Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 3.0/5 (63 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৭-০৯-২০১৮

একুশের গল্প একাত্তরের গল্প

পৃথ্বী হাসান


একুশের গল্প একাত্তরের গল্প

বায়ান্নর তথা একুশের ভাষা আন্দোলন অনিষ্ট এ বাঁধভাঙার কাজ ভালোভাবে সম্পন্ন করেছিল। সাহিত্য ও সংস্কৃতিচর্চায় রেখেছিল অভাবিত প্রভাব। যেখানে আধুনিকতা, জাতীয় চেতনা, প্রগতিবাদ ও লোক-সংস্কৃতির পরিশীলিত প্রকাশ ভিন্নমাত্রার প্রকাশ ঘটায়। একুশোত্তর সাহিত্য সৃষ্টির চরিত্র বৈশিষ্ট্যের দিকে তাকালে তা সহজে বুঝতে পারা যায়। বুঝতে পারা যায় একুশে-পরবর্তী সাহিত্য সম্মেলনগুলোর আদর্শিক প্রকাশ বিচার করে দেখলে। 

একুশের ভাষা ও একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধ বাঙালির ইতিহাসে ঐতিহাসিক দুটি গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায়। একুশের ভাষা আন্দোলনের মধ্য দিয়ে একাত্তরের স্বাধীনতার চেতনার বীজ বাঙালির চেতনায় রোপণ হয়েছিল। প্রাবন্ধিক, কবি আহমদ রফিক একুশ ও একাত্তরের একজন জ্বলন্ত সাক্ষী। যিনি একুশ থেকে একাত্তর বইটিতে সহজ-সরল ও প্রাঞ্জল ভাষায় ঐতিহাসিক ঘটনা দুটির তাৎপর্য পাঠকের সামনে তুলে ধরেছেন। বইটিতে আহমদ রফিকের বিভিন্ন সময়ের নিবন্ধ সংকলিত হয়েছে। এসব নিবন্ধে লেখক ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতার নিরিখে যেমন বিশ্নেষণ করেছেন, তেমনি আদর্শ-নিরপেক্ষভাবে বিশ্নেষণ রয়েছে বিভিন্ন ঘটনার। যেমন তার 'অভিজ্ঞতার নানা আলোয় ভাষা আন্দোলন' নিবন্ধে তিনি বলেন, ১৯৫২-এর ২৭ জানুয়ারি পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী খাজা নাজিমুদ্দীন ঢাকায় এসে এক বক্তৃতায় জানালেন 'উর্দুই পাকিস্তানের রাষ্ট্রভাষা হতে যাচ্ছে। ক্ষুব্ধ ছাত্রসমাজ প্রতিবাদে ফেটে পড়ে।

কী এক জাদুকরী টানে আমরা কয়েকজন মেডিকেল ছাত্রবন্ধু প্রতিটি তৎপরতার উত্তেজনায় শামিল।' নিবন্ধটিতে লেখক নিজের অভিজ্ঞতার আলোকে ভাষা আন্দোলনের বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন। অভিজ্ঞতার আলোয় তুলে ধরেছেন মুক্তিযুদ্ধকেও। 'একাত্তর মার্চ :যে স্মৃতি রক্ত ঝরায়' নিবন্ধে উল্লেখযোগ্য এক অংশে বলেন, ২৬ মার্চ সকালে বেতার বার্তায় শোনা গেল নতুন করে সামরিক শাসন জারির কথা। কারফিউ ও বিধিনিষেধের কথা, রাজনৈতিক দলের ওপর নিষেধাজ্ঞার কথা।' আরেক অংশে ২৭ মার্চ সকালে বারান্দায় দাঁড়িয়ে দেখছি সামনের রাস্তা দিয়ে ছুটে চলা মানুষের মিছিল। ওদের চোখেমুখে আতঙ্ক। লেখক এভাবে বিভিন্ন নিবন্ধে একুশ ও একাত্তরের বিভিন্ন ঘটনার বিশ্নেষণ করেছেন নিজ দৃষ্টিভঙ্গিতে। পাঠক তাই সহজ ও সরল ভাষায় ঐতিহাসিক ঘটনা দুটির বিভিন্ন দিক খুঁজে পাবেন লেখকের বর্ণনায়। পাকিস্তানি শাসকের শোষণের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ কীভাবে শুরু ও শেষ হয়েছিল এবং তার তাৎপর্য তুলে ধরা হয়েছে কিছু নিবন্ধে। ঐতিহাসিক ঘটনার তাৎপর্য ও আদর্শ-নিরপেক্ষ বিশ্নেষণ করেছেন লেখক বিভিন্ন নিবন্ধে। বইটির এ রকম উল্লেখযোগ্য কিছু নিবন্ধ হলো অসম্পূর্ণ একুশের ট্র্যাজিক ইতিহাস, ভাষা আন্দোলনের অর্জন ও বিসর্জন, ভাষা আন্দোলনের শ্রেণিচরিত্র ও তাৎপর্য বিচার, মুক্তিযুদ্ধ বনাম স্বাধীনতাযুদ্ধ :চরিত্র বিচার এবং জাতীয় চেতনা বনাম ইতিহাস চেতনা। সামাজিক ও রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটের নিরিখে একুশ ও একাত্তর নিয়ে পাঠকের নানামুখী জিজ্ঞাসু ভাবনা থাকে। লেখক আহমদ রফিকের সংকলিত নিবন্ধে সেসব জিজ্ঞাসু ভাবনার পিপাসা মিটবে বলে মনে করা হয়। বেঙ্গল পাবলিকেশনস থেকে আহমদ রফিকের একুশ থেকে একাত্তর বইটি প্রথম প্রকাশ হয়েছিল আগস্ট ২০১৫ সালে। বইটিতে মোট ২৮টি নিবন্ধ সংকলিত করা হয়েছে, যা বাংলাদেশের সামাজিক ও রাজনৈতিক জীবনের গুরুত্বপূর্ণ ঘটনার বিশ্নেষণ। া

বইটির শেষ অংশে যদি আমরা চোখ বুলিয়ে যাই লেখা দেখব- আমাদের সমস্ত সমস্যা-সংকটের মূলে রয়েছে দেশাত্মবোধহীন রাজনৈতিক ক্ষমতার দ্বন্দ্ব। পারস্পরিক সংঘাত, প্রবল অর্থলোভ ও দুর্নীতি এবং তা সব পক্ষকে ঘিরে। গণতান্ত্রিক ও মানবিক মূল্যবোধের প্রতি ক্ষমতাসীন তা যে দলেরই হোক রাজনীতির অনাস্থা সেটা পাকিস্তান আমল থেকে চলমান। সে ধারার পরিবর্তন বড় একটা ঘটেনি। 


বইয়ের নাম- একুশ থেকে একাত্তর
লেখক- আহমদ রফিক
প্রকাশক- বেঙ্গল পাবলিকেশন্‌স
প্রচ্ছদ- রফিকুন নবী

সূত্র: সমকাল
এমএ/ ০৪:০০/ ০৯ জুলাই

বইপত্র

আরও লেখা

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে