Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই, ২০১৯ , ২ শ্রাবণ ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.0/5 (5 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০২-১৫-২০১৯

সংস্কৃতি ধ্বংস হচ্ছে তাই বন্ধ হতে পারে টিকটক!

সংস্কৃতি ধ্বংস হচ্ছে তাই বন্ধ হতে পারে টিকটক!

ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপের মতো অতি অল্প সময়ে জনপ্রিয়তার শীর্ষে উঠে এসেছে টিকটক অ্যাপ। এর মাধ্যমে বিভিন্ন গান, বিখ্যাত সিনেমার ডায়লগসহ নানা রকম মজাদার অডিও-র সঙ্গে ঠোঁট মিলিয়ে ছোট ভিডিও তৈরি করে আপলোড করা যায়। সোশ্যাল মিডিয়ায় এখন টিকটক-এর রমরমা।

শুধু কি সাধারণ মানুষ, এই ভিডিও অ্যাপসে মজেছেন তারকারাও। কিন্তু এত জনপ্রিয়তা সত্ত্বেও অ্যাপটি ঘিরে তৈরি হয়েছে বিতর্ক। অনেকেই এরই মধ্যে প্রশ্ন তুলেছেন,  এই অ্যাপসের কারণে ধ্বংস শুদ্ধ সংস্কৃতি। এবার এই অ্যাপের বিরুদ্ধে আওয়াজ তুলেছেন অনেকেই। আমাদের দেশে নয়, এমনটি হতে চলছে আমাদের পাশের দেশ ভারতে।

সম্প্রতি কয়েকজন আইনজীবী এই অ্যাপসের উপর নিষেধাজ্ঞা জারির আবেদনও করেছেন। তাদের দাবি, এসব ভিডিও সমাজে অপসংস্কৃতি ছড়াচ্ছে। অল্প বয়সের ছেলে-মেয়েরা টিকটকে আসক্ত হয়ে পড়ছেন এবং সারাদিন মোবাইলের দিকে তাকিয়েই সময় পার করে দিচ্ছেন।

আইনজীবীদের আবেদনে একমত হয়ে তামিলনাড়ুর তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী এম মণিকন্দন মঙ্গলবার বিধান সভায় জানান, সে রাজ্যে টিকটক নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত নেয়া হতে পারে।

এর আগে অ্যাপসটি বন্ধ করা নিয়ে সরব হয়েছিলেন তামিলনাড়ুর বিধায়ক থামিমুন আনসারি। তিনি বলেন, এই অ্যাপসে কোনো ভালো কাজে তো লাগেই না। উল্টো নতুন প্রজন্মের ক্ষতি করছে। টিকটক-এ এমন কিছু ভিডিও রয়েছে যা যৌন উদ্দীপনা তৈরি করছে। ফলে সমাজে ক্রমেই ছড়িয়ে পড়ছে অপসংস্কৃতি।

তার কথায় সুর মিলিয়ে তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী এম মণিকন্দন বলেন, এ বিষয়ে কেন্দ্রের সঙ্গেও কথা বলবেন তিনি। এ দেশ থেকেই যাতে টিকটক-কে মুছে ফেলা যায়, সেই ব্যবস্থাই নিতে চাইছে তামিলনাড়ু সরকার।

প্রসঙ্গত, বর্তমানে মোবাইল ফোনের সবচেয়ে জনপ্রিয় অ্যাপস টিকটক। ২০১৮ সালে সবচেয়ে বেশি ডাউনলোড করা অ্যাপগুলোর মধ্যেও এটা অন্যতম।

আর/১২:১৪/১৫ ফেব্রুয়ারি

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে