Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, রবিবার, ২৬ জানুয়ারি, ২০২০ , ১২ মাঘ ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.2/5 (5 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)


আপডেট : ০৭-২৩-২০১৩

ব্যানার ফেস্টুনেই ময়মনসিংহ বিএনপির রাজনীতি!


	ব্যানার ফেস্টুনেই ময়মনসিংহ বিএনপির রাজনীতি!

ময়মনসিংহ, ২২ জুলাই- বিজ্ঞাপনী রাজনীতিতে নেমেছেন ময়মনসিংহের বিএনপি ও সহযোগী সংগঠনের নেতারা। মামলা বা গ্রেফতার হলেই শহরে ছবি সম্বলিত পোস্টার-বিলবোর্ড, ব্যানার যেন দলটির নেতাদের প্রচারের মুখ্য মাধ্যম হয়ে উঠেছে।

দেখা গেছে, এসব প্রচারে নিজেদের নামের আগে নানা উপমা জুড়ে দিচ্ছেন দলটির নেতারা। বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান, চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ও সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের ছবির চেয়েও নিজেদের ছবি বড় করে পোস্টারে বা ব্যানারে ব্যবহার করছেন। যৎসামান্য লেখা সম্বলিত এ অভিনব বিজ্ঞাপনী ব্যানার, বিলবোর্ডের আড়ালে  ঢাকা পড়েছে ময়মনসিংহ শহরের সৌন্দর্য।

জানা গেছে, ময়মনসিংহ শহরের হরি কিশোর রায় রোডের ময়মনসিংহ দক্ষিণ জেলা বিএনপি কার্যালয় এমনকি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক ছাপিয়ে এখন অলি-গলিতেও শোভা পাচ্ছে বিরোধী দলীয় নেতাকর্মীদের কারামুক্তির দাবি ও ছবি সম্বলিত পোস্টার-ব্যানার-প্যানা ফ্ল্যাক্স ও বিলবোর্ড।

সূত্র মতে, নিজেকে জনসম্মূখে জাহির করার এ রাজনীতিতে এগিয়ে আছে ছাত্রদল, যুবদল ও স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতাকর্মীরা। সংগঠনে কোনো পদ পদবী না থাকলেও দলটির এসব অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের কর্মীদের নামের আগেও নেতা উপাধি জুড়ে দেওয়া হচ্ছে।

এ ধরনের প্রচারণার কারণ সম্পর্কে দলটির মধ্যম সারির এক নেতা বলেন, আগে সাধারণত শীর্ষ পদধারী নেতারা গ্রেফতার হলে পোস্টার করতেন। কিন্তু এখন পাতি নেতারাও এ ধরনের প্রচার থেকে বাদ যাচ্ছেন না। এসবের মাধ্যমে দলের ভেতর চেইন অব কমান্ড শব্দটিও উবে যাচ্ছে।

ছাত্রদল নেতাকর্মীদের অহরহ বিজ্ঞাপনী প্রচারের বিষয়ে ময়মনসিংহ জেলা ছাত্রদলের এক শীর্ষ নেতা বলেন,  নির্ধারিত সময়ের পরেও পূর্ণাঙ্গ কমিটি না হওয়ায় কর্মীদের পদ-পদবী দেওয়া যাচ্ছে না। এ কারণে এমন বিজ্ঞাপনী প্রচারণার মাধ্যমে গ্রেফতার বা মামলা খাওয়া নেতা-কর্মীদের সন্তুষ্ট করতেই এসব পোস্টার বা ব্যানার করে দেওয়া হচ্ছে।

মামলা খেয়ে গ্রেফতার অতপর মুক্তির পরেও বিরোধী দল বিএনপি ও এর অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের অনেক নেতা-পাতিনেতার ছবি সম্বলিত ব্যানার-ফেস্টুন শহরে টানানো রয়েছে। মাস তিনেক আগে মুক্তি পেলেও শহরের নতুন বাজার মোড়ে দক্ষিণ জেলা বিএনপির এক গুরুত্বপূর্ণ নেতার এমন প্রচারে দলের ভেতরে-বাইরেও নানা কথা চাউর হচ্ছে।

সূত্র জানায়, শহরের সৌন্দর্য ফিরিয়ে আনতে সম্প্রতি ক্লিন অ্যান্ড গ্রিন প্রজেক্টের আওতায় ময়মনসিংহ পৌরসভা শহরকে পোস্টার-ব্যানার-ফেস্টুন-বিলবোর্ড মুক্ত করার উদ্যোগ নেওয়া হয়। এতোদিন এ প্রজেক্টের দায়িত্বশীলরা বিরোধী দলের নেতাদের বাড়াবাড়ির মুখে পড়ার আশঙ্কায় এসব ব্যানার-পোস্টার অপসারণে সাহস না করলেও ক’দিন আগে অনেক ব্যানার-ফেস্টুন উঠিয়ে দেওয়া হয়েছে।  

বিরোধী দলের এমন বিজ্ঞাপনী রাজনীতিতে অবশ্য খুশি শহরের প্রেস মালিকরা। শহরের ছোট বাজার এলাকার বাংলা প্রেসের কর্ণধার মাধব সেন বলেন, গত সাড়ে ৪ বছরে বিরোধী দলের নেতাদের পোস্টারের কাজ বেশি করেছি। এতে লাভও হয় বেশ।

বিএনপির এমন বিজ্ঞাপনী রাজনীতি সম্পর্কে ময়মনসিংহ দক্ষিণ জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবু ওয়াহাব আকন্দ বলেন, বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের ওপর সরকারের দুঃসহ নির্যাতনের মধ্যেও দলীয় নেতাকর্মীদের উজ্জীবিত রাখতেই এ ধরনের প্রচারণা চালানো হয়।

ময়মনসিংহ

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে