Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শুক্রবার, ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৯ , ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.6/5 (13 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ১১-২৫-২০১১

কিষাণজির খুনের প্রতিবাদে শনিবার ও রোববার পশ্চিমবঙ্গে হরতাল

কিষাণজির খুনের প্রতিবাদে শনিবার ও রোববার পশ্চিমবঙ্গে হরতাল
কিষাণজির খুনের প্রতিবাদে আগামীকাল শনিবার ও পরশু রোববার দু'দিনের হরতাল দিয়েছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মাওবাদী শাখা। শুক্রবার দুপুরে সংগঠনটির রাজ্য সম্পাদক আকাশ স্থানীয় মিডিয়ায় এই খুনের প্রতিবাদে এক বিবৃতি পাঠান।
 
বিবৃতিতে বলা হয়, এই ঘটনায় আগামী এক সপ্তাহ জুড়ে রাজ্যের সবজায়গায় বিক্ষোভও দেখাবে সিপিআই মাওবাদীরা।
 
এদিকে মামলার হুমকি দিলেন প্রখ্যাত লেখক ভারভারা রাও। অন্যদিকে ভূয়া সংঘর্ষে কিষাণজিকে হত্যা করার অভিযোগ করেছে তার পরিবার।
 
কটেশ্বর রাও ওরফে কিষাণজির মৃত্যু দিয়ে আদালতের মামলা করতে যাচ্ছে তাঁর পরিবার। শুক্রবার সকালে অন্ধপ্রদেশে অবস্থিত এই শীর্ষস্থনী গেরিলা মাও নেতার পরিবারের পক্ষ থেকে দীপা রাও কলকাতার সাংবাদিকদের এমন তথ্য জানান।
 
দীপার দাবি, তার কাকাকে (কিষাণজি) ভুয়া ইনকাউন্টারের মারা হয়েছে। সম্পর্কে দীপা কিষাণজির আপন ভাইজি।
 
দীপার দাবি, যৌথবাহিণীর এই হামলার ঘটনায় দেশে মানবাধিকার চরমভাবে লঙ্ঘিত হয়েছে। তাই তিনি দেশটির বিচার ব্যবস্থার দারস্ত হবেন তারা।
 
শুধু কিষাণজির পরিবার নয়। ভারতের শীর্ষ স্থানীয় লেখক ভারভারা রাও মুত্যর সুষ্ঠু তদন্ত দাবি করেন। তারও বিশ্বাস, যৌথবাহিনী কিষাণজিকে গুলি করে খুন করেছে। এই ঘটনায় জনমত তৈরির উদ্যোগ নেবেন বলেও ঘোষণা করেন। প্রয়োজনে মানবাধিকার কমিশনের দরজায় কড়া নাড়তেও প্রস্ত্তত ভারভারা রাও পশ্চিমবঙ্গের সুশীল সমাজকে এগিয়ে আশার আহবান জানান।
 
এদিকে বৃহস্পতিবার রাতে উদ্ধার হওয়া কিষাণজির দেহ আজ শুক্রবার ময়না তদন্ত করা হবে পশ্চিম মেদেনীপুর জেলা হাসপাতালে। কিষাণজির ভাইজি দীপা রাও মৃতদেহটি গ্রহণ করবেন বলেও জানা যাচ্ছে।
 
অন্যদিকে আজ দুপুরের পশ্চিমবঙ্গের রাজ্য সরকারের সচিবালয় মহাকরণের সামনে গণতান্ত্রিক অধিকার রক্ষা সমিতি বা এপিডিআর নামের একটি সেচ্ছাসেবী সংগঠন কিষাণজির মৃত্যুর প্রতিবাদ ছাড়াও জঙ্গলমহলে যৌথবাহিনীর প্রত্যাহারের দাবিতে বিক্ষোভ করার ঘোষণা দিয়েছে। এই হুমকিতে কলকাতায় নজিরবিহীন নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়েছে প্রশাসন।
 
উলে?খ্য, এই সংগঠনটির গত ২৩ এবং ২৪ নভেম্বর যৌথবাহিনীর প্রত্যাহারের দাবিতে কলকাতায় একটি প্রতিবাদসভা করতে চেয়েও প্রশাসন অনুমোদন করেনি। এরই প্রতিবাদে সাংবাদিক সম্মেলনে উপস্থিত হয়ে ভারতের শীর্ষস্থানীয় সাহিত্যিক মহাশ্বেতা দেবী তৃণমূল কংগ্রেস সরকারকে 'ফ্যাসিজম' করার অভিযোগে অভিযুক্ত করেন।
 
মহাশ্বেতা দেবী পশ্চিমবঙ্গের বর্তমান ক্ষমতাসীন তৃণমূল কংগ্রেস সরকারের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির রাজনৈতিক পরামর্শদাতা হিসাবেই পরিচিত ছিলেন। ফ্যাসিজম কথা উচ্চারণ করায় মমতার পাল্টা কলকাতার এক শ্রেণীর বুদ্ধিজীবীদের মাওবাদীদের মুখোশ বলে মন্তব্য করেন। সরকার গঠন হওয়ার মাত্র ছয় মাসের মধ্যেই মমতার সঙ্গে এই ইস্যুতে তার দূরত্ব তৈরি হয়।

এশিয়া

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে