Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ , ১ আশ্বিন ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.0/5 (10 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০২-২৩-২০১৯

এবারের অস্কারের আদ্যোপান্ত

এবারের অস্কারের আদ্যোপান্ত

লস অ্যাঞ্জেলস, ২৩ ফেব্রুয়ারি- চলচ্চিত্রপ্রেমীদের জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ একটি অনুষ্ঠান একাডেমি অ্যাওয়ার্ডের বা অস্কার। আগামীকাল ২৪ ফেব্রুয়ারি রাতে (বাংলাদেশ সময় অনুযায়ী ২৫ ফেব্রুয়ারি ভোরে) যুক্তরাষ্ট্রের লস অ্যাঞ্জেলসের ডলবি থিয়েটারে বসবে ৯১তম একাডেমি অ্যাওয়ার্ডের চূড়ান্ত আসর।

যারা নিমন্ত্রিত হয়েছেন, তাদের কথা তো আলাদা করে বলার দরকার নেই। তারা তো নিশ্চয়ই চলে যাবেন ডলবি থিয়েটারে। তবে যারা যেতে পারবেন না, তাদের জন্য রয়েছে টেলিভিশন। প্রতি বছরের মতো এবারও টিভি পর্দায় সরাসরি সম্প্রচার করা হবে অস্কার অনুষ্ঠানটি।

কোন চ্যানেলে দেখা যাবে?

আমেরিকার দর্শকরা ‘এবিসি’তে উপভোগ করতে পারবেন অনুষ্ঠানটি। ১৯৭৬ সাল থেকে ‘এবিসি’ই এই অনুষ্ঠান সম্প্রচার করে আসছে। এছাড়াও বিভিন্ন চ্যানেলের মাধ্যমে বিশ্বের ২২৫টির বেশি দেশের দর্শকরা অস্কার অনুষ্ঠানটি সরাসরি দেখতে পারবেন। বাংলাদেশের দর্শকরা অস্কার দেখতে পারবেন ভারতীয় চ্যানেল স্টার মুভিজে। বাংলাদেশ সময়  সোমবার ভোর সাড়ে ৫টা থেকে দেখা যাবে অনুষ্ঠানটি।  ভোর ৫ টা থেকে লাল গালিচায় তারকারা উপস্থিত থাকবে। ভোর ৭ টায় শুরু হবে মূল অনুষ্ঠান। 

অস্কারের সিদ্ধান্তের বিপক্ষে লিখিত অভিযোগ:

অস্কার শুরু হওয়ার আগে সবচেয়ে আলোচিত বিষয় ছিল এটি। এ অনুষ্ঠানে অবজ্ঞা করা হলো বিশেষ কয়েকটি বিভাগে। তিনঘন্টার এ অনুষ্ঠানের চারটি পুরস্কার দেওয়া হবে বিজ্ঞাপন বিরতীর সময়। যার ফলে সেসব বিজয়ীদের দেখতে পারবে না টেলিভিশন দর্শকরা। সিনেমাটোগ্রাফি, ফিল্ম এডিটিং, লাইভ অ্যাকশন এবং মেকআপ অ্যান্ড হেয়ারস্টাইলিং-এ সেরাদের হাতে পুরস্কার তুলে দেয়া হবে বিজ্ঞাপন বিরতীতে। তাই জয়ীদের বক্তব্যও দেখতে পাবেন না টিভি পর্দার দর্শকরা।

এই সিদ্ধান্তের বিপক্ষে হলিউডের প্রথম সারির অভিনেতারা লিখিত প্রতিবাদ জানিয়েছেন। তার মধ্যে ছিলেন-জর্জ ক্লুনি, ব্র্যাড পিট এবং ক্রিস্টোফার নোলান এর মতো প্রথম সারির অভিনেতারা। তবে সিদ্ধান্ত থেকে অস্কার কমিটি সরে আসেনি। তারা জানিয়েছেন, প্রতি বছর এই ক্যাটাগরি বদলানো হবে। এবারের চার ক্যাটাগরির বদলে ২০২০ সালে ভিন্ন চার ক্যাটাগরি নির্বাচন করা হবে বিজ্ঞাপন বিরতিতে পুরস্কার প্রদান করার জন্য।’

তারা এও জানিয়েছেন, যারা এই পুরস্কার পাবেন। তাদের কাউকে ছোট করে দেখা হচ্ছে না। বাণিজ্যিক কারণেই এমনটা করা।

অস্কারের খরচ ও উপহার সামগ্রী:

গ্ল্যামারস এই অনুষ্ঠানের জন্য বিপুল পরিমাণ ডলার খরচ করা হবে। তবে ঠিক কত খরচ করা হবে? জয়ীরাও পাবেন অর্থ।

পুরো অনুষ্ঠানে খরচ হবে ৪৪ মিলিয়ন ডলার। ২৪ ক্যারেট গোল্ড দিয়ে তৈরি প্রতিটি অস্কার মূর্তি তৈরিতে খরচ হয় ৪০০ ডলার। সেরা ছবির পুরস্কার জেতার পর বক্স অফিসে ছবিটির আয় বেড়ে যায় গড়ে পনের মিলিয়ন ডলার। অস্কারের অনুষ্ঠানে যে উপহারের ব্যাগ দেয়া হয় সেটাতে ১৫০০০০ ডলার মূল্যের উপহার থাকে। ২০১৮ সালে উপহার ব্যাগের সবচাইতে দামি উপহার ছিল তানজানিয়ায় লাক্সারি ট্রিপ। ট্রিপটির মূল্য ছিল ৪০০০০ ডলার। সেরা অভিনেতা/অভিনেত্রী তার পরের ছবিতে ২০শতাংশ বেশী পারিশ্রমিক পান। প্রথম সারির নায়িকাদের সাজানোর পেছনে খরচ হয় ১০ মিলিয়ন ডলার।

অস্কারের ভ্যানিটি ফেয়ার পার্টিতে অংশ নিতে একটি জুটির খরচ হয় ১০৩২২০ ডলার। অস্কারের সরাসরি সম্প্রচারের মাঝে ৩০ সেকেন্ড এর বিজ্ঞাপন দেয়ার জন্য গুণতে হয় ২.৬ মিলিয়ন ডলার। ১৬৫০০ বর্গফুট লাল গালিচা তৈরির খরচ ২৪৭০০ ডলার।

এমএ/ ০৯:৩৩/ ২৩ ফেব্রুয়ারি

হলিউড

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে