Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর, ২০১৯ , ৭ কার্তিক ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.1/5 (9 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০২-১০-২০১৯

প্রাকৃতিকভাবেই ঠোঁট ফাটা সমস্যা সমাধান হবে 

প্রাকৃতিকভাবেই ঠোঁট ফাটা সমস্যা সমাধান হবে 

ঠোঁটের যেকোনো সমস্যা সমাধানে মধু খুব উপকারী। জীবাণুর সংক্রমণ দ্বারা কোনো ইনফেকশন হলে মধু খুব ভালো কাজ করে। ঠোঁটের দুই কোণে ফেটে গেছে অথচ কোনোভাবেই সেরে উঠছে না, এমন হলে আঙুলে একটুখানি মধু নিয়ে আক্রান্ত স্থানে লাগিয়ে রেখে দিন

শুষ্ক মৌসুমে ঠোঁট ফাটা খুব সাধারণ একটি সমস্যা। তবে ঠোঁটের সামনের অংশ ফাটলে প্রয়োজনমতো ময়েশ্চারাইজার দিলেই তা সেরে ওঠে। কিন্তু যখন ঠোঁটের কোণে ফাটা দেখা যায়, তখন তা গভীর হয় ও সেরে উঠতে সময় নেয়। সেক্ষেত্রে চাইলে প্রাকৃতিক উপায়ে যত্ন নিয়েই এ সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে পারেন।

শসার রস

ঠোঁটের কোণে ফেটে গেলে এক টুকরা শসা থেঁতো করে আক্রান্ত স্থানে লাগিয়ে রাখুন। আস্তে আস্তে ম্যাসাজ করতে পারেন। এতে ব্যথা কমবে ও ফাটা স্থান দ্রুত সেরে উঠবে।

নিমপাতার রস

নিমপাতা বেঁটে রস বের করে নিন। এবার ঠোঁটের কোণে যে অংশ ফেটে গেছে, সেখানে লাগান। এতে ব্যাকটেরিয়া দ্রুত নাশ হবে ও ত্বক সেরে উঠবে।

মধু

জীবাণুর সংক্রমণ দ্বারা কোনো ইনফেকশন হলে মধু খুব ভালো কাজ করে। ঠোঁটের দুই কোণে ফেটে গেছে অথচ কোনোভাবেই সেরে উঠছে না, এমন হলে আঙুলে একটুখানি মধু নিয়ে আক্রান্ত স্থানে লাগিয়ে রেখে দিন ১৫ মিনিট। মধু ও শসার রস একসঙ্গে মিশিয়েও লাগানো যায়।

পানি

শীত বা শুষ্ক আবহাওয়া ছাড়াও ঠোঁট ফাটার অন্যতম কারণ পানিশূন্যতা। তাই রোজ পর্যাপ্ত পরিমাণে পানি পান করতে হবে ঠোঁট ফাটা থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য। পানি পান করলে ঠোঁট শুকায় না, মরাকোষ কম জন্মায়, ফলে সহজে ফাটে না। আর ঠোঁট ফেটে গেলে দিনে ১০-১২ গ্লাস পানি পান করতেই হবে।

লিপ বাম ও ময়েশ্চারাইজার

গন্ধহীন লিপ বাম, পেট্রোলিয়াম জেলি বা খাঁটি নারকেল তেল ঠোঁট ফাটা দ্রুত সারিয়ে তুলতে সহায়তা করে। তবে খেয়াল রাখতে হবে ঠোঁটে ব্যবহূত ময়েশ্চারাইজারে যেন কোনো রাসায়নিক উপাদান না থাকে। দিনে যতবার সম্ভব ঠোঁটে এসব উপকরণ লাগাতে হবে। তাহলে কম সময়ে ঠোঁট ফাটা সেরে উঠবে।

অ্যালোভেরা জেল

ঠোঁটের দুই পাশে ফেটে গেলে ক্ষত অনেক গভীর হয়, ফলে খাওয়া ও কথা বলার সময় ব্যথা অনুভূত হয়। এ ব্যথা উপশম ও আরোগ্য লাভের জন্য অ্যালোভেরা জেল লাগান। ভালো ফলাফলের জন্য ফ্রিজে অ্যালোভেরা পাতা রেখে দিন। এরপর ঠাণ্ডা জেল ত্বকে লাগান ১৫-২০ মিনিট । ঠোঁট মুছে অবশ্যই লিপবাম লাগাতে হবে।

প্রাকৃতিক মিশ্রণ

দুই টেবিল চামচ টি ট্রি অয়েল, এক টেবিল চামচ ভিটামিন ই অয়েল ও আধা টেবিল চামচ পেট্রোলিয়াম জেলি একসঙ্গে মিশিয়ে আক্রান্ত স্থানে লাগিয়ে রাখুন। দিনে যতবার সম্ভব এ মিশ্রণ লাগান।

লেবুর রস

ঠোঁট ফাটা সমস্যা সমাধানে খুব ভালো ভূমিকা রাখে লেবুর রস। তাই ঘরে বসেই খুব সহজেই প্রাকৃতিক এ উপাদানের মাধ্যমে ঠোঁট ফাটা সমস্যা সমাধান করতে পারেন।

এমইউ/০৩:১০/১০ ফেব্রুয়ারি

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে