Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ , ৫ আশ্বিন ১৪২৬

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৩-০৮-২০১৯

নারীদের অনুকরণীয় অধ্যক্ষ শাফিয়া খাতুন

ছোটন সাহা


নারীদের অনুকরণীয় অধ্যক্ষ শাফিয়া খাতুন

ভোলা, ০৮ মার্চ- জীবন যুদ্ধে এক সংগ্রামী নারীর নাম শাফিয়া খাতুন। ভোলা আবদুর রব স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ তিনি। শিক্ষা জীবন থেকেই নিজেকে তিলে তিলে তৈরি করে এখন একজন প্রতিষ্ঠিত নারী। সামাজিক, রাজনৈতিক এবং সাংস্কৃতিক সংগঠনের সঙ্গে যুক্ত থেকে দিন-রাত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন।

দ্বীপজেলা ভোলার নারী শিক্ষা, নারীদের অধিকার নিশ্চিতকরণ এবং সমাজ উন্নয়নে অসামান্য অবদান রয়েছে তার। গত তিন যুগের বেশি সময় ধরে সামাজিক কার্যক্রমের সঙ্গে যুক্ত থেকে বেশ সুনাম অর্জন করেছেন তিনি। রাজনৈতিক অঙ্গনেও রয়েছে তার ব্যাপক পদচারণা।

বর্তমানে ভোলা শহরের ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ভোলা আবদুর রব স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ, জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। একই সঙ্গে তিনি জেলা আওয়ামী লীগের মহিলা সম্পাদিকা, লেডিস ক্লাব ও মহিলা ক্রীড়া সংস্থার সহ সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন। 

এছাড়াও জেলা মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ও বাংলাদেশ স্কাউটস ভোলা জেলার সহ সভাপতি। শিক্ষার মানোন্নয়নে তিনি দেশের বাইরেও প্রশিক্ষণ নিয়েছেন।     

ভোলা শহরের পৌর চরজংলা এলাকার ঐতিহ্যবাহী একটি পরিবারের সন্তান শাফিয়া খাতুন। তার বাবা মৃত আজিজুল হক। তিনি ভোলার পীর কুতুবুল এরশাদ মৌলভী সুফী হাবিবুর রহমানের (র:) নাতিন। পরিবারে তিন ভাই  দুই বোনের মধ্যে শাফিয়া খাতুন চতুর্থ। তাদের পরিবারের সবাই গ্রাজুয়েশন ডিগ্রিধারী।

শিক্ষা জীবনে বেশ মেধাবী ছিলেন শাফিয়া খাতুন। সাফল্যের সঙ্গে তিনি ডিগ্রি, মাস্টার্স, ও এমএড অর্জন করেন। তার স্বামী অ্যাডভোকেট সৈয়দ আশ্রাফ হোসেন লাভু ভোলা বারের পিপি। তার দুই মেয়ে ও দুই ছেলের সবাই শিক্ষিত। বড় মেয়ে আশা নাজনিন পরিবেশ বিষয়ক আন্তজার্তিক কনসালটেন্ট হিসেবে অস্ট্রেলিয়াতে কর্মরত এবং ছোট মেয়ে ডেন্টাল সার্জন। বর্তমানে জাপানে স্কলারশিপে রয়েছেন। বড় ছেলে সৈয়দ আশিক টিভি নাট্যকার, গ্রন্থাকার এবং জনপ্রিয় উপস্থাপক। একই সঙ্গে তিনি সাবেক কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সহ সভাপতি ছিলেন। ছোট ছেলে কৌশিক বিকেএসপির ক্রিকেটার ছিলেন।

শাফিয়া খাতুন ১৯৯১ সাল থেকে শিক্ষাকতা করে আসছেন। এছাড়াও তিনি ১৯৯৭ সাল থেকে রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত হন। জীবনের প্রতিটি ধাপে তিনি সফলতা অর্জন করেছেন। যা নারীদের কাছে এক অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত।

সফলতার বিষয়ে কথা হয় অধ্যক্ষ শাফিয়া খাতুনের সঙ্গে তিনি বলেন, রাজনৈতিক অঙ্গনে ভোলা-১ আসনের সংসদ সদস্য সাবেক বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ আমার অভিভাবক এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমার অনুপ্রেরণা।

তিনি আরো বলেন, আমি পুরস্কারের জন্য কাজ করিনা, কাজ করছি দেশ-সমাজ এবং নারীদের অগ্রযাত্রার জন্য। কোনো নারী যেন গৃহবন্দি হয়ে না থাকে সেজন্য নারীদের অংশগ্রহণ ও অধিকার নিশ্চিতে প্রতিনিয়ত ছুটে চলেছি। ভবিষ্যতেও যেন সমাজের উন্নয়ন এবং নারীদের অধিকার নিশ্চিতে কাজ করতে পারেন সে জন্য সবার দোয়া চেয়েছেন।

উল্লেখ্য অধ্যক্ষ শাফিয়া খাতুনকে গত ৯ ডিসেম্বর আন্তর্জাতিক নারী নির্যাতন পক্ষ ও বেগম রোকেয়া দিবস উপলক্ষে জেলার ৮ জয়িতা নারীর মধ্যে একজন জয়িতা হিসেবে সংবর্ধিত হয়েছেন। 

এর আগেও তিনি জঙ্গি, সন্ত্রাস, মাদক ও  যৌন হয়রানি প্রতিরোধে বিশেষ ভূমিকা রাখায় আইজিপি পদক এবং জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহে শ্রেষ্ঠ প্রতিষ্ঠান প্রধান হিসেবে পুরস্কার পেয়েছেন।

এমএ/ ১০:২২/ ০৮ মার্চ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে