Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, সোমবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ , ১২ ফাল্গুন ১৪২৬

গড় রেটিং: 2.8/5 (20 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ১০-৩০-২০১১

জাতীয় সাঁতারের এ কী হাল!

জাতীয় সাঁতারের এ কী হাল!
ইফতেখার রাজিব : শৈশবের ছাপ এখনো চোখে-মুখে। সাত পেরিয়ে সবেমাত্র আটে পা দিয়েছে রিয়া আক্তার মণি। যশোর থেকে ও এসেছে ২৫তম জাতীয় সাঁতারে অংশ নিতে। ভাগ্যে পদক জোটেনি। ৫০ মিটার ব্যাক স্ট্রোকে সবার পেছনে থেকেই সাঁতার শেষ করতে হয়েছে রিয়াকে। ওর মতো ৯ বছর বয়সী আরেক কিশোরী রংপুরের মুক্তি খাতুনের হয়েছে একই ভাগ্য। এই দুজনের বিপরীত মেরুতে পুলিশ ইন্সপেক্টর খলিলুর রহমান। ৫৬ বছর বয়সে পুলিশের হয়ে তিনিও অংশ নিয়েছেন জাতীয় সাঁতারে। তবে রিয়া, মুক্তির মতো আক্ষেপে পুড়তে হয়নি খলিলুর রহমানকে। ওয়াটারপোলোতে তাঁর দল ফিরেছে ব্রোঞ্জ পদক জয় করে। ওপরের এই তথ্যগুলো উল্লেখ করা হলো দেশের সাঁতারের সর্বোচ্চ আসরের অবস্থা বোঝাতে। সেখানে নিয়ম-নীতির কোনো তোয়াক্কা নেই। অভিযোগ আছে কাউন্সিলর পদ টিকিয়ে রাখার জন্যই এমন অদক্ষদের নামিয়ে দেওয়া হচ্ছে জাতীয় সাঁতারের মতো আসরে। কারণ জাতীয় সাঁতারের মতো আসরগুলোতে অংশ না নিলে তাঁরা হারাবেন ফেডারেশনের নির্বাচনে ভোটাধিকার প্রয়োগের ক্ষমতা। আবার নির্বাচনে ভোট হারানোর ভয়ে জেলা দলগুলোর বিপক্ষে কথা বলার সাহস দেখান না ফেডারেশনের কর্তাব্যক্তিরা। তবে ব্যাপারটা যে ঠিক হচ্ছে না এটা মানেন সাঁতার ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুর রহমান শাহীন, 'বয়সের ব্যাপারে ফেডারেশনের একটা নীতিমালা থাকা উচিত। পরবর্তী সময়ে এ ব্যাপারে আমরা একটা চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেব।' এ নিয়ে ক্ষোভ সাঁতার ফেডারেশনের কোষাধ্যক্ষ ও আনসারের ক্রীড়া কর্মকর্তা শেখ মোহাম্মদ আলমের কণ্ঠেও, 'যাদের বয়স পনেরোর নিচে তাদের জাতীয় সাঁতারে অংশ নেওয়া উচিত না। সাঁতারুদের নিয়ে এসে কাউন্সিলরশিপ রক্ষা করার জন্যই জেলা দলগুলো এমন করে। এ ব্যাপারে একটি সুষ্ঠু নীতিমালা থাকা উচিত। তা না হলে কোনো দিনও সাঁতারের অবস্থার উন্নতি হবে না।'
দেশের সর্বোচ্চ আসর হলেও জাতীয় সাঁতারের মতো আসরে অংশ নেন না দেশের সেরা সাঁতারুদের অনেকেই। কারণ বয়সের কারণে তাঁদের অনেকেই এখনো জাতীয় জুনিয়র সাঁতারের মতো আসরগুলোতে অংশ নেন এবং সেখানে তাঁদের জন্য পদক একরকম নিশ্চিতই থাকে। তবে এই সাঁতারুরা যদি জাতীয় সাঁতারের মতো আসরে অংশ নিয়ে পদক জেতেন তাহলে তিনি আর অংশ নিতে পারবেন না জাতীয় জুনিয়র সাঁতারে। তাই তো ব্রোঞ্জ জেতার পরও সময় বাড়িয়ে সাঁতারুকে চতুর্থ বানাতে দ্বিধাবোধ করেননি কুষ্টিয়া জেলা কর্মকর্তারা। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সাঁতার ফেডারেশনের এক কর্মকর্তা বলেছেন, 'যা হয়েছে আমার সামনেই হয়েছে। তৃতীয় স্থান পাওয়া এক সাঁতারুকে চতুর্থ করে দেওয়া হয়েছে। কারণ পদক পেলে তিনি আর জাতীয় জুনিয়র সাঁতারে অংশ নিতে পারবেন না।' এ আসরে অব্যবস্থাপনার চিত্র এখানেই শেষ নয়। সেনাবাহিনীর সাঁতারু ফরহাদ মাহমুদ জায়গা করে নিতে পারেননি দলের চূড়ান্ত দলে। কিন্তু সাঁতার ফেডারেশনের সদস্য লায়লা নুর নাম পরিবর্তন করে ফাহিম উদ্দিন নামে তাঁকে পুলে নামিয়ে দিতে চেয়েছিলেন গাজীপুর জেলার পক্ষে। এ নিয়ে জল অনেক ঘোলা হয়েছে। পরে লোকলজ্জার ভয়ে ফরহাদ উদ্দিনকে আর পুলে নামাতে সাহস করেননি ফেডারেশনের ওই সদস্য। পরে অবশ্য নিজের ভুলের কথা স্বীকার করেছেন লায়লা বানু, 'এক সাঁতারু এক দলে সুযোগ না পেলে তাকে অন্য দলে খেলানো দোষের কিছু নয়। তবে নাম পরিবর্তন করাটা ভুল হয়েছে।' জাতীয় বয়সভিত্তিক সাঁতারের যেকোনো আসরে উৎসবের আবহ তৈরি হয় মিরপুরের জাতীয় সুইমিং কমপ্লেঙ্।ে কিন্তু জাতীয় সাঁতারের এ আসরে কোনো উন্মাদনাই তৈরি হয়নি সুইমিং কমপ্লেঙ্।ে তাই তো নতুন জাতীয় রেকর্ডের সম্ভাবনার অনেক গল্প শোনালেও ৪১টি ইভেন্টে নতুন জাতীয় রেকর্ড হয়েছে সবেমাত্র তিনটি। এসএ গেমসের সোনাজয়ী সাঁতারু শাহজাহান আলী রনি হতাশ প্রতিযোগিতার মান নিয়েই, 'অনায়াসেই আমি সোনা জিতেছি। কারো সঙ্গেই তেমন একটা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে হয়নি। এক বছরে আমরা এ রকম একটি আসরে অংশ নিই। কিন্তু এই একটি মাত্র টুর্নামেন্ট খেলে ভালো করা সম্ভব না। আমাদের দরকার দীর্ঘমেয়াদি প্র্যাকটিস ও বেশি বেশি করে আন্তর্জাতিক আসরে অংশ নেওয়া। তা না হলে ভালো করা সম্ভব না।' একই মত এসএ গেমসে আরেক সোনাজয়ী সাঁতারু রুবেল রানার কণ্ঠেও, 'দীর্ঘমেয়াদি প্র্যাকটিস না করলে কোনোভাবেই টাইমিং কমিয়ে আনা যাবে না। বছরে কম করে হলেও এমন তিনটি টুর্নামেন্ট হওয়া উচিত। তা না হলে আমরা এখানেই থাকব।' কিন্তু দীর্ঘমেয়াদি প্র্যাকটিস নিয়ে কোনো চিন্তাই নেই সাঁতার ফেডারেশনের কর্মকর্তাদের। তাঁদের প্রধান উদ্দেশ্য হলো নিজের গদি টিকিয়ে রাখা। তাই তো ভোটারদের মন জয় করতে আট-নয় বছর বয়সী সাঁতারুদের পুলে নামিয়ে দিতেও দ্বিধাবোধ করছেন না তাঁরা।

ফুটবল

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে