Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, বুধবার, ২৬ জুন, ২০১৯ , ১২ আষাঢ় ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.3/5 (3 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৪-১৮-২০১৯

ফেরদৌস ভারতে গিয়ে ঠিক করেননি: ড. মোমেন

ফেরদৌস ভারতে গিয়ে ঠিক করেননি: ড. মোমেন

ঢাকা, ১৮ এপ্রিল- ভারতের লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থীর পক্ষে প্রচারে অংশ নিয়ে বাংলাদেশের চিত্রনায়ক ফেরদৌস আহমেদ ঠিক করেননি বলে মন্তব্য করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আবদুল মোমেন।

বৃহস্পতিবার এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ মন্তব্য করেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আসন্ন ব্রুনাই সফর নিয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে এ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

গণমাধ্যমকর্মীদের এক প্রশ্নের জবাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, নায়ক ফেরদৌস আহমেদ ভারতের নির্বাচনী প্রচারে অংশ নিয়ে ঠিক করেননি। তিনি একজন নামিদামি লোক। তবে এ ঘটনার জন্য তিনি দুঃখ প্রকাশ করেছেন। তার ভুল তিনিও বুঝতে পেরেছেন।

এর আগে এক অনুষ্ঠানে তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছিলেন- ভারতের লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থীর পক্ষে অভিনেতা ফেরদৌসের প্রচারে অংশ নেয়াকে দুঃখজনক। বুধবার রাতে রাজধানীর একটি হোটেলে কনস্যুলার কর্প অব বাংলাদেশ (সিসিবি) আয়োজিত অনুষ্ঠানের আগে গণমাধ্যমকর্মীদের কাছে এ মন্তব্য করেন তিনি।

আবদুল মোমেন বলেন, ফেরদৌস তার বন্ধুর জন্য গিয়ে প্রচার করেছেন। তবে সেটি দুঃখজনক।

ফেরদৌসের এই প্রচারণার বিষয়ে ভারতের ক্ষমতাসীন দল ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি) আনুষ্ঠানিকভাবে সে দেশের নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ করেছে। এ নিয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘ভারতীয়রা এত স্ট্রং রিঅ্যাক্ট করেছে, তা–ও আমার কাছে বেশি লাগল। রিঅ্যাকশনটা একটু বেশি হয়ে গেছে।’ তিনি জানান, এ বিষয়ে বিজেপি নেতৃত্বাধীন সরকার এখনও বাংলাদেশকে কিছুই জানায়নি।

প্রসঙ্গত গত রোববার ফেরদৌস পশ্চিমবঙ্গের উত্তর দিনাজপুর জেলার রায়গঞ্জ আসনে তৃণমূল প্রার্থী কানহাইয়ালাল আগরওয়ালের নির্বাচনী প্রচারে অংশ নেন। এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন টালিউড তারকা অঙ্কুশ হাজরা ও পায়েল। এই এলাকা অবশ্য বাংলাদেশ সীমান্তসংলগ্ন।

এ নিয়ে ভারতের ক্ষমতাসীন দল ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি) দেশটির নির্বাচন কমিশনের কাছে অভিযোগ করে তাকে গ্রেফতারের দাবি জানায়। ফলে দেশটির কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ফেরদৌসের বিরুদ্ধে তদন্তে নামে। তাকে ঘিরে নানা নাটকীয়তা চলতে থাকে।

ইন্ডিয়া টুডে জানায়, ফেরদৌস সোমবারেও উত্তর দিনাজপুরের কারানদিঘি ও চাকুলিয়ায় নির্বাচনী প্রচারে অংশ নেন। ভারত মনে করছে, এটি ভিসা চুক্তি লঙ্ঘন। সূত্রের বরাত দিয়ে প্রতিবেদনে বলা হয়, চুক্তি লঙ্ঘনে ফেরদৌসকে ভারত থেকে বাংলাদেশে ফিরে যেতে বলা হতে পারে অথবা তার ভিসা বাতিল করা হতে পারে। তবে ভিসা বাতিল হলে তাকে গ্রেফতারের আশঙ্কা করা হয়েছিল।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইকোনমিকস টাইমস জানায়, অন্য দেশের নাগরিক তৃণমূল কংগ্রেসের হয়ে লোকসভা নির্বাচনে প্রচারে অংশ নিচ্ছে, এমন অভিযোগ পাওয়ার পর ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় মঙ্গলবার রিজিওনাল ফরেইনার্স রেজিস্ট্রেশন অফিসের কাছে এ বিষয়ে ব্যাখ্যাসহ প্রতিবেদন চেয়েছে। কলকাতার ফরেইনার রিজিওনাল রেজিস্ট্রেশন অফিসার বলেন, ফেরদৌসের বিষয়ে বিস্তারিত প্রতিবেদন পাঠানো হয়েছে। লোকসভার নির্বাচনী প্রচারে প্রার্থীর পক্ষে অংশগ্রহণ করে তিনি ভিসার শর্ত ভঙ্গ করেছেন।

তবে ফেরদৌস জানান, তিনি ব্যবসাসংক্রান্ত ভিসা নিয়ে ভারতে গিয়েছিলেন।

বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ ইন্ডিয়া টুডেকে বলেছেন, ‘নির্বাচনী প্রচারের এমন কৌশল আগে কখনও দেখিনি। কাল হয়তো ইমরান খানকেও (পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী) প্রচারে ডাকবে তৃণমূল। ভোট কম পড়লে রোহিঙ্গাদেরও ডেকে আনতে পারেন তিনি।

এমএ/ ০৫:২২/ ১৮ এপ্রিল

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে