Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, মঙ্গলবার, ২১ জানুয়ারি, ২০২০ , ৮ মাঘ ১৪২৬

গড় রেটিং: 2.7/5 (102 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)


আপডেট : ০৮-০৭-২০১৭

কাতারে বাংলাদেশি প্রতারককে পুলিশে সোপর্দ

আমিনুল ইসলাম


কাতারে বাংলাদেশি প্রতারককে পুলিশে সোপর্দ

দোহা, ০৭ আগস্ট- কাতারে তাজিরুল ইসলাম নামে এক বাংলাদেশি প্রতারককে পুলিশের হাতে সোপর্দ করেছে বাংলাদেশ দূতাবাস। তিনি দীর্ঘদিন ধরে ভিসা বিক্রি ও কর্মীদের সঙ্গে প্রতারণার করে আসছিলেন বলে অনেক বাংলাদেশির অভিযোগ রয়েছে।

সম্প্রতি অভিযোগের ভিত্তিতে তাকে দূতাবাসে ডেকে আটক করে স্থানীয় পুলিশের হাতে সোপর্দ করে কর্তৃপক্ষ।

সূত্র জানায়, বেশ ক’জন বাংলাদেশি দূতাবাসে এসে সম্প্রতি অভিযোগ করেন, তাজিরুল তাদের কাছ থেকে ১৫ লাখ টাকারও বেশি নিয়ে কাতারে এনেছেন। কিন্তু আসার কয়েক মাস পেরিয়ে গেলেও তিনি তাদের কাজের সংশ্লিষ্ট আইডি তৈরির কোনো পদক্ষেপ নেননি। এমনকি যে প্রতিষ্ঠানের নাম করে এনেছেন, সে প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকেও কাজ দেওয়ার ব্যবস্থা হয়নি। এমতাবস্থায় তারা অনিশ্চয়তা ও আর্থিক সংকটে পড়েছেন। 

দূতাবাসের শ্রমশাখা অভিযোগ তদন্ত করে এর সত্যতা পাওয়ার পর অভিযুক্ত তাজিরুলকে দূতাবাসে হাজির হতে বলে। ২৬ জুলাই তিনি দূতাবাসে হাজির হলে জিজ্ঞাসাবাদে অসংলগ্নতা পাওয়ার পর তাজিরুলকে পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়। পরে তার বিরুদ্ধে অভিযোগপত্রও দাখিল করে দূতাবাস কর্তৃপক্ষ। 

এ বিষয়ে দূতাবাসের শ্রম কাউন্সেলর ড. সিরাজুল ইসলাম বলেন, অভিযুক্ত তাজিরুলের বিরুদ্ধে অনেক অভিযোগ রয়েছে। তিনি ভিসা বিক্রির মাধ্যমে কাতারে কর্মী আনার কিছুদিন পর আবার তাদের দেশে পাঠিয়ে দেওয়ার ব্যবসা করে আসছিলেন। এভাবে তার হাতে অনেকে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। সর্বশেষ আটজনের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে আমরা তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিই। আমরা তার কফিল কাতারি নাগরিককেও ডেকেছিলাম। তার সঙ্গে কথা বলেছি। আমাদের প্রক্রিয়া এখনও অব্যাহত রয়েছে। 

বাংলাদেশ কমিউনিটির আরও অনেকে এমন অবৈধ ভিসা বিক্রি ও প্রতারণার সঙ্গে জড়িত উল্লেখ করে ড. সিরাজুল বলেন, উপযুক্ত প্রমাণ সাপেক্ষে আমাদের কাছে কেউ অভিযোগ জানালে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবো। অনেক ভিসা ব্যবসায়ী দূতাবাসে এসেও বড় বড় কথা বলেন, কিন্তু আইনের দৃষ্টিতে তারা অপরাধী এবং এদের কোনো ছাড় দেওয়া হবে না।

এ বিষয়ে রাষ্ট্রদূত আসুদ আহমদ বলেন, কাতারে যেসব বাংলাদেশি ভিসা বাণিজ্যের সঙ্গে জড়িত, তাদের বিরুদ্ধে আমরা ব্যবস্থা গ্রহণ অব্যাহত রেখেছি। এরই অংশ হিসেবে তাজিরুলকে পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। এর আগে আরও একজনকে আমরা এমন অভিযোগের প্রেক্ষিতে আইনের হাতে তুলে দিয়েছিলাম। 

রাষ্ট্রদূত ভিসা কেনাবেচার অবৈধ বাণিজ্য থেকে সবাইকে দূরে থাকার আহ্বান জানান। অন্যথায় তাজিরুলের মতোই বিচারের মুখোমুখি হতে হবে বলে সতর্কতা উচ্চারণ করেন।

এমএ/ ০৭:৪৪/ ০৭ আগস্ট

কাতার

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে