Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, রবিবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০১৯ , ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ১১-১৭-২০১২

রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেওয়া সম্ভব না -মিজানুর রহমান


	রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেওয়া সম্ভব না -মিজানুর রহমান

ঢাকা, ১৭ নভেম্বর- জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান বলেছেন, বাস্তবতা মাথায় রেখে রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেওয়া সম্ভব না। আজ শনিবার রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে এক আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।

রোহিঙ্গা সমস্যা নিয়ে রিফিউজি অ্যান্ড মাইগ্রেটরি মুভমেন্টস রিসার্চ ইউনিট (রামরু) ‘বাংলাদেশে রোহিঙ্গা: অর্থনৈতিক উদ্বাস্তু না আশ্রয়প্রার্থী’ শীর্ষক এই আলোচনার আয়োজন করে। এতে আমন্ত্রিত অতিথি ছিলেন মিজানুর রহমান। এতে বক্তাদের বেশিরভাগ রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেওয়ার পক্ষে মত দিলেও এর বিপক্ষে যুক্তি তুলে ধরেন কমিশনের চেয়ারম্যান।
রামরুর প্রধান সি আর আবরার এতে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন। সি আর আবরার বলেন, রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেওয়া বাংলাদেশের জন্য শুধু নৈতিক দায়িত্ব নয়; আন্তর্জাতিক আইনে এ নিয়ে বাধ্যবাধকতাও আছে। আন্তর্জাতিক আইন মাথায় রেখে সরকারি নীতি পুনর্বিবেচনা করা উচিত বলেও তিনি মন্তব্য করেন।
সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল হাসান আরিফ বলেন, রোহিঙ্গা ইস্যুতে জনগণের ভাবনার সঙ্গে সরকারের পদক্ষেপ মিলছে না। সবাই চায় রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেওয়া হোক। 
বক্তব্য রাখতে এসে এর জবাবে মিজানুর রহমান বলেন, এটি ভুল। বাস্তবতা হচ্ছে, রোহিঙ্গারা যাতে বাংলাদেশে প্রবেশ করতে না পারে, সে কথাই সবাই বলে। সম্প্রতি রামুতে বৌদ্ধপল্লীতে হামলার ঘটনায় এই রোহিঙ্গাদের ব্যবহার করা হয়েছে বলেও তিনি অভিযোগ করেন।
মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান বলেন, ‘যুদ্ধাপরাধীদের বিচার কোনো বিচ্ছিন্ন ঘটনা নয়। ঠিক এই সময়ে রোহিঙ্গা ইস্যুতে সরকারকে কাঠগড়ায় দাঁড় করানোর চেষ্টা আমাদের কিছু বুদ্ধিজীবী মহলে অধুনা যোগ হয়েছে। এটা ঠিক নয়।’ 
মিজানুর রহমান আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের ভূমিকার সমালোচনা করে বলেন, ‘রোহিঙ্গা ইস্যুর সঙ্গে রাজনীতির গভীর সম্পর্ক আছে, আমরা স্বীকার করি বা না করি। আন্তর্জাতিক মোড়লদের দ্বৈত ভূমিকা সুস্পষ্টভাবেই প্রমাণিত। একদিকে নিজেদের সঙ্গে মতান্তর হলে ড্রোন হামলা করে, অন্যদিকে আমাদেরকে বলে জামায়াতের সঙ্গে আলোচনা করতে।’ 
রোহিঙ্গাদের ছবি নিয়ে আয়োজকদের চিত্র প্রদর্শনীর ব্যাপারে মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান বলেন, ‘এমন চিত্র প্রদর্শনী আমাদের আবেগাপ্লুত করে। কমিশনে আসুন, আমাদের বাঙালি ভাই-বোনদের আরও করুণ ছবি দেখাব। তাদের জন্য কারা ভাবছে?’ তিনি আরও বলেন, ‘মানবিক বিবেচনায় তাদের ঢুকতে না দেওয়ায় আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘন হচ্ছে। কিন্তু বাস্তবতাও মাথায় রাখতে হবে। আমি কি পারব সব বাস্তবতা তুড়ি মেরে উড়িয়ে দিতে?’ তিনি বলেন, বিষয়টি সাদামাটাভাবে দেখার কোন সুযোগ নেই। রাষ্ট্রের বৃহত্তর স্বার্থের সঙ্গে এটি সঙ্গতিপূর্ণ কি না তাও ভাবা উচিত।
আলোচনায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইনের শিক্ষক আসিফ নজরুল বলেন, সমস্যা সমাধানের ক্ষেত্রে মানবিকতাটা মূল বিষয় হওয়া উচিত। কিন্তু আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় অন্ধের ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছে, তারা দেখেও দেখছে না। রোহিঙ্গা ইস্যুতে মিয়ানমারকে চাপ দেওয়ার পরিবর্তে তারা বাংলাদেশকে চাপ দিচ্ছে। 
অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাসের শিক্ষক মেজবাহ কামাল, আইনজীবী শাহদীন মালিক ও মানবাধিকার কর্মী হামিদা হোসেন।

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে