logo

‘চোখের দৃষ্টিতে কেউ গর্ভবতী হয়ে যায় না’

‘চোখের দৃষ্টিতে কেউ গর্ভবতী হয়ে যায় না’

ত্রিবান্দ্রম, ০৪ সেপ্টেম্বর- "চোখের দৃষ্টিতে কেউ নিশ্চয়ই গর্ভবতী হয়ে যায় না"। ভারতের দক্ষিণাঞ্চলীয় প্রদেশ কেরালায় এক নারীর দেওয়া এই পোস্টটি ফেসবুকে দশ হাজারেরও বেশি লাইক পেয়েছে, শেয়ারও হয়েছে অনেকবার। কেরালার অ্যাকাউন্টেন্ট ও পার্টটাইম শিক্ষক ভানজানা বাসুদেব এই পোস্টটি দিয়েছিলেন তাঁর ফেসবুকে। কেরালার পুলিশ কমিশনার ঋষিরাজ সিংয়ের এক বক্তব্যের প্রেক্ষিতে এই পোস্টটি করেছিলেন ভানাজা বাসুদেব। মি: সিং বলেছিলেন কোনো পুরুষ নারীর দিকে ১৪ সেকেন্ডের বেশি তাকালেই হয়রানির দায়ে তার শাস্তি হওয়া উচিত, জেল হওয়া উচিত।

যদিও এ ধরনের কোনো আইন নেই। আর ওই বক্তব্যের পর একটি নিউজ আউটলেট একজন পুরুষের চোখের দৃষ্টির ১৪ সেকেন্ডের ভিডিও পোস্ট করে ব্যাখ্যা করার চেষ্টা করেছিল কোন জায়গায় পুরুষের দৃষ্টি খারাপ মনে হতে পারে এই ১৪ সেকেন্ডের মধ্যে। যদিও বাসুদেব বলতে চাইছিলেন যদি এমন কোনো আইন থেকেও থাকে তাহলে সেটা হবে 'ডাবল স্ট্যান্ডার্ডের কেইস'। "সত্যি কথা বলতে কি, কোন সুপুরুষ যদি আমার পাশ দিয়ে যায় তাহলে তো আমিও তার দিকে তাকাই। যদি সেটা মন্দিরে হয় তাহলেওতো তাকাই। চার্চ, বাস স্টপ, মাছের বাজার বা কর্মক্ষেত্র আমি সুপুরষের দিকে তাকাই, ভালোভাবেই তাকে দেখি"-বাসুদেব লিখেছেন। তিনি মনে করেন পুরুষের জন্য যদি এমন আইন প্রয়োগ করা হয় তাহলে সেটা হবে ভন্ডামি।

"আর এটা কিভাবে সম্ভব?" তিনি প্রশ্ন তোলেন। "কোনো মেয়েদের দিকে কোনো ছেলে যেন ১৩.৫৯ সেকেন্ডের বেশি না তাকায়- সেটা কিভাবে তারা যাচাই করবে? তারা কি বলবে আজকের জন্য কোটা শেষ?" "আমি অন্য কারো মতামত জানি না। আমি যতটা বুঝি এটা কোন হয়রানি নয়। এটা অনেকে মজার ছলে করে। চোখের দৃষ্টিতে তো আপনি গর্ভবতী হয়ে যাবেন না"। তার এই কমেন্টের পর তিনি যে প্রতিক্রিয়া পেয়েছিলেন সব তার পক্ষে ছিল না। কিছু মানুষ তাকে বাস্তবধর্মী লেখা বলে প্রশংসা করেছে। আর কিছু মানুষ সমালোচনা করেছে।