logo

নেইমারকেই অধিনায়ক চান কোচ তিতে

নেইমারকেই অধিনায়ক চান কোচ তিতে

ব্রাসিলিয়া, ২৩ আগষ্ট- নেতৃত্ব ছেড়ে দিলেও, নেইমারকেই এই দায়িত্বের জন্য সবচেয়ে বেশি যোগ্য মনে করছেন ব্রাজিল কোচ তিতে। অলিম্পিকে ব্রাজিলের চির আক্ষেপ ঘুচিয়ে স্বর্ণ পদক এনে দেয়ার পর নেইমারকেই ব্রাজিল জাতীয় ফুটবল দলের অধিনায়ক হিসেবে পেতে চান তিনি। এমনকি ব্যক্তিগতভাবে নেইমারকে বোঝানোর দায়িত্বটাও নিজ কাঁধের ওপর তুলে নিয়েছেন তিতে। 
 
অলিম্পিক ফুটবলের সোনা জিতেই ব্রাজিলের অধিনায়কত্ব ছেড়ে দেয়ার ঘোষণা দেন নেইমার। অনেকটা ক্ষোভ থেকে যে এই দায়িত্বটা তিনি ছেড়ে দিয়েছেন, সেটা বলাই বাহুল্য। তার নেতৃত্ব নিয়ে কম সমালোচনা হয়নি। অলিম্পিকের শুরুতে তো নেইমারের জার্সি গাযে দিয়ে সেখানে নারী ফুটবলার মার্তার নাম লিখে তাকে কম অপমান করা হয়নি। 

নেইমার সব মুখ বুঝে সহ্য করে গেছেন। এবং শেষ পর্যন্ত দেশকে প্রথমবারেরমত স্বর্ণ পদকটা উপহার দিয়েই নেতৃত্ব ছাড়ার ঘোষণা দিলেন। ওই সময় তিনি বলেছিলেন, ‘আমি আমার কাজ করেছি। দেশকে প্রথমবারেরমত অলিম্পিক ফুটবলের স্বর্ণ এনে দিয়েছি। এবার সমালোচকরা বুঝুক তারা, কী নিয়ে সমালোচনা করেছিল।’ ওই সময়ই তিনি জানিয়েছিলেন, আমি এই বার্তা তিতেকে পৌঁছে দিতে চাই যে, তিনি যেন অধিনায়ক হিসেবে অন্য কাউকে বেছে নেন।

২০১৮ বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে লাতিন আমেরিকা অঞ্চলে ব্রাজিল রয়েছে ৬ষ্ঠ স্থানে। এখন যে অবস্থায় রয়েছে ৫ বারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা, তাতে আগামী বিশ্বকাপে অংশ নেয়া নিয়েই রয়েছে শঙ্কা। অথচ, ব্রাজিলই একমাত্র দেশ, যাদের সবগুলো বিশ্বকাপে খেলার গৌরব রয়েছে। 

বিশ্বকাপ বাছাই পর্বে ১ সেপ্টেম্বর ইকুয়েডর এবং ৬ সেপ্টেম্বর কলম্বিয়ার বিপক্ষে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ রয়েছে ব্রাজিলের। এ উদ্দেশ্যেই মঙ্গলবার দল ঘোষণা করেন ব্রাজিল কোচ তিতে। তার ২৩ জনের এই দলে রয়েছেন নেইমারও। তবে, তিনি এখনও পর্যন্ত কোন অধিনায়কের নাম ঘোষণা করেননি।

কেন করেননি? এ প্রশ্নের জবাবে তিতে বলেন, ‘এ বিষয়ে তড়িৎ কোন সিদ্ধান্ত নেয়ার ক্ষেত্রে আমি চিন্তিত নই।’ এমনকি সম্ভাব্য অধিনায়কের তালিকা থেকে নেইমারকে বাদও দেননি তিনি। নেইমারের বিষয়ে অনেক কথাই বলেছেন তিতে।

অধিনায়কত্ব করা না নিয়ে বার্সা তারকার সিদ্ধান্ত সম্পর্কে তিতে বলেন, ‘নেইমারও আমাকে বলেছে যে, সে আর ব্রাজিল দলের অধিনায়ক হতে চান না। আমি এর পরই অবশ্য তার সঙ্গে কথা বলেছি। তাকে বলেছি, তুমি পরিবারের সাথে কয়দিন সময় কাটাও। এখনও সময় আছে হাতে। পরেও এ নিয়ে আমরা আলোচনা করতে পারবো। তবে নেতৃত্ব হচ্ছে একটা দলের সবচেয়ে টেকনিক্যাল বিষয়। নেইমার দলকে টেকনিক্যালি নেতৃত্ব দিতে পারেন। দলের অন্য ফুটবলারদের সঙ্গে যোগাযোগটা তিনি করেন নেতার মতই। ইতিমধ্যেই উদাহরণ সৃষ্টি করে ফেলেছেন তিনি।’

নেইমার যদি কোনভাবেই আর নেতৃত্বে না ফেরেন তাহলে কী করবেন তিতে? তিনি বলেন, ‘একজন নেতা খুঁজতে গেলে নেতৃত্বের অনেক কিছুই মেলানো জরুরী হয়ে গেছে। তবে এই মুহূর্তে এ বিষয়ে বিস্তারিত আর কিছু জানাতে পারছি না। তবে আমার চিন্তায় যারা রয়েছেন তাদের মধ্যে রয়েছে দানি আলভেজ, মিরানন্ডা এমনকি নেইমার প্রমুখ। 

আর/১৭:১৪/২৩ আগষ্ট