Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, সোমবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ , ১২ ফাল্গুন ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.2/5 (33 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ১১-০১-২০১১

ঘুরেফিরে প্রথম ইনিংসের ব্যাটিং

ঘুরেফিরে প্রথম ইনিংসের ব্যাটিং
ঢাকা টেস্টের শেষ দুই দিনে বাংলাদেশ দলের কাজটা এখন জানা। ওয়েস্ট ইন্ডিজের পেছন পেছন ছোটা! প্রথমে পেছন পেছন ছুটে তাদের দ্বিতীয় ইনিংস ?যত দ্রুত? সম্ভব শেষ করে দিতে হবে। এরপর ছোটা রানের পেছনে এবং সেই কাজটাই সম্ভবত বেশি কঠিন। টেস্টের তৃতীয় দিন শেষেই যে ৩৩১ রানের লিড ড্যারেন স্যামির দলের!
শেষ দুই দিনের নিয়তি বাংলাদেশ ঠিক করে নিয়েছে প্রথম ইনিংসের পাগুলে ব্যাটিংয়ে। তৃতীয় দিন শেষের সংবাদ সম্মেলনে এসে কাল কোচ স্টুয়ার্ট ল-ও বারবার আক্ষেপ করলেন প্রথম ইনিংসের ব্যাটিংয়ের জন্য। কোচ বলতে বাধ্য হচ্ছেন, এখন পর্যন্ত পরিকল্পনা অনুযায়ী হয়নি কিছুই, ?প্রথম ইনিংসে সাদামাটা ব্যাটিংয়ের কারণে যেভাবে পরিকল্পনা করেছিলাম, সেভাবে কিছু হচ্ছে না। খুব বেশি রান না করেই অনেক উইকেট হারিয়ে ফেলা মোটেও আদর্শ শুরু নয়। আমাদের পরিকল্পনা এ রকম ছিল না। পরিকল্পনা ছিল ১৩০ ওভারের মতো ব্যাট করা। আমরা তাতে ব্যর্থ।? নিজেরা ব্যর্থ মানে প্রতিপক্ষ সফল। দ্বিতীয় ইনিংসে মাত্র ৩ উইকেট হারিয়েই ৩৩১ রানের লিড ওয়েস্ট ইন্ডিজের। ম্যাচে ফেরার পথটা মোটেও মসৃণ দেখছেন না বাংলাদেশ কোচ।
লম্বা ইনিংস খেলার মন্ত্র প্রতিনিয়তই ব্যাটসম্যানদের কানে জপছেন স্টুয়ার্ট ল। কিন্তু সেই মন্ত্র যেন ব্যাটসম্যানদের এ-কান দিয়ে ঢুকে ও-কান দিয়ে বেরিয়ে যাচ্ছে! ল হতাশ, তবে আশা হারানোর পাত্র নন, ?দলের সিনিয়র খেলোয়াড়দের কাছে বড় ইনিংসই প্রত্যাশা থাকে। সেটা না হওয়াটা একজন কোচের জন্য অবশ্যই হতাশার। তবে আমি সব রকম চেষ্টা করে যাচ্ছি। রান করার, উইকেটে থাকার পথ খুঁজে বের করতে হবে আমাদের।? এই জায়গায় নান্দনিক ব্যাটিংয়ের চেয়ে রানটাকেই বেশি গুরুত্ব দিচ্ছেন কোচ, ?একটা সুন্দর ৪০ রানের ইনিংসের চেয়ে দৃষ্টিকটু ৮০ বা ১২০ রানের ইনিংসই দলের জন্য বেশি প্রয়োজন।?
জিম্বাবুয়ে সফর থেকেই ইতিবাচক ব্যাটিংয়ের কথা বলে আসছেন ল। কিন্তু ইতিবাচক ব্যাটিংয়ের নামে যে রকম এলোপাতাড়ি ব্যাট চলছে, কোচের কথার ভুল অর্থই হয়তো করে বসেছেন ব্যাটসম্যানরা! স্টুয়ার্ট ল-র ভাষায় ইতিবাচক ব্যাটিংয়ের সংজ্ঞা এ রকম, ?সঠিক শট খেলাটাই হলো ব্যাটিংয়ের আসল শিল্প। ইতিবাচক ব্যাটিং মানে প্রতি বলেই ছক্কা মারতে যাওয়া নয়। প্রতিটা বলই বুঝে খেলতে হবে এবং এখন আমরা যা করছি তার চেয়ে লম্বা সময় নিয়ে ব্যাটিং করতে হবে।?
মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামের উইকেট তৃতীয় দিনেও যথেষ্ট ব্যাটিংবান্ধব দেখা গেল। কালো মাটির উইকেট বিশুর কথা যে রকম শুনেছে সে রকম শুনছে না সাকিব-সোহরাওয়ার্দীদের কথা। এতে অবশ্য বোলারদের দোষ কমই দেখছেন কোচ, ?তাদের দলের একজন লেগ স্পিনার ভালো টার্ন পেলেও ফিঙ্গার স্পিনাররা সেটা পায়নি। সাকিব তারপরও প্রথম ইনিংসে ভালো বল করেছে, কিছু টার্ন পেয়েছে আজও (গতকাল)। উইকেটের মাটিটাই আসলে ফিঙ্গার স্পিনারদের টার্ন না পাওয়ার মূল কারণ।?
হোম সিরিজে ব্যর্থতার কারণ হিসেবে ঘুরেফিরেই আসে উইকেটের কথা। তবে ঢাকা টেস্টের বোলিং-ব্যর্থতার অজুহাত হিসেবে কোচ কেবল উইকেটকেই কাঠগড়ায় দাঁড় করাচ্ছেন না। তিনি শর্ত দিচ্ছেন সবার আগে ভালো বল করার এবং সেজন্য ভবিষ্যতে সঠিক বোলিং কম্বিনেশন খুঁজে বের করার ওপরও দিচ্ছেন গুরুত্ব, ?আমরা সঠিক বোলারদের খেলাচ্ছি কি না, সেটা দেখতে হবে। কাকে খেলাব কাকে খেলাব না, সেসব নিয়ে বোধ হয় আরও ভালো করে চিন্তা করার ব্যাপার আছে।?
এটা ভবিষ্যতের চিন্তা। এখনকার চিন্তা পুরোটাই ঢাকা টেস্ট নিয়ে। টেস্টের এখনো দুই দিন বাকি, ফলাফল তাই অনিবার্য। ওয়েস্ট ইন্ডিজকে কত তাড়াতাড়ি থামিয়ে রানের পেছনে ছোটার কাজটা দ্রুত এবং সাফল্যের সঙ্গে শুরু করা যায়, সব চিন্তা সেটা নিয়েই।

ফুটবল

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে