Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, মঙ্গলবার, ১২ নভেম্বর, ২০১৯ , ২৮ কার্তিক ১৪২৬

গড় রেটিং: 4.0/5 (1 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)


আপডেট : ০৩-৩১-২০১৯

যুক্তরাষ্ট্রের কাছে কিমকে পরমাণু অস্ত্রভাণ্ডার তুলে দেওয়ার প্রস্তাব

যুক্তরাষ্ট্রের কাছে কিমকে পরমাণু অস্ত্রভাণ্ডার তুলে দেওয়ার প্রস্তাব

পিয়ংইয়ং, ৩১ মার্চ- মধ্যাহ্নভোজ না সেরেই বের হয়ে এসেছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। গত ২৮ ফেব্রুয়ারি ভিয়েতনামের হানোয়ে হওয়া উত্তর কোরিয়ার শাসক কিম জং উনের সঙ্গে তার বৈঠক মাঝ পথেই ভেস্তে যায়। সম্পূর্ণভাবে পরমাণু নিরস্ত্রীকরণে যুক্তরাষ্ট্রের দাবি সরাসরি নাকচ করে দেওয়া হয় পিয়ংইয়ং'র তরফ থেকে। 

ট্রাম্পের সামনে হঠাৎ কিমের এমন আচরণ নিয়ে প্রশ্ন উঠছিল আন্তর্জাতিক মহলে। সম্প্রতি সংবাদমাধ্যমের একটি প্রতিবেদনে স্পষ্ট হয়, কেন এমন সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হন উত্তর কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ট্রাম্প প্রশাসনের এক আমলা জানান, কিম জং উনের কাছে প্রস্তাব রাখা হয় উত্তর কোরিয়ার কাছে থাকা সব ধরনের পরমাণু সম্ভার তুলে দেওয়া হোক যুক্তরাষ্ট্রের কাছে। 

ডোনাল্ড ট্রাম্পের এই প্রস্তাব ছিল মার্কিন  নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বোল্টনের মস্তিষ্কপ্রসূত। ২০০৪ সালে তিনিই এই ধরনের প্রস্তাব দিয়েছিলেন। জাতিসংঘের সাবেক এই রাষ্ট্রদূত যখন ট্রাম্প জমায় নিরাপত্তা উপদেষ্ট পদে যোগ দেন, ফের এই প্রস্তাব নিয়ে চর্চা শুরু হয়। ২০০৩ সালে এই প্রস্তাবে সম্মতি জানাতে বাধ্য হন লিবিয়ার তৎকালীন প্রেসিডেন্ট মুয়াম্মার গদ্দাফি। লিবিয়াতে সম্পূর্ণভাবে পরমাণু ভাণ্ডার ধবংস করা হয়, যা বিশ্বে ‘লিবিয়া মডেল’ নামে পরিচিত।
২০১৮ সালে সিঙ্গাপুরে কিম জং উনের সঙ্গে প্রথম বৈঠক হয় মার্কিন প্রেসিডেন্টের। সে সময়ই পরমাণু নিরস্ত্রীকরণে সম্মতি জানিয়েছিলেন কিম। পরবর্তী সময়ে পরমাণু ঘাঁটি নষ্ট করে দেওয়ার খবর প্রকাশ্যে এলেও, মার্কিন গোয়েন্দা সূত্র জানায় পরমাণু অস্ত্র তৈরি চালিয়ে যাচ্ছে উত্তর কোরিয়া। এমনকি নষ্ট হওয়া একটি ঘাঁটি পনরুজ্জীবিত করা হয়। 

এরপর গত ফেব্রুয়ারির বৈঠকে কিমের হাতে একটি ফাইল তুলে দেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। ওই ফাইলে কী দাবি করা হয়েছে, তা নিয়ে বিস্তর জল্পনা ছিল। সূত্রের খবর, চূড়ান্ত পরমাণু নিরস্ত্রীকরণ এবং তার বিশ্বাসযোগ্য প্রমাণ চাওয়া হয়েছিল যুক্তরাষ্ট্রের তরফ থেকে। কিন্তু লিবিয়া মডেলে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের হাতে অস্ত্রভাণ্ডার তুলে দেওয়ার খবর আসতেই সেদিন কিম-ট্রাম্পের বৈঠকের ভেস্তে যাওয়ার কারণ আরও স্পষ্ট হয়। এমনটাই মনে করছেন কূটনীতিকরা।

সূত্র: বিডি প্রতিদিন
আর এস/ ৩১ মার্চ

এশিয়া

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে