Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, সোমবার, ১৮ নভেম্বর, ২০১৯ , ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৩-১১-২০১৯

অনশন ভেঙ্গে মামাতো ভাইয়ের সাথে বিয়ে, শশুর বাড়িতে স্থান হয়নি তরুণীর!

অনশন ভেঙ্গে মামাতো ভাইয়ের সাথে বিয়ে, শশুর বাড়িতে স্থান হয়নি তরুণীর!

পটুয়াখালী, ১১ মার্চ- সম্পর্কে তারা মামাতো-ফুফাতো ভাইবোন। উভয়ের মাঝে ভালোলাগা তৈরি হলে একপর্যায়ে তা প্রেমের সম্পর্কে গড়ায়। বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তোলেন বলে প্রেমিকের বিরুদ্ধে অভিযোগ ওঠে।

এক সময় বিয়ে করতে রাজি হলেও সম্প্রতি ওই তরুণীকে বিয়ে করবেন না বলে জানিয়ে দেন প্রেমিক। এ কারণে গত বুধবার (৬ মার্চ) থেকে প্রেমিকের বাড়িতে অনশন শুরু করেছিল প্রেমিকা। ঘটনাটি ঘটেছে পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলায়।

অবশেষে টানা পাঁচ দিন অনশন শেষে সামাজিক ভাবে স্থানীয় গন্যমান্যদের উপস্থিতিতে মামাতো ভাইয়ের সাথে বিয়ে সম্পন্ন হলেও শ্বশুর বাড়ি স্থান হয়নি সেই তরুণীর। বিয়ের দিন রাতেই ওই তরুণীকে মারধর করে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। তরুণী বর্তমানে শ্বশুর বাড়ির পাশেই এক বাড়িতে অবস্থান করছেন।

তরুণীর অভিযোগ, বিয়ে শেষে স্বামীসহ শ্বশুর বাড়ি প্রবেশের সময় তার শাশুড়ি ও ননদ তাকে শারীরিক ও মানসিক অত্যাচার করে ঘর থেকে বের করে দেয়।

স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, উপজেলার মদনপুর ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা সোবাহান হাওলাদারের ছেলে সোহাগ হাওলাদারের সাথে একই এলাকার সানিয়া আক্তারের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। সম্পর্কে তারা উভয় মামা-ফুফাতো ভাই বোন। সম্পর্ক দীর্ঘ বছর চললে এক পর্যায়ে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তোলে প্রেমিক।

সম্প্রতি প্রেমিক সোহাগ তার প্রেমিকাকে সোনিয়াকে বিয়ে করবেনা বলে জানালে বিয়ের দাবীতে গত বুধবার থেকে অনশন শুরু করেন সোনিয়া। পরে স্থানীয়দের চাপে রবিবার রাতে উপজেলার বিলবিলাস বাজার মসজিদে বসে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান, মেম্বারসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিদের উপস্থিতিতে সাড়ে তিন লাখ টাকা কাবিনে তাদের বিয়ে হয়। ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন মদনপুরা ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফা।

বিয়ের দিন রাতে সোহাগ হাওলাদার তার স্ত্রী সানিয়া আক্তারকে নিয়ে তাদের বাড়িতে গেলে সোহাগের মা রওশন আরা বেগম ও তার তার বোন বিউটি সানিয়াকে ঘরে ডুকতে বাধা দেয়।

একপর্যায়ে মারধর করে ওই রাতেই তাকে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেয়। সানিয়া বর্তমানে প্রতিবেশী এ ব্যক্তির ঘরে আশ্রয় নিয়েছেন। এ ঘটনার পর সানিয়ার স্বামী সোহাগ ও শ্বশুর সোবাহান হাওলাদার গা ঢাকা দিয়েছেন।

এ ব্যাপারে সোহাগের মা রওশ আরা বেগম বলেন, ‘আমি সানিয়াকে কোন দিনই পুত্রবধূ হিসাবে মেনে নিবো না। ছেলে বিয়ে করলে ছেলে নিয়ে থাকুক।’

এন এ / ১১ মার্চ

পটুয়াখালী

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে