Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, বৃহস্পতিবার, ৯ এপ্রিল, ২০২০ , ২৬ চৈত্র ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.0/5 (6 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৭-২৫-২০১৩

এমপি রনির আচরণ : বিব্রত আওয়ামীলীগ

মো: রাকিবুর রশীদ



	এমপি রনির আচরণ : বিব্রত আওয়ামীলীগ

সরকার দলীয় সংসদ সদস্য গোলাম মাওলা রনির কর্মকান্ড নিয়ে বিব্রত আওয়ামলীগ। বিব্রত দলের হাইকমান্ড। গত কয়েক বছর ধরে তার আচরণ ও কর্মকান্ড নিয়ে দলের নেতাকর্মীরা বিব্রতবোধ করে আসছেন। সর্বশেষ ২০ জুলাই দুই সাংবাদিককে পেটানোর ঘটনায় ভীষণ বিব্রত ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ। বাংলাদেশের একাধিক দৈনিকে ‘গোলাম মওলা রনি আওয়ামী লীগের শনি’ বলে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে। রনির বিরুদ্ধে শিগগির ব্যবস্থা নেওয়া হতে পারে। আর নেওয়াটাই উচিত বলে মনে করছেন সুশিল সমাজের লোকজন।

গোলাম মাওলা রনি পটুয়াখালী-৩ আসনের সংসদ সদস্য। প্রায় প্রতিদিনই বিভিন্ন বেসরকারি টেলিভিশনের টকশো-তে অংশ নেন। সুন্দর ও রসালো কথা বলে দেশের মানুষের যেমন নজর কাড়েন তেমনি বিতর্কেরও জন্ম দেন। দলের বিপক্ষে কথা বলেও বারবার আলোচনায় আসেন তিনি। এ অবস্থায় গত ১৮ এপ্রিল পটুয়াখালী জেলার তৃণমূল নেতা-কর্মীরা গোলাম মওলাকে পটুয়াখালী থেকে মনোনয়ন না দেওয়ার পক্ষে মত দেন। তাঁরা বলেন, গোলাম মওলা রনি দলীয় কোনো কর্মকান্ডে সক্রিয় নন। ঢাকায় অবস্থান করে কেবল তিনি দলের সমালোচনা করেন।
সর্বশেষ গত ২০ জুলাই শনিবার দুপুরে পেশাগত দায়িত্ব¡ পালন করতে গিয়ে ইনডিপেনডেন্ট টেলিভিশনের অনুসন্ধানমূলক অনুষ্ঠান ‘তালাশ’-এর রিপোর্টার ইমতিয়াজ মোমিন ও ভিডিও চিত্রগ্রাহক মহসীন মুকুল হামলার শিকার হন। সাংসদ গোলাম মাওলা ও তাঁর সহযোগীরা ওই দুই সাংবাদিকের উপর হামলা করেন। এ নিয়ে দেশজুড়ে তোলপাড় শুরু হয়। বিব্রতবোধ করেন দলের শীর্ষ নেতারা। দুই সাংবাদিককে পেটানোর ঘটনায় হত্যাচেষ্টা মামলায় জামিন নেন গোলাম মাওলা রনি। ঘটনার পরদিন তিনি মহানগর হাকিম আদালতে সাংসদ রনি আত্মসমর্পণ করে জামিনের আবেদন করেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে মহানগর হাকিম রেজাউল করিম তাঁর জামিন মঞ্জুর করেন। আবার এর দুইদিন পর ২৪ জুলাই আদালত তাকে গ্রেফতারের নির্দেন দেন।  পুলিশ তাকে ওইদিন বাড্ডা এলাকা থেকে গ্রেফতার করে।
রনির নানা কর্মকান্ড নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে ক্ষুব্দ দলের নেতারা। এ বিষয়ে আওয়ামী লীগের সভাপতি মন্ডলীর সদস্য কাজী জাফর উল্লাহ বলেছেন, ‘এই ঘটনায় শুধু আওয়ামী লীগ নয়, পুরো জাতি বিব্রত। এটা গণতন্ত্রের জন্য হুমকি। দলের আরেক সভাপতি মন্ডলীর সদস্য নূহ উল আলম লেনিন বলেন, তাঁর (গোলাম মওলা) ঘটনায় আওয়ামী লীগ ভীষণ বিব্রত। তাঁর অতি কথনে আওয়ামী লীগ অতিষ্ঠ। তাঁর বিষয়টি প্রধানমন্ত্রীর আমলে নিয়ে দলীয় সিদ্ধান্ত নেওয়া উচিত।
রনির ঘটনা প্রসঙ্গে ২২ জুলাই রাজধানীর একটি আলোচনা সভায় সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত সেনগুপ্ত এমপি বলেছেন, গণমাধ্যম ও রাজনীতিবিদের সম্পর্ক অবিভাজ্য ও অবিচ্ছেদ্য। গণমাধ্যমের প্রতি তাঁর (গোলাম মাওলা রনি) এ আচরণ অশোভন ও অনভিপ্রেত।
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মহীউদ্দীন খান আলমগীর ঘটনার তদন্ত করে দায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানিয়েছেন। মোটকথা সরকার ও আওয়ামলীগ এমপি রনিকে নিয়ে বেকায়দায় আছে। তাকে দল থেকে বহিস্কারও করা হতে পারে। তবে আমি মনে করি এমপি রনি হোক আর যেই হোক-শুরুতে লাগাম টেনে না ধরতে ভবিষ্যতে আর ক্ষতির মুখোমুখি হতে আওয়ামীলীগ।

প্যারিস, ফ্রান্স


অভিমত/মতামত

আরও লেখা

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে