logo

ফতুল্লায় দেয়াল ধসের পর বিস্ফোরণ, দগ্ধ ৮

ফতুল্লায় দেয়াল ধসের পর বিস্ফোরণ, দগ্ধ ৮

নারায়ণগঞ্জ, ১৮ আগষ্ট- নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার একটি বাসায় বিস্ফোরণে অন্তত আটজন আহত হয়েছেন। সোমবার ভোরে ফতুল্লার লালখা পূর্ব শিয়ারচর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

আহতদের মধ্যে চারজনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় সোমবার সকালে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে।
 
তারা হলেন- সেলিনা বেগম (৩৮) তার মেয়ে কলেজছাত্রী পপি আক্তার (১৭) ছেলে স্কুলছাত্র অনিক আহমেদ (১৫) পথচারী কুয়েল দাশ (৪৫)। বাকি চারজনকে ফতুল্লায় চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। তাদের পরিচয় পাওয়া যায়নি।
 
ঢাকা মেডিক্যাল কলেজের বার্ন ইউনিটের চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, আহতদের অবস্থা আশঙ্কাজনক।
 
আহতদের স্বজনদের জানান, সোমবার সকাল সাড়ে ছয়টার দিকে পূর্ব মিয়ারচরের একটি ফার্মেসির পেছনের একটি বাসায় হঠাৎ বিকট শব্দে দেয়াল ও ছাদ ধসে পড়ে আগুন ধরে যায়। এতে আটজন অগ্নিদগ্ধ হন।
 
এ সময় স্থানীয় লোকজন ছুটে এসে দগ্ধদের উদ্ধার করে প্রথমে স্থানীয় ক্লিনিক ও পরে আশঙ্কাজনক চারজনকে ঢাকা পাঠায়।
 
স্থানীয়দের ধারণা, ফ্রিজের কমপ্রেশার বিস্ফোরণে এ ঘটানা ঘটতে পারে। তবে বিস্ফোরণের সুনির্দিষ্ট কারণ এখনো জানা যায়নি।
 
ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটের আবাসিক সার্জন পার্থ শঙ্কর পাল জানান, বিস্ফোরণে অনিকের শরীরের ৮২ ভাগ, পপির ৩২ ভাগ ও সেলিনার ৬৮ ভাগ পুড়ে গেছে। এ ছাড়া প্রত্যেকের শ্বাসনালী পুড়ে গেছে। আহতদের আইসিইউতে নিবিড় পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে রাখা হয়েছে।