Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, রবিবার, ১৯ মে, ২০১৯ , ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

গড় রেটিং: 2.7/5 (6 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)


আপডেট : ০৪-১০-২০১৯

হিটলার থাকলে গলায় দড়ি দিতেন : মোদিকে কটাক্ষ মমতার

হিটলার থাকলে গলায় দড়ি দিতেন : মোদিকে কটাক্ষ মমতার

কলকাতা, ১০ এপ্রিল- প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে আগেও হিটলার বলেছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এবার আরও কড়া ভাষায় মোদিকে কটাক্ষ করলেন তিনি। পশ্চিমবঙ্গের রায়গঞ্জের সভায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, নরেন্দ্র মোদি নিজের প্রচার ছাড়া কিছু করেন না। নিজের নামে সিনেমা বানিয়েছেন। নিজের নামে দোকান বানিয়েছেন। এ ধরনের দুঃশাসনের মন্ত্রিসভা আগে কখনও হয়নি ভারতবর্ষে। ফ্যাসিবাদের সম্রাট, ফ্যাসিবাদী সম্রাট। হিটলার বেঁচে থাকলে আজ লজ্জায় গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করতেন।

অপরদিকে বিজেপির উত্তর দিনাজপুর জেলা সভাপতি বিশ্বজিৎ লাহিড়ী বলেন, মুখ্যমন্ত্রী বুঝতেই পারছেন এখানে জিততে পারবেন না। তাই ভোটের আগে এমন সব কথা বলছেন যার কোনও মানে নেই।

মমতা অবশ্য প্রথম থেকেই মোদির প্রসঙ্গে আক্রমণাত্মক ছিলেন। তিনি মন্তব্য করেন, বাপ রে, কী সাংঘাতিক লোক। দাঙ্গার কথা ভুলে যাননি তো! বিজেপির নির্বাচনী ইশতেহার সম্পর্কে তিনি বলেন, বলছে ২০৪৭ সালে তাদের স্বপ্ন পূরণ হবে। এটা ২০১৯ সাল। পাঁচ বছর পরপর সরকার বদলায়। অথচ তারা ২০৪৭ সালের স্বপ্ন দেখছেন। মোদিবাবু তোমারও তো ১০০ বছর বয়স হয়ে যাবে। তখন তুমি কী করে স্বপ্ন দেখবে?

মমতার দাবি, বিজেপি সমস্ত শক্তি দিয়ে সরকারি সংস্থাগুলোকে রাজনৈতিকভাবে ব্যবহার করে গায়ের জোরে নির্বাচনে জিততে চায়। তিনি বলেন, আমরাও রাজ্যে রাজ্যে জোট বেঁধে লড়াই করছি। যে যেখানে শক্তিশালী। বিনা যুদ্ধে এক ইঞ্চি জমিও সারা ভারতবর্ষে দেব না।

মমতা বলেন, জিজ্ঞাসা করুন, বিজেপিকে কেন ভোট দেব তোমায়? তুমি পাঁচ বছর ক্ষমতায় ছিলে। নোট বাতিল করে জনগণের পকেট লুটেছ। অনেক দোকানদার সর্বস্বান্ত হয়েছে। অনেক ব্যবসা বন্ধ হয়ে গেছে। ব্যাংকে লাইন দিতে গিয়ে অনেকে প্রাণ দিয়েছে। আজও দেশে ১২ হাজার কৃষক আত্মহত্যা করেছে মোদিবাবু তোমাদের আমলে। ছেলে মেয়ের চাকরি দেওয়াতো দূরের কথা। আপনারা বলেছিলেন পাঁচ বছরে ১০ কোটি বেকারকে চাকরি দেবেন। অথচ আপনার আমলে দেশে বেকার সংখ্যা ৪৫ বছরে সর্বোচ্চ।

মুখ্যমন্ত্রীর অভিযোগ, যেই বিজেপির বিরুদ্ধে বলছে, তাকেই ভয় দেখানো হচ্ছে। মমতা বলেন, এজেন্সি দিয়ে ভয় দেখাচ্ছ। কাউকে সিবিআই দিয়ে, কাউকে ইডি দিয়ে। কারও বিরুদ্ধে আয়করের রেড করছ। আর নিজেরা এক একটা চোর, সব নাটের গুরু বিজেপি পার্টি। চোরদের সুরক্ষা দিচ্ছ। যত চোর ডাকাত ওই পার্টিতে আশ্রয় নিয়েছে।

মমতা বলেন, বিজেপি অন্ধ্রপ্রদেশ, বিহারে গোহারা হারবে। ঝাড়খণ্ড, রাজস্থান, মধ্যপ্রদেশ, গুজরাট, পাঞ্জাবে হারবে। তামিলনাড়ু, কেরালা, বাংলা, ওড়িষ্যায় শূন্য পাবে। তা সরকার গড়বে কীভাবে? তিনি বলেন, অখিলেশ যাদব আমার বন্ধু। এক সঙ্গে দেশ গড়ব। মুখ্যমন্ত্রীর সভায় সমাজবাদী পার্টির পতাকাও দেখা গেছে।

ইসলামপুরের সভায় মমতা বলেন, মোদির বিরুদ্ধে লড়াই করতে সবাই ভয় পায়। আমি ওকে ভয় পাই না। আমি সারা জীবন গুলির সঙ্গে লড়াই করে এসেছি। অনেক বন্দুক দেখেছি মোদির বন্দুককে কেন ভয় পাব? জওয়ানদের মৃত্যু নিয়েও রাজনীতি করা হচ্ছে বলে দাবি করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, জওয়ানরা দেশের, তোমার নন।

সূত্র: জাগো নিউজ২৪
আর এস/ ১০ এপ্রিল

পশ্চিমবঙ্গ

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে