Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শনিবার, ২৫ মে, ২০১৯ , ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৪-১৩-২০১৯

ভেঙে দেয়া হচ্ছে যশোর জেলা বিএনপির কমিটি

ভেঙে দেয়া হচ্ছে যশোর জেলা বিএনপির কমিটি

যশোর, ১৩ এপ্রিল- অবশেষে ভেঙে দেয়া হচ্ছে যশোর জেলা বিএনপির নির্বাহী কমিটি। তৃণমূলের দাবির কারণে দলকে সাংগঠনিকভাবে শক্তিশালী করার জন্য শিগগিরই কমিটির সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। গত বৃহস্পতিবার বিকেলে জেলা বিএনপির কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত নির্বাহী কমিটির সভায় এই বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়। তবে সভা মূলতবি করে আগামী ২০ এপ্রিল পরবর্তী দিন নির্ধারণ করা হয়েছে। ওইদিন আহ্বায়ক কমিটি করে জেলা কমিটি ভেঙে দেয়া হবে।

ইতোমধ্যে জেলার নেতারা কর্মীদের আস্থা হারিয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে নিস্ক্রিয়তার অভিযোগ অনেক আগে থেকেই। দলীয় একাধিক সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

যশোর জেলা বিএনপি সূত্রে জানা গেছে, ২০০৯ সালে যশোর জেলা বিএনপির কমিটি গঠিত হয়। ১৪০ সদস্য বিশিষ্ট কমিটির সভাপতি নির্বাচিত হয়েছিলেন প্রয়াত শহিদুল ইসলাম নয়ন ও সাধারণ সম্পাদক হন অ্যাডভোকেট সাবেরুল হক সাবু। এরপর প্রায় দশ বছর পার হতে চললেও জেলা সম্মেলন করা হয়নি। ইতোমধ্যে দলীয় সভাপতি শহিদুল ইসলাম নয়নসহ কমিটির ১৮ সদস্য মারা গেছেন। বহিষ্কার রয়েছেন ৩ জন। এ অবস্থার মধ্যে চলছে যশোর বিএনপি।

তৃণমূল নেতাকর্মীদের দাবি দীর্ঘ এক দশক জেলা কমিটির সম্মেলন না হবার কারণে সরকার বিরোধী আন্দোলন যশোরে হয়নি। কোনো মিছিল-মিটিং ছিল না বললেই চলে। বেশির ভাগ নেতা মামলার ভয়ে নিজেদেরকে আড়াল করে রেখেছেন। তবে শীর্ষ কয়েকজন নেতা পুলিশের নাশকতার মামলার আসামি ছিলেন। এমন অবস্থায় ঝিমিয়ে পড়ে যশোর জেলা বিএনপির কর্মকাণ্ড। জেলার রাজনীতির মাঠে ক্ষমতাসীনরা ছাড়া আর কোনো দল নাই বিগত ১০ বছর ধরে। জেলা বিএনপির নিস্ক্রিয়তার কারণে এর অঙ্গ সংগঠন জেলা যুবদল ও ছাত্রদলের অবস্থাও ভঙ্গুর।
 
যশোর জেলা বিএনপি মূলত দু’ভাগে বিভক্ত। এর একটি পক্ষের নেতৃত্বে রয়েছে প্রয়াত তরিকুল ইসলামের সহধর্মিনী অধ্যাপক নার্গিস বেগম, ছেলে কেন্দ্রীয় বিএনপি নেতা অনিন্দ্য ইসলাম অমিত। অন্যপক্ষে তার ভাইপো যশোর পৌরসভার সাবেক মেয়র এবং নগর বিএনপির সভাপতি মারুফুল ইসলাম।

নির্বাহী কমিটির সভায় সভাপতিত্ব করেন দলের সহ-সভাপতি রফিকুল ইসলাম তোতন। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির খুলনা বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক নজরুল ইসলাম মঞ্জু। বিশেষ অতিথি ছিলেন দলের খুলনা বিভাগীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক অনিন্দ্য ইসলাম অমিত ও জয়ন্ত কুন্ডু। এসময় নির্বাহী কমিটির ৮০ জন সদস্য উপস্থিত ছিলেন। সভায় জেলা বিএনপির কমিটি ভেঙে আহ্বায়ক কমিটি গঠনের প্রস্তাব উঠে আসে। এতে আহ্বায়ক হিসেবে অধ্যাপক নার্গিস বেগম এবং যুগ্ম আহ্বায়ক হিসেবে দলের জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক সাবেরুল হক সাবু ও সাংগঠনিক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন খোকনের নাম প্রস্তাব করেন বেশিরভাগ সদস্য।

আগামী ২০ এপ্রিল সভা করে আহ্বায়ক কমিটি গঠন করা হবে বলে উপস্থিত একাধিক নেতা নিশ্চিত করেছেন। আহ্বায়ক কমিটি পরবর্তীতে ভোটের মাধ্যমে দল পুনঃগঠন করবে।

যশোর জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন খোকন জানান, বৃহস্পতিবারের সভায় আহ্বায়ক কমিটি নিয়ে মতামত এসেছে। ২০ এপ্রিলের সভায় সিদ্ধান্ত হবে। তবে উপস্থিত সভায় জেলা কমিটি ভেঙে নতুন কমিটি গঠনের বিষয়ে জোর দিয়েছেন।

বিএনপির খুলনা বিভাগীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক অনিন্দ্য ইসলাম অমিত জানান, সারাদেশে দলকে পুনঃগঠনের অংশ হিসেবে যশোর বিএনপিকেও ঢেলে সাজানো হবে। এজন্য আহ্বায়ক কমিটি করে পরবর্তীতে জেলা কমিটি গঠন করবেন দলীয় ভোটাররা।

সূত্র: জাগোনিউজ২৪
এমএ/ ০৭:০০/ ১৩ এপ্রিল

যশোর

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে