Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 3.0/5 (10 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print

আপডেট : ০২-১১-২০১৯

‘গানের রাজা’ রিয়েলিটিতে অনিয়ম, বিচারকের আসন ছাড়লেন কোনাল

‘গানের রাজা’ রিয়েলিটিতে অনিয়ম, বিচারকের আসন ছাড়লেন কোনাল

ঢাকা, ১১ ফেব্রুয়ারি- চ্যানেল আইয়ে শিশুদের রিয়েলিটি শো ‘গানের রাজা’ রিয়েলিটি শোতে অনিয়মের অভিযোগে বিচারকের আসন থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন তরুণ কণ্ঠশিল্পী সোমনুর মনির কোনাল।

বিচারের রায় উপেক্ষা ও শিশুদের গান নির্বাচনে পক্ষপাতিত্বের অভিযোগে এই অনুষ্ঠান থেকে সরে যান তিনি। ফলে ‘গানের রাজা’র পরের পর্বগুলোয় আর দেখা যাবে না কোনালকে।

এ বিষয়ে কোনাল বলেন, ‘এই অনুষ্ঠানে স্বাভাবিকভাবে বিচারকাজ চালানো যাচ্ছিল না। অনুষ্ঠান টিম শুরু থেকেই এ কাজে নানা প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করেছে। শুরুতে ছোটখাটো অনেক ব্যাপার মেনে নিয়েছি। পরে দেখলাম শিশুদের গান বাছাই করার ক্ষেত্রে অনিয়ম করছেন তারা। দেখা গেছে, বিচারকাজে তারা যে সিদ্ধান্ত দিচ্ছেন, সেটাও মেনে নিতে হচ্ছে। তাহলে আর বিচারক থেকে লাভ কী?’

অনিয়মের বিষয়ে কোনাল বলেন, ‘মারাত্মক অনিয়ম হচ্ছে সেখানে। আমাদের সময়ে ৪০ শতাংশ ভোট দিতেন দর্শক। এখানে সেই সুযোগ নেই। এখন সবকিছু নির্ধারণ করেন প্রযোজক। একজন বিচারক বা দর্শক কখনো সঠিক সিদ্ধান্ত দিতে পারেন না।’

অনিয়মের অভিযোগ জানিয়েছেন ‘গানের রাজা’র রিয়েলিটির শীর্ষ ছয় থেকে বাদ পড়েছেন খুলনা বিভাগের প্রতিযোগী সালভিয়া আফরোজ জয়ী।

তার অভিভাবক জানান, চক্রান্ত করে তার মেয়েকে বাদ দেওয়া হয়েছে। যে গান যে প্রতিযোগী ভালো পারে, তাকে সেই গান দেওয়া হয়েছে। যাকে বাদ দেওয়া হবে, তাকে দেওয়া হয়েছে একেবারে অচেনা একটি গান। শিশুদের জন্য অচেনা গান করা সহজ কাজ নয়।

জয়ীর মা লায়লা পারভীন বলেন, আমার মেয়ে সব ধরনের গানে পারদর্শী। খুলনার অন্য প্রতিযোগীদের থেকে সে ভালো নম্বর পেয়ে সেরা ছয়ে জায়গা করে নেয়। চক্রান্ত করে তাকে বাদ দেওয়া হয়েছে। চ্যানেল আই ও অনুষ্ঠানটির সঙ্গে জড়িত এক কর্মী আমাকে বলেছেন, কাকে কাকে রাখা হবে, তা আগেই ঠিক করা হয়।

তিনি বলেন, বিভাগীয় পর্যায়ে আমার মেয়ের থেকে কম নম্বর পাওয়া প্রতিযোগী কীভাবে এগিয়ে যায়? আমার অভিযোগ মিথ্যা কি না, সেটা প্রমাণের সুযোগ দেওয়া হোক।

অনিয়মের অভিযোগ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে ‘গানের রাজা’র পরিচালক তাহের শিপন বলেন, ‘প্রতিযোগিতার বিচারক কোনাল ও ইমরানের নম্বরের ভিত্তিতেই প্রতিযোগীদের বিচার করা হয়েছে। তাদের সই করা নম্বরপত্র আমাদের কাছে আছে। চাইলে আমরা সেটা দেখাতেও পারব।’

এ ব্যাপারে বিস্তারিত বলতে পারবেন ইসমত আরা ইতি বলেও জানান তিনি।

‘গানের রাজা’র নির্বাহী প্রযোজক ইসমত আরা ইতি বলেন, ‘এটি একটি প্রতিযোগিতা। এখান থেকে স্বাভাবিক নিয়মে আমাদের কিছু প্রতিযোগীকে বাদ দিতে হয়। বিচারকরা যে নম্বর দিয়েছেন, তার ভিত্তিতেই ওই প্রতিযোগীকে বাদ দেয়া হয়েছে।’

এই অনুষ্ঠান থেকে কোনালেররে দাঁড়ানোর বিষয়ে তিনি বলেন, ‘পারস্পরিক বোঝাপড়ার কিছু বিষয় থাকে। সে রকম একটা ঘটনার জেরে তিনি চলে গেছেন।’

প্রসঙ্গত, গত বছরের ১ সেপ্টেম্বর আনুষ্ঠানিকভাবে ‘গানের রাজা’ প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করা হয়। সে সময় উপস্থিত ছিলেন ইমপ্রেস টেলিফিল্ম লিমিটেড ও চ্যানেল আইয়ের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফরিদুর রেজা সাগর ও পৃষ্ঠপোষক প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তারা।

সারা দেশ থেকে নানা প্রক্রিয়ায় গ্রুমিংয়ের মাধ্যমে প্রতিযোগীদের বেছে নেওয়া হয়। অক্টোবর মাস থেকে ঢাকাসহ দেশের সাতটি বিভাগে পৃথক পৃথক অডিশনের মাধ্যমে প্রতিযোগী নির্বাচন করা হয়।

এমএ/ ০৭:০০/ ১১ ফেব্রুয়ারি

সংগীত

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে