সপ্তাহে একবার বিছানা পরিবর্তন করেন। সেখানে এই হার জার্মানীতে ১২শতাংশ।
 
মেক্সিকো, জার্মানী ও যুক্তরাজ্যের ১০জনের মধ্যে নয় জনই বলেন, তারা ঘরে হালকা আনন্দদায়ক সুবাস পছন্দ করেন। তিন-চতুর্থাংশ কানাডিয়ান ও মার্কিনিরাও এর সাথে একমত পোষণ করেন।
 
জার্মানীদের জন্য ঘরে সতেজ বাতাস প্রবেশ খুবেই গুরুত্বপূর্ণ। তারা সপ্তাহে অথবা প্রায়ই ঘরের বাতাস পরিবর্তনের জন্য চেষ্টা করেন।
 
 
মানুষ কতক্ষন ঘুমায়
সবদেশের মানুষেরেই মধ্যেই ছুটির দিনগুলোতে একটু বেশি ঘুমানেরা প্রবণতা দেখা যায়। জাপান ও আমেরিকানরা অন্যান্য দিন ছয় থেকে সাড়ে ছয় ঘন্টা ঘুমালেও ছুটির দিনগুলোতে ৩০ থেকে ৪০ মিনিট বেশি ঘুমান।
 
দুই-তৃতীয়াংশ জাপানী কাজের দিনগুলোতে সাত ঘন্টারও কম ঘুমিয়ে থাকে। যা তুলনামূলকভাবে আমেরিকানদের অর্ধেক এবং যুক্তরাজ্যের ৪০শতাংশ, জার্মানীর ৩৬শতাংশ ও কানাডিয়ান ও মেক্সিকানদের ৩০শতাংশ।
 
 

ঘুম সম্পর্কে যে তথ্যগুলো আপনার অবশ্য জানা দরকার:
 
১. প্রতিদিন একই সময়ে ঘুমাতে যান
 
২. এমন সময় নির্বাচন করুন যাতে কমপক্ষে সাত ঘন্টা ঘুমাতে পারেন।
 
৩. বিরক্তিকর শব্দ ও আলো প্রতিরোধ করুন।
 
৪. বিছানাতে শুধুই ঘুম ও সঙ্গীর জন্য রাখুন ( টেলিভিশন দেখা, বইপড়া ও খাওয়া-দাওয়া নয়)।
 
৫. নিয়মিত শরীরচর্চা করুন। তবে ঘুমের আগে নয়।

গবেষণা

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে