Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, বুধবার, ১৭ জুলাই, ২০১৯ , ১ শ্রাবণ ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.0/5 (5 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)


আপডেট : ০৪-০৩-২০১৯

পাইলটদের প্রশিক্ষণ দিতে ভেনিজুয়েলায় রাশিয়ার ১০০ সামরিক বিশেষজ্ঞ

পাইলটদের প্রশিক্ষণ দিতে ভেনিজুয়েলায় রাশিয়ার ১০০ সামরিক বিশেষজ্ঞ

কারাকাস, ০৩ এপ্রিল- রুশ নির্মিত সামরিক হেলিকপ্টার চালাতে ভেনিজুয়েলার পাইলটদের সহায়তা করতে দেশটিতে একটি প্রশিক্ষণকেন্দ্র উদ্বোধন করেছে রাশিয়া। মস্কোর রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠান রসটেক সোমবার এমন তথ্য দিয়েছে।
ভেনিজুয়েলার প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরোর প্রতি নিজেদের সমর্থনের সর্বশেষ বহির্প্রকাশ হচ্ছে এই প্রশিক্ষণ কেন্দ্র উদ্বোধন।-খবর রয়টার্সের

রসটেক জানিয়েছে, গত সপ্তাহের বৃহস্পতিবার এ কেন্দ্রটি উদ্বোধন করা হয়েছে। একই দিন মাদুরোর সমর্থনে সেনা সদস্য ও সামরিক সরঞ্জাম পাঠানোর বিরুদ্ধে মস্কোসহ অন্যান্য দেশকে হুশিয়ারি দিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

তিনি বলেন, এমন উদ্যোগকে আঞ্চলিক নিরাপত্তার জন্য সরাসরি হুমকি হিসেবে দেখছে যুক্তরাষ্ট্র।

দক্ষিণ আমেরিকার দেশটির বিরোধীদলীয় নেতা জোয়ান গুইদোকে সমর্থন জানিয়ে আসছে ওয়াশিংটন।

কারাকাসের বাইরে প্রায় ১০০ সেনা সদস্য বহনকারী রুশ বিমানবাহিনীর একটি উড়োজাহাজ অবতরণের পরেই হুশিয়ারি বার্তা দিল যুক্তরাষ্ট্র। এ সেনা দল সামরিক বিশেষজ্ঞ বলে জানিয়েছে ক্রেমলিন। তবে এ প্রশিক্ষণকেন্দ্রটি কোথায় স্থাপন করা হয়েছে, তা এখনও প্রকাশ করা হয়নি।

রসটেক জানিয়েছে, রুশ বিশেষজ্ঞদের সহায়তায় এ স্থাপনাটি নির্মাণ করা হয়েছে। ভেনিজুয়েলার পাইলটরা যাতে রুশ নির্মিত মি-৩৫ বিমান ও রুশ সামরিক পরিবহন হেলিকপ্টার চালাতে পারেন, সে জন্য প্রশিক্ষণ দিতেই এমন একটি কেন্দ্র নির্মাণের পরিকল্পনা করা হয়েছিল।

ভেনিজুয়েলার রাষ্ট্রমালিকানাধীন অস্ত্র নির্মাতা সিএভিআইএমের সঙ্গে চুক্তির অধীন রাশিয়া এই প্রশিক্ষণকেন্দ্র স্থাপন করে। রসটেক বলছে, ভেনিজুয়েলার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে যতটা সম্ভব সামরিক ও কৌশলগত সহযোগিতা বাড়াতে চাচ্ছে তারা।

ভেনিজুয়েলাকে যুদ্ধবিমান, ট্যাংক, বিমান প্রতিরক্ষাব্যবস্থাও সরবরাহ করে আসছে রাশিয়া। তবে কারাকাসের সঙ্গে সামরিক সহযোগিতার ক্ষেত্রে মার্কিন সমালোচনা উড়িয়ে দিয়ে মস্কো বলছে, তারা দক্ষিণ আমেরিকার দেশটির অভ্যন্তরীণ বিষয়ে কোনো হস্তক্ষেপ করছে না।

এ ছাড়া তাদের এ সহযোগিতা আঞ্চলিক স্থিতিশীলতার জন্য হুমকি হিসেবেও বিবেচনা করা হচ্ছে না বলে রাশিয়া জানিয়েছে।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলছেন, রাশিয়াকে অবশ্যই ভেনিজুয়েলা থেকে বেরিয়ে আসতে হবে এবং মাদুরোকে সহায়তা কমিয়ে আনতে জবরদস্তির সব পথ খোলা আছে। এতে মস্কোর বিরুদ্ধে নতুন মার্কিন নিষেধাজ্ঞা আরোপের আশঙ্কাই কেবল বাড়ছে।

সূত্র: যুগান্তর 
আর এস/ ০৩ এপ্রিল

 

দক্ষিণ আমেরিকা

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে