Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, রবিবার, ২৫ আগস্ট, ২০১৯ , ১০ ভাদ্র ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.0/5 (5 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৩-০৪-২০১৯

বন্ধ হওয়া পাক-ভারত ট্রেন চলাচল শুরু

বন্ধ হওয়া পাক-ভারত ট্রেন চলাচল শুরু

লাহোর, ০৪ মার্চ- পাক-ভারত উত্তেজনার মধ্যে দেশ দুটির মধ্যে চলমান বন্ধুত্বপূর্ণ সমঝোতা এক্সপ্রেস নিরাপত্তার অজুহাতে বন্ধ করে দেয় পাকিস্তান। পরে ভারতীয় বন্দি পাইলট অভিনন্দনকে ফেরতের মধ্যে দিয়ে উত্তেজনা কিছুটা প্রশমিত হয়। সোমবার পাকিস্তান থেকে ভারতের উদ্দেশ্যে সমঝোতা ট্রেন ছেড়ে যায়। খবর এএফপি।

সোমবার পাকিস্তান-ভারত সমঝোতা ট্রেন ফের চলাচল শুরু হয়েছে। এএফপি জানায় পাকিস্তানের লাহোর থেকে ভারতে উদ্দেশ্যে সমঝোতা ট্রেন ছেড়ে যাওয়া এমন একটি ছবি প্রকাশ করেছে এএফপি। এতে দেখা যায়, এক যাত্রীকে বিদায় জানাচ্ছেন তার স্বজনরা। এ সময় পাকিস্তানি নিরাপত্তাকর্মীদের সতর্ক অবস্থায় দেখা যায়।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার সকাল ৮টায় পাকিস্তানের লাহোর থেকে পাঞ্জাবের অমৃতসারের উদ্দেশে ছাড়ার কথা ছিল সমঝোতা এক্সপ্রেসের। কিন্তু কাশ্মীর নিয়ে উত্তেজনায় ট্রেনটি বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে পাকিস্তান। পরে ভারতও পাকিস্তানগামী ট্রেন বন্ধ করে দেয়। ফলে দুই দেশে আটকা পড়ে ট্রেন যাত্রীরা।

ওই সময় পাকিস্তান রেলওয়ে কর্তৃপক্ষকে উদ্ধৃত করে দেশটির গণমাধ্যম ডন জানিয়েছে, পরবর্তী নির্দেশ না আসা পর্যন্ত সমঝোতা এক্সপ্রেস চলাচল বন্ধ থাকবে।

পাকিস্তানের রেলওয়ের অতিরিক্ত সাধারণ ব্যবস্থাপককে উদ্ধৃত করে ইন্ডিয়া টুডের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, নিরাপত্তা নিয়ে দুই দেশের মধ্যে উত্তেজনার মধ্যে যাতে কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে, সে জন্য ট্রেন সার্ভিস বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে পাকিস্তানের রেল মন্ত্রণালয়।

এর আগে বুধবার ভারতের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছিল, যুদ্ধাবস্থা বিরাজ করলেও দুই দেশের ট্রেন যোগাযোগ অব্যাহত থাকবে। ভারত থেকে ট্রেন নির্ধারিত সময়েই ছাড়বে।

ভারতের উত্তরাঞ্চলীয় রেল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, বুধবার রাত ১১টা ২০ মিনিটে দিল্লি থেকে আটারিগামী সমঝোতা এক্সপ্রেসে চড়ে ভারত ছেড়েছেন ২৭ যাত্রী। তাদের মধ্যে তিনজন পাকিস্তান ও ২৪ জন ভারতীয় নাগরিক রয়েছেন।

সমঝোতা এক্সপ্রেস ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে চলা একটি ট্রেন সার্ভিস। দুই সপ্তাহ পরপর সোমবার ও বৃহস্পতিবার চলে ট্রেনটি।

প্রসঙ্গত গত ১৪ ফেব্রুয়ারি ভারতনিয়ন্ত্রিত জম্মু-কাশ্মীরের পুলওয়ামায় দেশটির আধাসামরিক বাহিনীর গাড়িবহর হামলায় অন্তত ৪৪ সেনা নিহত হন। এই আত্মঘাতী হামলার দায় স্বীকার করেছে পাকিস্তানভিত্তিক জঙ্গি সংগঠন জইশ-ই-মোহাম্মদ। ভারত এ হামলার পেছনে পাকিস্তানের মদদ রয়েছে বলে দাবি করে আসছে।

এ হামলার জেরে গত মঙ্গলবার কাশ্মীরের নিয়ন্ত্রণরেখা পেরিয়ে পাকিস্তানের বালাকোটে বিমান হামলা চালায় ভারতীয় বাহিনী। হামলায় ২০০ থেকে ৩০০ জঙ্গি নিহত হয় বলে দাবি করেছে দেশটি।

এখানেই থেমে নেই, গত বুধবার পাকিস্তান সীমান্তে ভারতীয় দুই যুদ্ধবিমানকে ভূপাতিত করেন পাকিস্তানি সেনারা। জবাবে ভারত পাকিস্তানের দুটি যুদ্ধবিমানকে ভূপাতিত করে। এ সময় ভারতীয় এক পাইলটকে আটক করে পাকিস্তান। পরে শান্তির শুভেচ্ছাদূত হিসেবে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বন্দি পাইলটকে ভারতের কাছে হস্তান্তর করে।

এমএ/ ১১:০০/ ০৪ মার্চ

দক্ষিণ এশিয়া

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে