Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শনিবার, ২৫ মে, ২০১৯ , ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৪-২১-২০১৯

এক মলাটে ৩ কিশোর গল্প

আব্দুল্লাহ আল মামুন


এক মলাটে ৩ কিশোর গল্প

লন্ডন প্রবাসী কথাসাহিত্যিক সালেহা চৌধুরী। বিগত প্রায় চার দশক ধরে বাংলা সাহিত্যের বিভিন্ন ধারায় তার সফল বিচরণ। প্রবাসে থাকলেও প্রিয় জন্মভূমির রূপ-রস, সৌন্দর্য আর এখানকার জীবন ও মানুষদের নিয়ে লিখে যাচ্ছেন সমানতালে। গল্প-উপন্যাস-কবিতা-প্রবন্ধ-সমালোচনা সাহিত্য, অনুবাদের পাশাপাশি সালেহা চৌধুরী লিখেছেন শিশু-কিশোরদের জন্যও। তার প্রকাশিত বইয়ের সংখ্যা ৭০ ছাড়িয়েছে।

সালেহা চৌধুরীর জন্ম রাজশাহী জেলায়। তবে পিতার চাকরির সুবাদে বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলায় কেটেছে তার শৈশব-কৈশোর। হলি ক্রস কলেজে পড়া শেষ করে ভর্তি হন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে। বাংলায় বিএ এবং এমএ করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রভাষক হিসেবে কাজ শুরু করেন। ১৯৭২ সালে পাড়ি জমান যুক্তরাজ্যে। সেখানে এভারহিল কলেজে উচ্চতর শিক্ষা গ্রহণ করে শিক্ষকতায় যুক্ত হন। শিক্ষকতা থেকে অবসর নেওয়ার পর সালেহা চৌধুরী লিখে চলেছেন দু'হাতে। 

অমর একুশে গ্রন্থমেলা ২০১৯-এ প্রকাশিত হলো তার তিনটি বড় কিশোর গল্পের সংকলন 'তিনটি কিশোর গল্প'। 'ওরা পাঁচজন ও সে', 'ওরা পাঁচজন ও পাতাবাঁশি', 'ওরা পাঁচজন মেধা ও মনন' শিরোনামের তিনটি গল্প এ বইয়ে স্থান পেয়েছে। বইয়ের তিনটি গল্পই গড়ে উঠেছে পাঁচজন কিশোর ও তাদের এক চমৎকার মামা ও আকাশ থেকে উড়ে আসা মজার অতিথি নিয়ে, যার নাম পেগাসাস। 

গল্পগুলোয় দেখা যায়, পেগাসাস তাদের পাঁচটি ইচ্ছা পূরণ করবে কিন্তু সেগুলো পূরণ হয় না ঠিকমতো। কোথায় যেন একটা গোলমাল হয়ে যায়! তাদের মধ্যে আসেন পাতাবাঁশি মামা। ওরা চলে যায় গাছেদের দেশে। ফিরে আসে গাছের বিষয়ে অনেক কিছু জেনে। ওরা পাঁচজন আসলে যা যা জেনেছে তাই বলতে ভালোবাসে সব শিশুকে। ওই পাঁচজনের মতো অন্যান্য শিশুও জানবে আকাশে যেতে চাইলে কী হতে পারে; অনেক টাকা মানেই সুখ নয়; আমাদের জীবনে গাছ আসলে কতটা প্রয়োজনীয়; আমরা কি শুধু মেধার চর্চা করব, নাকি মেধা ও মনন- দুটোরই চর্চা করব, কোনো এক নির্জন দ্বীপ মানে মজা নয়, আরও জানবে সত্যিকারের আনন্দ কী।

'ওরা পাঁচজন ও সে' গল্পে পেগাসাসের অগমন ঘটে এভাবে- 

'রংধনুর রঙের মতো অনেক আলো জ্বলে উঠে নিভে গেল। আর সেই নেভা আলোর ভেতর থেকে বেরিয়ে এল একটি শিশুঘোড়া। ধবধবে সাদা রং। ঘাড়ে রুপোলি পাখা। ওরা তাকিয়ে দেখছিলো এমন দৃশ্য। এ নিশ্চয়ই ওদের লেখা কোনো চরিত্র নয়। আঁকা কোনো ছবি নয়। শিশুঘোড়া তাকিয়ে দেখছে ওদের। ওরা দেখছে শিশুঘোড়াকে।

তুমি কে? সহস করে বললো টাপুরটুপুর।

আমার নাম পেগাসাস। আমি আকাশপাড়ায় থাকি। আজ এসেছিলাম এখানে। বন থেকে একটি পাখি নিয়ে আকাশপাড়ায় যাব আমার বোনের কাছে।

সালেহা চৌধুরীর 'তিনটি কিশোর গল্প' বইয়ের প্রতিটি গল্পই এমন অদ্ভুত কল্পনা আর উত্তেজনার মিশেলে লিখেছেন। তিনি আনন্দময় মিষ্টি ভাষা, প্রাঞ্জল গদ্য আর সরল বর্ণনায় শিশু-কিশোরদের নিয়ে যেতে চেয়েছেন কল্পনার এক রাজ্যে, যেখানে জীবনের অপর নাম আনন্দ। গল্পচ্ছলে তিনি দেন ভবিষ্যতের পাঠ। তিনি শেখাতে চান সহজিয়া এক জীবনবোধ। লেখক ভবিষ্যতেও এমন করে এই পাঁচ কিশোর-কিশোরী নিয়ে নতুন নতুন অভিজ্ঞতায় পাঠকদের কাছে হাজির হতে চান। 

এমএ/ ০৪:২২/ ২১ এপ্রিল

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে