Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শনিবার, ২৫ মে, ২০১৯ , ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৪-১৬-২০১৯

ভারতীয় সেনা জওয়ানদের শহিদ হওয়ার ঘটনাকে নির্বাচনী ইস্যু বললেন প্রধানমন্ত্রী

ভারতীয় সেনা জওয়ানদের শহিদ হওয়ার ঘটনাকে নির্বাচনী ইস্যু বললেন প্রধানমন্ত্রী

নয়া দিল্লী, ১৬ এপ্রিল- এ কি বললেন প্রধানমন্ত্রী!‌ জাতীয় সরকারি সংবাদমাধ্যমে বসে এমন সাক্ষাৎকার কি করে দিলেন?‌ তা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে জাতীয় রাজনীতির অলিন্দে। কারণ বিরোধীরা দাবি করে আসছিলেন প্রধানমন্ত্রী দেশের সেনাবাহিনীর কৃতিত্ব, তাঁদের শহিদ হওয়ার ঘটনাকে লোকসভা নির্বাচনের কাজে লাগাচ্ছেন। প্রধানমন্ত্রী এই বিরোধীদের দাবিকে নস্যাৎ করতে সাক্ষাৎকার দিতে বসেছিলেন দূরদর্শন এবং রাজ্যসভা টিভিতে। সেখানে তিনি বলেছেন, জাতীয়তাবাদ এবং ভারতীয় সেনা জওয়ানদের শহিদ হওয়ার ঘটনা অনেক বেশি নির্বাচনী ইস্যু কৃষক মৃত্যুর ইস্যুর থেকে।

প্রধানমন্ত্রীর এই বক্তব্য নিয়ে এখন জাতীয় রাজনীতিতে জোর চর্চা শুরু হয়েছে। কারণ তিনি একদিকে স্পষ্ট করে দিলেন সেনাবাহিনীর বিষয়টি নির্বাচনী ইস্যু। অর্থাৎ নির্বাচন কমিশন যে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল তা ফুৎকারে উড়িয়ে দিলেন তিনি। অন্যদিকে কৃষকদের ইস্যুকে সরাসরি অবহেলা করে দূরে ঠেলে সরিয়ে দিলেন। সেক্ষেত্রে বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির দাবি, কেন্দ্রে শ্রমিক–কৃষক বিরোধী সরকার চলছে। ফ্যাসিবাদের নায়ক নরেন্দ্র মোদি, হিটলার বেঁচে থাকলে তিনিও আত্মহত্যা করতেন। এই দাবি এখন সঠিক বলে মনে করা হচ্ছে।

যদিও সাক্ষাৎকার দিতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রীর দাবি, ‘‌গত ৪০ বছর ধরে সন্ত্রাসবাদ ভারতের মানুষের জীবনে প্রভাব ফেলেছে। তাই এখনই উপযুক্ত সময় মানুষকে জানানোর। যদি আমরা তাঁদের না বলি আমাদের দৃষ্টিভঙ্গি কি এই বিষয়ে, তাহলে যুক্তিটা কি সেই বিষয়ের?‌ কোনও দেশ কি জাতীয়তাবাদের অনুভূতিকে বাদ দিয়ে এগোতে পারে?‌ দেশে হাজার হাজার সেনা শহিদ হচ্ছেন। সেটা কি নির্বাচনী ইস্যু নয়?‌ যদি কৃষক মারা যেত তাহলে সেটা নির্বাচনী ইস্যু, আর যখন সেনা শহিদ হচ্ছে সেটা নির্বাচনী ইস্যু নয়?‌ সেটা কি করে হয়?‌’‌

এই সাক্ষাৎকারে তিনি জম্মু–কাশ্মীরের পিডিপি নেত্রী মেহবুবা মুফতি এবং ন্যাশানাল কনফারেন্সের সভাপতি ফারুক আবদুল্লার হুমকি নিয়ে একহাত নেন। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেন, ‘‌এই নেতা–নেত্রী সবসময় জম্মু–কাশ্মীরের মানুষকে শোষণ করেছেন আবেগে সুড়সুড়ি দিয়ে। লোকসভা ভোট বয়কট করতে মানুষকে বলেছিলেন তাঁরা। তবে মানুষ তাতে সাড়া দেয়নি। বরং ৭০ শতাংশ ভোট পড়েছে সেখানে।’‌

আর/০৮:১৪/১৬ এপ্রিল

দক্ষিণ এশিয়া

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে