Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, সোমবার, ২০ মে, ২০১৯ , ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৩-১৩-২০১৯

রোনালদোর হ্যাটট্রিকে কোয়ার্টার ফাইনালে জুভেন্টাস

রোনালদোর হ্যাটট্রিকে কোয়ার্টার ফাইনালে জুভেন্টাস

প্রয়োজনের মুহূর্তে আরেকবার জ্বলে উঠলেন ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো। পর্তুগিজ যুবরাজের হ্যাটট্রিকে অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগের কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করেছে জুভেন্টাস। মঙ্গলবার রাতে তাদের সঙ্গে শেষ আটের টিকিট পেয়েছে ম্যানচেস্টার সিটি। ঘরের মাঠে ইংলিশ ক্লাবটি উড়িয়ে দিয়েছে শালকেকে।

চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ ষোলোর দ্বিতীয় লেগে ঘরের মাঠে জুভেন্টাস ৩-০ গোলে হারিয়েছে অ্যাতলেতিকোকে। তাতে মাদ্রিদ থেকে প্রথম লেগ ২-০ গোলে হেরে ফিরলেও ৩-২ অগ্রগামিতায় শেষ আট নিশ্চিত করেছে ইতালিয়ান চ্যাম্পিয়নরা। ঘুরে দাঁড়ানো জয়ে হ্যাটট্রিক করে রোনালদো আরেকবার প্রমাণ করলেন কেন তাকে চ্যাম্পিয়নস লিগের ‘সেরা খেলোয়াড়’ বিবেচনা করা হয়।

রিয়াল মাদ্রিদের টানা তিনটি চ্যাম্পিয়নস লিগ জয়ে সবচেয়ে বেশি অবদান ছিল রোনালদোর। চলতি মৌসুমে মাদ্রিদের ক্লাবটি ছেড়ে জুভেন্টাসে নাম লিখিয়ে সেখানেও আছেন চেনা ফর্মে। চ্যাম্পিয়নস লিগে শুরুটা ভালো না হলেও দরকারের সময় ঠিকই পাওয়া গেল তাকে চেনা রূপে। অ্যাতলেতিকোর মাঠ থেকে ২-০ গোলে হেরে ফিরেও পর্তুগিজ তারকার দুর্দান্ত পারফরম্যান্সে জুভেন্টাস উঠে গেল কোয়ার্টার ফাইনালে।

প্রথম লেগ হেরে ফেরায় ঘরের মাঠে শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক ছিল জুভেন্টাস। যদিও অ্যাতলেতিকোর কড়া রক্ষণে খুব একটা সুবিধা করতে পারছিল না। একবার বল জালে জড়ালেও ফাউলের কারণে বাতিল হয়ে যায় গোল। তবে ২৭ মিনিটে স্বাগতিকদের গোল এনে দেন রোনালদো। ফেদেরিকো বেরনারদেস্কির ক্রস ছোট বক্সের ভেতর থেকে হেডে লক্ষ্যভেদ করেন পাঁচবারের ব্যালন ডি’অর জয়ী।

ওই গোলের লিড নিয়েই প্রথমার্ধ শেষ করে স্বাগতিকরা। যদিও বিরতি থেকে ফিরেই ব্যবধান দ্বিগুণ করে জুভেন্টাস। আবারও গোলদাতা সেই রোনালদো। ৪৯ মিনিটে জোয়াও কানসেলোর ক্রস থেকে হেডে করেন লক্ষ্যভেদ। পর্তুগিজ উইঙ্গারের হেড অ্যাতলেতিকো গোলরক্ষক ইয়ান ওবলাক প্রতিহত করলেও বল পেরিয়ে গিয়েছিল সীমানা। গোল লাইন প্রযুক্তিতে ব্যবধান ২-০ করে জুভেন্টাস।

২ গোলে এগিয়ে গেলেও কোয়ার্টার ফাইনাল তখনও অনিশ্চিত ইতালিয়ান ক্লাবটির। অ্যাতলেতিকোর জন্যও একই অবস্থা। দুই লেগ মিলিয়ে স্কোর লাইন তখন ২-২। ওই অবস্থাতেই ম্যাচ শেষ হতে যাচ্ছিল। তবে দলে রোনালদোর মতো খেলোয়াড় থাকতে তা হতে দেবেন কেন! সঙ্গে ফুটবলদেবতাও সঙ্গী হয় স্বাগতিকদের। তাই তো ৮৭ মিনিটে পাওয়া পেনাল্টি থেকে নিজের হ্যাটট্রিক পূরণের সঙ্গে জুভেন্টাসের কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করেন রোনালদো।

ইতিহাদ স্টেডিয়ামে গোল উৎসব করেছে ম্যানচেস্টার সিটি। আক্ষরিক অর্থেই তারা উড়িয়ে দিয়েছে শালকেকে। শেষ ষোলোর দ্বিতীয় লেগে জার্মান ক্লাবকে তারা হারিয়েছে ৭-০ গোলে। তাতে দুই লেগ মিলিয়ে ১০-২ অগ্রগামিতায় শেষ আটে উঠেছে পেপ গার্দিওলার দল। শালকের মাঠের প্রথম লেগ ম্যানসিটি জিতে ফিরেছিল ৩-২ গোলে।

গোল উৎসবে স্কোরশিটে নাম তুলেছেন ম্যানসিটির ছয় খেলোয়াড়। সের্হিয়ো আগুয়েরো করেছেন জোড়া গোল, আর একবার করে লক্ষ্যভেদ করেছেন লেরয় সেন, রহিম স্টারলিং, বের্নারদো সিলভা, ফিল ফোডেন ও গাব্রিয়েল জেসুস।

সূত্র: গোল ডটকম

আর/০৮:১৪/১৩ মার্চ

ফুটবল

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে