Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, সোমবার, ১৮ নভেম্বর, ২০১৯ , ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.0/5 (66 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)


আপডেট : ১২-৩১-২০১৭

জলের নিভৃত নৃত্য

জোহরা শিউলী


জলের নিভৃত নৃত্য

'আমাকে তোমরা কেন এতো ভালোবাসার কথা শোনালে/সেই শিশুকাল থেকে এতো রূপকথা,/ভালোবাসার কথা শুনতে শুনতে আমি ক্লান্ত/সমস্ত জীবন আমার উন্মাদের আত্মকাহিনী'

'একটু ঘুমাতে চাই' কবিতায় কবি মহাদেব সাহার উচ্চারণ। নমস্য কবি মহাদেব সাহার 'মধুর মুহূর্তগুলি চলে যায়' কাব্যগ্রন্থের কবিতাগুলোয় আমরা কবির বর্তমান সময়কেই দেখতে পাই যেন। আলোচ্যগ্রন্থের প্রায় সবক'টি কবিতাই তার নিজের প্রতিবিম্ব হয়ে পাঠকের সামনে উন্মোচন করে ভাবনার নতুন দুয়ার। 

কবিতার ভেতর দিয়ে তিনি বলতে চেয়েছেন, জীবনের মধুর মুহূর্তগুলি চলে যায়, চোখের অলক্ষ্যে, কেউ বুঝতেই পারে না, মানুষের জীবনে এ এক গভীরতম ট্র্যাজেডি, কিন্তু এই হচ্ছে তার বেঁচে থাকা, এই তার নিয়তি, তার সুখের মুহূর্তগুলি সে এভাবেই হারিয়ে ফেলে, সুখের সন্ধান করতে যেয়ে গোটা জীবন-ই তার হারিয়ে যায়। সুখ আর তার পাওয়া হয় না। মধুর মুহূর্তগুলি সে বুঝতেই পারে না। এই বিন্দু বিন্দু সুখ, এই মুহূর্তের আলো সে তাকিয়েও দেখে না, বোঝে না শিশিরবিন্দুর কী আলো, মাটির মেঝেতে কী সুখ, মায়ের একটি স্নেহের ডাকে পৃথিবীর কত শান্তি। কাব্যগ্রন্থের কয়েকটি কবিতায় চোখ বুলিয়ে আসলে বোঝা যায় চলে যাওয়া সময় এবং বর্তমান নিয়ে কবি কতটা উদ্‌গ্রীব, সেই সাথে মধুর মুহূর্তগুলোর স্মৃতি রোমন্থনও করেছেন সচেতনভাবে। 

'মনের মধ্যে উলোট পালোট, মনের মধ্যে পাগল পাগল/ঝাপটা বাতাস, সব উড়ে যায়, এই/আলো, এই আন্ধার/মনের মধ্যে এলোমেলো, মনের মধ্যে ঘূর্ণি হাওয়া/কত কিছুর আনাগোনা, একশো রকম মেঘ রোদ্দুর।'

এই মনের মধ্যে উলট পালটের গল্পটাও শব্দের ছন্দ দিয়ে কবি তাঁর 'মনের মধ্যে পাগল পাগল' কবিতাটিতে প্রকাশ করেছেন। স্থির হয়ে বসতে চায় না, এক দণ্ডও ফুরসত নেই। মনের মধ্যে হাজার বাতি, মনের মধ্যেই ব্ল্যাক আউট। মনের কথা এভাবেই নানাভাবে তিনি তুলে ধরেছেন। 

কোনো কোনো ছোট্ট কবিতার মধ্য দিয়ে কবি পারিপার্শ্বিক অবস্থার কথা এভাবেই তুলে ধরেন। কখনও বা এখানে তার ব্যক্তিগত প্রসঙ্গ চলে আসে আবার কখনও পারিপার্শ্বিক সবকিছুই ছন্দের মাধ্যমে কাগজে-কলমে উঠে এসেছে। 

মানুষ কেবলই সুখ চায় কিন্তু সুখ কী, তা সে বুঝতেই পারে না। আর যখন বুঝতে পারে তখন সময় থাকে না, তার এই চারপাশের জীবনের মধ্যে স্বচ্ছ দীঘির জলে, পাখির কণ্ঠে, নিরিবিলি ঘাসে, দুটি উষ্ণ ভাতে, জীবনের এই কোলাহলে, কলরোলে, গন্ধে কত যে মধু, কত যে সুখ যখন সে তা বুঝতে পারে, বুঝতে পারে কী উপেক্ষায় অবহেলায় এই আনন্দের মুহূর্তগুলির দিকে যে ফিরেও তাকায়নি, তখন শুধু চোখের জল ফেলা ছাড়া আর কিছুই করার থাকে না, কবিকে নিয়ত এই বেদনাই নিজের মধ্যে ধারণ করেত হয়। 

কবির 'আকাশকাব্য' কবিতার উল্লেখযোগ্য অংশ চয়নের মধ্য দিয়ে শেষ করছি আলোচনা। আর তাতেই স্পষ্ট হয়ে উঠবে কাব্যগ্রন্থটির মূলভাব।

'লিখি যদি কোটি মেঘ, কোটি বর্ষা, কোটি দীর্ঘশ্বাস/মনে হয় কোথাও পড়েনি কোনো সামান্য স্বাক্ষর, যা-কিছু/লিখি যেন গলে যায় মোম/মেঘ রৌদ্র অন্ধকার কিছুই বুঝি না, এতো বড়ো/এতো ছোটে আকাশের দিকে শুধু চেয়ে থাকি'। 

লেখক

মহাদেব সাহা

প্রকাশক

মাওলা ব্রাদার্স

প্রচ্ছদ

ধ্রুব এষ

মূল্য

১৬০ টাকা

এমএ/০৯:৪০/৩১ ডিসেম্বর

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে