Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, সোমবার, ১০ আগস্ট, ২০২০ , ২৬ শ্রাবণ ১৪২৭

গড় রেটিং: 2.9/5 (42 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)


আপডেট : ১০-১৭-২০১৮

শরতের স্নিগ্ধতা ফুটিয়ে তুলতে পারেন পোশাকেও

শরতের স্নিগ্ধতা ফুটিয়ে তুলতে পারেন পোশাকেও

বছর ঘুরে আবার এসে গেছে দুর্গা পূজা। মহাসমারোহে চলছে পূজার আয়োজন। কেনাকাটাও প্রায় শেষের দিকে। এবার বাকি শুধু সাজসজ্জা। নিজেকে কীভাবে সাজাবেন পূজার দিনগুলো সেটা ভেবেছেন তো?

শরতের স্নিগ্ধতা ফুটিয়ে তুলতে পারেন পোশাকেও। পূজার সাজ শাড়ি ছাড়া অপূর্ণ থেকে যায়। তাই সকালের সাজে সাদা কিংবা অন্য যে কোনো প্যাস্টেল শেড বেছে নিতে পারেন। এক্ষেত্রে সুতি অথবা জামদানি শাড়িতেই বেশি আরাম পাওয়া যাবে। রাতের জন্য বেছে নিতে পারেন হাফ-সিল্ক, সিল্ক বা কাতান। রাতের পোশাকের রঙটা কিন্তু উজ্জ্বল হওয়া চাই। গাঢ় নীল, মেরুন, লাল, কফি, বেগুনী, কমলা ইত্যাদি রঙ বেছে নিতে পারেন রাতের জন্য। তবে দশমীর জন্য লাল পাড়ের সাদা শাড়িতে নিজেকে ট্র্যাডিশনাল সাজে সাজিয়ে তুলতে পারেন। শাড়িটা জরি পাড়ের হলে আরও জমকালো দেখাবে। যারা শাড়িতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন না তারা বৈচিত্র্যময় কাটের টপস কিংবা গাউন বেছে নিতে পারেন।

পোশাকের সঙ্গে মেকআপটাও মানানসই হওয়া চাই। দিনের সাজটা হালকা রাখুন। ভারী ফাউন্ডেশন ব্যবহার না করাই ভালো দিনের বেলা। গরমে মেকআপ নষ্ট হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে এতে। তাই হালকা পাউডার বেজড মেকআপ ব্যবহার করুন দিনে। কন্ট্যুরিং করতে ভুলে গেলে চলবে না। চোখের মেকআপ হালকা রেখে লিপস্টিকটা একটু উজ্জ্বল শেডের ব্যবহার করতে পারেন। সকালের মেকআপে হাইলাইটার কিংবা ব্লাশন ব্যবহারের প্রয়োজন নেই। তবে রাতের সাজে ফাউন্ডেশন দিয়ে বেজ মেকআপ করুন। চোখের মেকআপটাও একটু জমকালো হওয়া চাই। সাথে অবশ্যই হাইলাইটার ও ব্লাশন থাকবে। পূজার সাজে টিপ দিতে ভুলে গেলে কিন্তু চলবে না।

সাজের সঙ্গে গহনা না পরলে চলে? পূজার সাজে দিনের মেলা শাড়ির সঙ্গে লম্বা চেইন বা মালা পরতে পারেন। গলায় হালকা গহনা পরলে কানে ছোট ঝুমকা মানিয়ে যাবে। সাথে কাঁচের চুড়ি পরলে দারুণ লাগবে দেখতে। আর রাতের সাজে একটু জমকালো গহনা পরুন। গলায় চিক পরলে স্টাইলিশ দেখাবে। হাত ভরে মেটালের চুড়ি পরতে পারেন। এতে সাজে আভিজাত্য ফুটে উঠবে। নানান ডিজাইনের নথ পাওয়া যায় এখন। দশমীর দিন নাকে একটি নথ পরে ফেলতে পারেন। সাজে বৈচিত্র্য আসবে এবং প্রশংসাও পাবেন।

পূজার পোশাকের সঙ্গে জুতা বাছাই করার সময় আরামের কথাও ভাবতে হবে। পূজা মণ্ডপে যাওয়ার জন্য যদি অনেকটা হাটার প্রয়োজন হয়, তাহলে হিল এড়িয়ে যাওয়াই ভালো। রাতের দাওয়াতে যাওয়ার জন্য বেছে নিতে পারেন মানানসই হিল জুতা।

তথ্যসূত্র: আরটিভি অনলাইন
এমইউ/১২:৪০/১৭ অক্টোবর

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে