Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, সোমবার, ১৮ নভেম্বর, ২০১৯ , ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.0/5 (15 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৪-১৫-২০১৯

বাংলা নববর্ষের যত রং অস্ট্রেলিয়ায়

কাউসার খান


বাংলা নববর্ষের যত রং অস্ট্রেলিয়ায়

সিডনি, ১৫ এপ্রিল- প্রতি বছরের মতো এ বছরও অস্ট্রেলিয়ায় মহাসমারোহে স্বাগত জানানো হয়েছে বাংলা নববর্ষ ১৪২৬। ঢাক-ঢোল আর রঙে-ঢঙের উৎসব আমেজে দেশব্যাপী পয়লা বৈশাখ ও বর্ষবরণ উৎসব উদ্‌যাপিত হয়েছে। বাংলা নতুন বছর উপলক্ষে বাণী দেন অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন। দেশটিতে বসবাসরত বাংলাদেশিদের তিনি নতুন বছরের শুভেচ্ছা জানিয়ে সকলের শান্তি, সুখ ও সমৃদ্ধি কামনা করেন। এদিকে অস্ট্রেলিয়ার সকল রাজ্যেই নানা আয়োজনে বাঙালিরা মেতে ওঠেন বর্ষবরণ উৎসবের। সিডনি, মেলবোর্ন, ডারউইন ও অ্যাডিলেডসহ প্রায় সকল শহরেই আয়োজন করা হয় বৈশাখী মেলার।

অস্ট্রেলিয়ার সবচেয়ে বড় বৈশাখী মেলা

২৭ বছরের ধারাবাহিকতায় অস্ট্রেলিয়ার সিডনিতে এবারও হয়ে গেল দেশটি ও বাংলাদেশের বাইরে সবচে বড় বৈশাখী মেলা। বিশ্বের অন্যতম ইভেন্ট ভেন্যু সিডনি অলিম্পিক পার্কের এএনজেড অলিম্পিক স্টেডিয়ামে গত ২৩ মার্চ দিনব্যাপী বর্ষবরণ উৎসবের আয়োজন করা হয়। মেলায় বাংলাদেশ থেকে আমন্ত্রিত হয়ে আসেন সংগীতশিল্পী আঁখি আলমগীর ও ওপার বাংলার আকাশ সেন। মেলায় দেশীয় সংস্কৃতির উদ্‌যাপনের পাশাপাশি আলোকসজ্জা ও আতশবাজির জমকালো আয়োজন ছিল। তবে পয়লা বৈশাখের অনেক আগে আয়োজিত এ মেলায় নববর্ষের আমেজ কম থাকায় দর্শক উপস্থিতি কিছুটা কম ছিল অন্যান্য বারের তুলনায়। এ মেলার আয়োজক বঙ্গবন্ধু কাউন্সিল অস্ট্রেলিয়া।

ফেয়ারফিল্ড শো-গ্রাউন্ডে বৈশাখী মেলা

প্রতিবারের মতো এবারও সিডনির ফেয়ারফিল্ড শো-গ্রাউন্ডে আয়োজিত হয়েছে বৈশাখী মেলার। গত ৬ এপ্রিল শনিবার সকাল থেকে স্মিথফিল্ড রোডের ফেয়ারফিল্ড শো-গ্রাউন্ডে আসর বসে মেলার। পয়লা বৈশাখের আগে আগে হওয়ায় এ মেলায় বিপুল দর্শক সমাগম ঘটে। এ ছাড়া মেলার বিশেষ আয়োজনে ছিল দুই প্রজন্মের খ্যাতনামা সংগীতশিল্পী বাবা-ছেলে জুটি ফেরদৌস ওয়াহিদ ও হাবিব ওয়াহিদের সংগীত পরিবেশনা। মেলার দিনব্যাপী নানা সাংস্কৃতিক আয়োজনের পাশাপাশি ছিল আতশবাজির জমকালো আয়োজন। মেলার আয়োজক বঙ্গবন্ধু পরিষদ সিডনি।

ইঙ্গেলবার্নে বৈশাখী মেলা

সিডনির বাঙালিয়ানা আয়োজনে বাংলা নববর্ষকে স্বাগত জানানোর ধারাবাহিকতায় ইঙ্গেলবার্নে বৈশাখী উৎসবের আসর বসে। গত ৭ এপ্রিল রোববার ইঙ্গেলবার্ন কমিউনিটি হলে বিকেলে শুরু হয় বৈশাখী মেলা। মেলা আয়োজনে প্রাধান্য পায় নতুন প্রজন্মের কাছে বাঙালি সংস্কৃতিকে তুলে ধরা। স্থানীয় বাংলাদেশি শিশু-কিশোরদের পরিবেশনায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজিত হয়। এ ছাড়া এবার উৎসবে গান পরিবেশন করেন জনপ্রিয় লোকজ সংগীতশিল্পী দিলরুবা খান। এ উৎসব আয়োজন করে সিডনি বাঙালি কমিউনিটি।

ক্যাম্বেলটাউনে বৈশাখী মেলা

সিডনিতে বাংলা বর্ষবরণ উদ্‌যাপন করে ক্যাম্বেলটাউনের স্থানীয় বাংলাদেশিরা। গতকাল ১৩ এপ্রিল ক্যাম্বেলটাউন স্পোর্টস স্টেডিয়ামে বেলা ২টায় আয়োজন করা করা হয় বৈশাখী মেলার। এবারের মেলায় বাংলা ঐতিহ্যের পাশাপাশি অস্ট্রেলিয়ার বহুজাতিক সংস্কৃতিকেও উদ্‌যাপন করা হয়। ছিল নানান পণ্য আর খাবারের পসরা সাজানো বিভিন্ন স্টল। মেলার আয়োজক মাল্টিকালচারাল সোসাইটি অব ক্যাম্বেলটাউন।

সিডনির সড়কে বৈশাখী আলপনা

বাংলাদেশে বৈশাখী উৎসবের অন্যতম অংশ সড়কে আলপনা। একই বাহারি রঙের আলপনা ও ফেস্টুনে মোড়া হয় সিডনির বাঙালিপাড়া খ্যাত লাকেম্বার রেলওয়ে প্যারেডে সড়ক। রংবেরঙের আলপনা দেখতে প্রবাসী বাঙালিরা ভিড় জমান লাকেম্বায়। আলপনা আঁকা ও পরিদর্শনের জন্য স্থানীয় কাউন্সিল রেলওয়ে প্যারেড রাস্তাটি বন্ধ রাখে। এরপর রেলওয়ে প্যারেডে আসর বসে বর্ষবরণ উৎসবের। যৌথভাবে মেলা আয়োজন করে বাংলা টাউন অস্ট্রেলিয়া।

সিডনিতে বাংলাদেশি কাউন্সিলরের বর্ষবরণ অনুষ্ঠান

সিডনির কাম্বারল্যান্ড কাউন্সিলের ওয়েন্টওর্থভিল ওয়ার্ডের কাউন্সিলর সুমন সাহা আয়োজন করেন বাংলা নববর্ষ উদ্‌যাপনের। বাংলা সংস্কৃতিকে স্থানীয় মূলধারার অস্ট্রেলিয়ানদের সামনে তুলে ধরতে এ আয়োজন করেন তিনি। আজ ১৪ এপ্রিল স্থানীয় সময় বিকেল ৪টায় কাম্বারল্যান্ডের হোলরোয়েড সেন্টারে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এতে স্থানীয় বাংলাদেশিদের পাশাপাশি মূলধারার বিভিন্ন রাজনৈতিক ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।

অ্যাডিলেডে বর্ষবরণ উৎসব

স্থানীয় বাংলাদেশিদের অংশগ্রহণে দক্ষিণ অস্ট্রেলিয়ার রাজধানী অ্যাডিলেডে নববর্ষ উদ্‌যাপন করা হয়েছে। উৎসবে নানা আয়োজনের মধ্যে বিশেষ পরিবেশনা ছিল জনপ্রিয় লোকজ সংগীতশিল্পী কিরণ চন্দ্র রায় আর চন্দনা মজুমদারের মন মাতানো বাংলার গান। আজ ১৪ এপ্রিল দিনব্যাপী বর্ষবরণ উৎসবের আসর বসে ফুলারটন পার্ক কমিউনিটি সেন্টারে। মেলার আয়োজক বাংলাদেশ অস্ট্রেলিয়া সোসাইটি অব সাউথ অস্ট্রেলিয়া।

ভিক্টোরিয়া জুড়ে বর্ষবরণ উদ্‌যাপন

অস্ট্রেলিয়ার ভিক্টোরিয়া রাজ্যজুড়ে বসবাসকারী বাংলাদেশিদের অংশগ্রহণে উদ্‌যাপন করা হয় বাংলা বর্ষবরণ। স্থানীয় বাংলাদেশি সংগঠনগুলোর উদ্যোগে নানা সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও বৈশাখী মেলায় আয়োজন করা হয়। ভিক্টোরিয়ার রাজধানী মেলবোর্নের কিসবোরাহের সেকেন্ডারি কলেজ প্রাঙ্গণে গতকাল ১৩ এপ্রিল আয়োজিত হয় দিনব্যাপী চৈত্র সংক্রান্তি ও বর্ষবরণ উৎসব। একই দিন সানশাইন বাংলা স্কুলের আয়োজন করে বৈশাখ মেলার। আজ ১৪ এপ্রিল মেলবোর্নে বৈশাখী মেলা ও সাউথ এশিয়ান ফেস্টিভ্যাল আয়োজন করা হয়। আগামী ২৭ ও ২৮ এপ্রিল বর্ষবরণ উৎসব ও বৈশাখী মেলা আয়োজিত হবে মেলবোর্নের হামিংবার্ড ও ডানডেনংয়ে।

ডারউইনে নববর্ষ উদ্‌যাপন

অস্ট্রেলিয়ার নর্দান টেরিটরি রাজ্যের রাজধানী ডারউইনে উদ্‌যাপিত হয়েছে বাংলা নববর্ষ। আজ পয়লা বৈশাখে স্থানীয় বাংলাদেশিরা এক সঙ্গে উৎসবে যোগ দেন। বর্ষবরণ আয়োজনে ছিল দেশীয় সাংস্কৃতিক পরিবেশনা। এ ছাড়া বাঙালির ঐতিহ্যবাহী খাবারেরও আয়োজন করা হয় উৎসব প্রাঙ্গণে। মেলা আয়োজনে সহযোগীর ভূমিকা রাখে সাংস্কৃতিক সংগঠন গানের আসর।

এমএ/ ০২:২২/ ১৫ এপ্রিল

অষ্ট্রেলিয়া

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে