Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, বুধবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০১৯ , ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.0/5 (10 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)


আপডেট : ০৩-১৯-২০১৯

বাংলাকে বিকৃত করছে গুগল-ফেসবুক: মোস্তাফা জব্বার

বাংলাকে বিকৃত করছে গুগল-ফেসবুক: মোস্তাফা জব্বার

ঢাকা, ১৯ মার্চ- বিশ্বের শীর্ষ সার্চইঞ্জিন গুগল এবং বৃহৎ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকের মতো টেক জায়ান্টগুলো বাংলাভাষাকে বিকৃত করছে বলে মন্তব্য করেছেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। এসব প্ল্যাটফর্মে বাংলা ভাষা ব্যবহারের সময় ভাষার বিকৃতি এবং অপব্যবহার করা হয় বলেও মন্তব্য করেন মন্ত্রী।

মঙ্গলবার (১৯ মার্চ) আন্তর্জাতিক কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় (আইসিসিবি) চলমান বেসিস সফটএক্সপো-২০১৯ এর এক সেমিনারে এ মন্তব্য করেন মন্ত্রী। ‘বাংলা যান্ত্রিক অনুবাদক’  (তথ্য প্রযুক্তিতে বাংলা ভাষার ব্যবহার) শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী বলেন, গুগল-ফেসবুক বাংলা প্রয়োগের ক্ষেত্রে বাংলাকে বিকৃত করছে, এটি বাংলাদেশের সরকার বরদাশত করবে না। কিছুদিন আগে স্পেনে ফেসবুকের সিইও মার্ক জুকারবার্গের সঙ্গে আমার দেখা হয়েছে। তাকে আমি বলেছি বাংলাকে সঠিকভাবে প্রয়োগ না করলে কখন বাংলাদেশে ফেসবুক নিষিদ্ধ হয়ে যাবে তার গ্যারান্টি আমি দিতে পারি না। একই কথা মাইক্রোসফটকেও বলেছি। বাংলাকে বাংলা ভাষার নিয়মেই  ব্যবহার করতে হবে। 

বাংলা ভাষা টাইপের ক্ষেত্রে সফটওয়্যার বিদেশিদের বদলে দেশীয় প্রকৌশলীরা তৈরি করবে জানিয়ে মোস্তাফা জব্বার বলেন, বাংলা কিবোর্ড বিদেশিদের কাছ থেকে কিনে নেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছিল আমাকে। কিন্তু আমি তা নেইনি। কারণ সেটি নিতে হলে আমাকে ৭৫ মিলিয়ন ডলার খরচ করতে হতো। এছাড়াও গুগল, ফেসবুক, মাইক্রোসফটের হয়ে কোনো ছেলে বা মেয়ে আমাদের বাংলা ভাষার সফটওয়্যার তৈরি করবে তার উপর আমি ভরসা করতে পারিনা। আমাদের বাংলা ভাষার সফটওয়্যার আমাদের ছেলেমেয়েরা তৈরি করবে। আমাদের দেশের ছেলেমেয়েরা তাদের মেধা মাতৃভাষার জন্য দিতে সক্ষম হবে। 

এছাড়াও আইসিটি ডিভিশনের ‘গবেষণা ও উন্নয়নের মাধ্যমে তথ্য প্রযুক্তিতে বাংলা ভাষা সমৃদ্ধকরণ’ প্রকল্প শেষ হলে বাংলা টাইপের জন্য ইংরেজি জানতে হবে না বলেও দাবি করেন তিনি। পাশাপাশি বাংলা ভাষার স্বকীয়তা বজায় রেখে ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে আনার জন্য সরকারের পক্ষ থেকে ইউনিকোড কনসোর্টিয়ামকে বলা হয়েছে বলেও সেমিনারে জানান মোস্তাফা জব্বার। 

সেমিনারে অংশগ্রহণকারীদের থেকে ‘ইউনিকোড সংস্কার’ ক্যাম্পেইনের জন্য স্বাক্ষর গ্রহণ কর্মসূচি নেওয়া হয়। 

সেমিনারে আরও বক্তব্য রাখেন বেসিস সভাপতি সৈয়দ আলমাস কবির, বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের সিস্টেম ডিরেক্টর এনামুল কবির এবং বাংলা ভাষার প্রকল্প পরিচালক ড. মোহাম্মদ জিয়াউদ্দিন। 

সূত্র: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর
এইচ/২০:৫০/১৯ মার্চ

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে