logo

যুক্তরাষ্ট্রে দুর্বৃত্তের ছুরিকাঘাতে বাংলাদেশি নারী নিহত

আব্দুল আজিজ শিশির


যুক্তরাষ্ট্রে দুর্বৃত্তের ছুরিকাঘাতে বাংলাদেশি নারী নিহত

নিউ ইয়র্ক, ০১ সেপ্টেম্বর- মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে দুর্বৃত্তদের ছুরিকাঘাতে এক বাংলাদেশি নারী নিহত হয়েছেন। স্থানীয় সময় বুধবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে নিউইয়র্কের জামাইকা ক্রুজ শহরে নিজ কর্মস্থল থেকে বাসায় ফেরার পথে দুর্বৃত্তরা নাজমা বেগম (৬০) নামের ওই নারীকে ছুরি দিয়ে আঘাত করে। পরে স্থানীয় একটি হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহত নাজমা বেগম শরীয়তপুর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক সহকারী শিক্ষিকা। তিনি শরীয়তপুর সরকারি কলেজের রসায়ন বিভাগের সাবেক অধ্যাপক শামছুল আলম খানের স্ত্রী।

নাজমা বেগমের মৃত্যুর খবর পাওয়ার পর থেকে তাঁর বাড়ি সদর উপজেলার আটিপাড়ায় চলছে শোকের মাতম।

নিহত নাজমার পরিবারের সদস্যরা জানান, দুর্বৃত্তরা যখন নাজমা বেগমকে ছুরিকাঘাত করে তখন তাঁর সাথে ছিলেন স্বামী শামসুল আলম খান। তিনিই তাঁকে দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে যান।  

নাজমার দেবর এসকান্দার আজম খান জানিয়েছেন, ১৯৭২ সালে শরীয়তপুর সরকারি কলেজের প্রভাষক শামসুল আলম খানের সাথে তাঁর বিয়ে হয়। শরীয়তপুর জেলা শহরে সদর হাসপাতাল সংলগ্ন বাড়িতে তাঁরা দীর্ঘ দুই যুগ বাস করেছেন। এই দম্পতির দুই ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে। বড় ছেলে নাজমুল আলম খান লিটু ও মেয়ে তৃণা খানম ঢাকায় থাকেন। ছোট ছেলে  শুভকে নিয়ে ২০০৮ সাল থেকে আমেরিকায় বাস করছিলেন এই দম্পতি। ছোট ছেলের বিয়ের উদ্দেশে দুই মাস পরই দেশে ফেরার কথা ছিল পরিবারটির।

এ বিষয়ে শরীয়তপুরের জেলা প্রশাসক মো. মাহমুদুল হোসাইন খাঁন জানান, নাজমা বেগমের নিহত হওয়ার বিষয়টি তাঁরা শুনেছেন। তবে দাপ্তরিকভাবে তাঁদের কাছে এখনো কোনো চিঠি আসেনি। নাজমা বেগমের মৃতদেহ দেশে নিয়ে আসতে পরিবার প্রশাসনের কাছে সহযোগিতা চাইলে যথাযথ সহযোগিতা করা হবে বলেও জানান তিনি।

এর আগে গত ১৩ আগষ্ট নিউইয়র্কে দুই বাংলাদেশিকে গুলি করে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। নিহতদের একজন মসজিদের ইমাম ছিলেন, অন্যজন ছিলেন ওই ইমামের সহকারী।

আর/১০:১৪/০১ সেপ্টেম্বর