Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, সোমবার, ২০ মে, ২০১৯ , ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৫-১০-২০১৯

‘পুলিশ আমাদের আটক করবে না’

‘পুলিশ আমাদের আটক করবে না’

নওগাঁ, ১০ মে- নওগাঁর রাণীনগরে রাতের আঁধারে এক প্রবাসীর স্ত্রীর ঘরে ঢুকে ধর্ষণচেষ্টার ঘটনায় থানায় মামলা দায়েরের আটদিন পার হলেও এখনও কোনো আসামিকে আটক করতে পারেনি পুলিশ। এতে করে সুবিচার পাওয়া নিয়ে চরম আতঙ্কে রয়েছে ভুক্তভোগী ও তার পরিবার।

ভুক্তভোগী লায়লা বানু (ছদ্ম নাম) বলেন, দীর্ঘদিন যাবত একই গ্রামের হিন্দুপাড়ার হারান সরকারের ছেলে দুই সন্তানের জনক বিষু সরকার আমাকে কুপ্রস্তাব এবং নানাভাবে উত্ত্যক্ত করে আসছিল।

তিনি জানান, গত ৩০ এপ্রিল রাতে অনুমান ৯টার সময় গৃহবধূর ছেলে প্রাকৃতিক ডাকে সাড়া দেওয়ার জন্য ঘরের বাহিরে গেলে পূর্ব থেকে ওঁৎ পেতে থাকা বিষু সবার অজান্তে চুপ করে গৃহবধূর শোবার ঘরে প্রবেশ করে। পরে ছেলে ও মেয়ে মাটির বাড়ির দোতলায় পড়ালেখার জন্য উঠে গেলে গৃহবধূর মুখ ও দুই হাত চেপে ধরে ধর্ষণের চেষ্টা করে সে। এসময় গৃহবধূ তাকে কৌশলে ঘরের বাহিরে এসে দরজা বন্ধ করে চিৎকার করলে আশেপাশের মানুষ ও গ্রামের কতিপয় মাতব্বররা এসে সকালে বিচার হবে বলে তাকে ছেড়ে দেয়। সুবিচার পাওয়ার আশায় বিষয়টি গৃহবধূ স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানকে জানায়। আজ-কাল বিচার হবে বলে চেয়ারম্যান ও মাতব্বররা কালক্ষেপন করেন।

ভুক্তভোগী বলেন, চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে স্থানীয় ইউপি সদস্য গফুর, গ্রামের কতিপয় মাতব্বর নুরুল ইসলাম, জাহাঙ্গির, হেলাল, জব্বারসহ আরো অনেকেই বিষয়টি রফাদফা করার নামে বিষুর পরিবারের কাছ থেকে প্রায় দেড় লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়। গ্রাম্য মাতব্বর ও চেয়ারম্যানের কাছে সুবিচার না পাওয়ায় আমি শুক্রবার (০৩ মে) ধর্ষণের চেষ্টাকারী বিষুকে প্রধান আসামি করে স্থানীয় ইউপি সদস্যসহ আটজনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করেছি।

তিনি আরও বলেন, পুলিশ এখন পর্যন্ত কোনো আসামিকে আটক করতে পারেনি। অথচ প্রধান আসামি বিষু ছাড়া বাকি আসামিরা এলাকায় প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছে। তারা আমাকে বিভিন্ন ভয়ভীতি প্রদান করছে। তারা বলছে, ‘মামলা করে আমাদের কি করতে পারবি। পুলিশ আমাদের আটক করবে না’।

রাণীনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এএসএম সিদ্দিকুর রহমান বলেন ভুক্তভোগী ধর্ষণচেষ্টাকারী বিষুকে প্রধান আসামি ও গ্রামের কতিপয় মাতব্বরদের নামে থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। প্রধান আসামিকে আটক করা আমার মূল লক্ষ্য। কারণ প্রধান আসামিকে আটক করলে ঘটনার মূল কাহিনী জানা যাবে। তবে প্রধান আসামি বিষুকে আটক করার চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

এমএ/ ০৩:৩৩/ ১০ মে

অপরাধ

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে