Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, মঙ্গলবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৯ , ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.1/5 (72 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)


আপডেট : ০৩-০২-২০১৩

পাঁচবিবিতে জামায়াতের হামলায় ইউএনওসহ ১১ পুলিশ আহত


	পাঁচবিবিতে জামায়াতের হামলায় ইউএনওসহ ১১ পুলিশ আহত

জয়পুরহাট, ১ মার্চ- জয়পুরহাটের পাঁচবিবির কাঁশরা গোবিন্দপুরে জামায়াত-শিবিরের হামলায় পাঁচবিবি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা(ইউএনও) রফিকুল ইসলাম সেলিমসহ ১১ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন।

আহত পুলিশ সদস্যরা হলেন- পাঁচবিবি থানার উপপরিদর্শক (এসআই)জাহিদ হোসেন, এসআই মোসাদ্দেক, এসআই আব্দুল আওয়াল, এএসআই আব্দুর রউফ,  কনস্টেবল জাফর আলী, মোকলেছার রহমান, শাহাজান, কামাল হোসেন, ফজলু, আবুল কালাম আজাদ ও পুলিশ পিকআপ চালক হারুনুর রশিদ।

আহতরা জয়পুরহাট জেলা আধুনিক হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন। এ সময় কয়েকটি গাড়িও ভাঙচুর করা হয়।

শুক্রবার বেলা আড়াইটা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত দফায় দফায় এ সংঘর্ষ চলে।

বিকেল ৫টার পর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রলে এলে সন্ধ্যা ৬টা থেকে কুসম্বা ইউনিয়নে অনির্দিষ্টকালের জন্য ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। মোতায়েন করা হয়েছে বিজিবি।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, শুক্রবার জু’মার নামাজের পর সংঘবদ্ধ জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীরা পাঁচবিবি’র কুশুম্বা ইউনিয়ন আ’লীগের ওয়ার্ড সভাপতি কাঁশড়া গ্রামের মোফাজ্জল হোসেনসহ আ’লীগ কর্মী  ফরিদ আলী,আবেদ আলী ও গোবিন্দপুর গ্রামের আ’লীগ নেতা বাবুর বাড়ি ভাঙচুর করে।

এরপর ওই গ্রামের কবিরাজ পাড়ার অরুণ কবিরাজ, মনোরঞ্জন ও বিদ্যুত কবিরাজের বাড়িতে ভাঙচুর চালিয়ে অগ্নিসংযোগও করা হয়। খবর পেয়ে পাঁচবিবি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রফিকুল ইসলাম সেলিম, ওসি আহসানুল হক পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থলে যান।

এ সময় কালো পোষাকে হামলাকারীরা দেশীয় অস্ত্র নিয়ে তাদের ওপর আক্রমণ করে। অবস্থা বেগতিক দেখে তারা ফিরে আসার সময় হাজার হাজার জামায়াত সমর্থক তাদের চারদিক থেকে ঘিরে ফেলে। এ সময় আত্মরক্ষার্থে পুলিশ শটগানের ২৫ রাউন্ড গুলি ছুঁড়লে জামায়াত সমর্থকরা পিছু না হটে বৃষ্টির মতো ইট-পাটকেল ছোড়ে।

ইটপাটকেলের আঘাতে ইউএনও রফিকুল ইসলাম সেলিমসহ ১১পুলিশ আহত হন। এ সময় ইউএনও ও পুলিশের দু’টি গাড়ি ভাঙচুর করা হয়।

এ বিষয়ে পাঁচবিবি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আহসানুল হক জানান, জু’মার নামাজের পর দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে জামায়াত-শিবির কর্মীরা পাঁচবিবি উপজেলার কুসুম্বা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতা মোফাজ্জল হোসেনের বাড়িসহ হিন্দু সম্প্রদায়ের কমপক্ষে ৬টি বাড়িতে দুই ঘণ্টাব্যাপী হামলা চালিয়ে ভাঙচুর, লুটপাট ও অগ্নিসংযোগ করে। পুলিশ বাধা দিতে গেলে তারা পুলিশের ওপর আক্রমণ চালিয়ে আহত করে।

জয়পুরহাট

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে