logo

আজ পাহাড়ে গোর্খাল্যান্ড জয়েণ্ট অ্যাকশন কমিটির বৈঠক


	আজ পাহাড়ে গোর্খাল্যান্ড জয়েণ্ট অ্যাকশন কমিটির বৈঠক

কলকাতা ও দার্জিলিং, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৩ - গোর্খাল্যান্ড বৈঠক নিয়ে কেন্দ্রের সবুজ সঙ্কেত না পাওয়ায় চিন্তিত মোর্চা শিবির৷ তাই মরিয়া মোর্চা ছাত্রীর শ্লীলতাহানির ঘটনায় উচচ পর্যায়ের তদন্ত চেয়ে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সুশীলকুমার শিন্ডেকে চিঠি পাঠাল৷ সূত্রের খবর, চিঠিতে বিমল গুরুং কেন্দ্রকে বৈঠকের ব্যাপারে দ্রূত সিান্ত গ্রহণ করতে বলেছেন৷
 
বিদ্যার্থী মোর্চার ডাকে রবিবার পাহাড়ে বারো ঘণ্টার বন্ধ পালিত হয়৷ আজ সোমবার থেকে তারা বিক্ষোভ-মিছিলের কর্মসূচি নিয়েছে৷ উত্তরবঙ্গের আইজি শশীকান্ত পূজারিবলেন, "এদিন পাহাড়ের জনজীবন স্বাভাবিক ছিল৷ খোলা ছিল সিকিমের লাইফলাইন ৩১ এ নম্বর জাতীয় সড়কও৷" জেলা পুলিশ সুপার কুণাল আগরওয়াল বলেন, "শনিবার গভীর রাত থেকে অভিযান চালিয়ে ১০০ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে৷"  ধৃতদের এদিন দার্জিলিং আদালতে তোলা হলে জিটিএ সভাসদ জ্যোতিকুমার রাই ও মোর্চা নেত্রী অঞ্জলি সুববা-সহ কয়েকজনের জামিন হয়৷ অভিযুক্ত রাফ ফের জওয়ান অরুণ প্রামাণিকের জেল হেফাজতের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে৷
 
রবিবার, শিলিগুড়িতে উত্তরবঙ্গ উন্ন্য়নমন্ত্রী গৌতম দেব বলেন, "শনিবারের ঘটনায় পুলিশ সংযত আচরণ করেছে৷" কেন্দ্রীয় সরকারের সমালোচনা করে তিনি বলেন, "এই পরিস্হিতিতে পাহাড় থেকে কেন্দ্রীয় বাহিনী সরিয়ে নেওয়ার চেষ্টা হচেছ৷ এতেই কেন্দ্রের ভূমিকা বোঝা যায়৷" স্পেশাল আইজি দার্জিলিং জাভেদ শামিম এদিন বলেছেন, "পাহাড়ে বর্তমানে ১১ কোম্পানি সিআরপিএফ আছে৷৫ কোম্পানি রাজ্য সশস্ত্র বাহিনী আছে৷ শনিবার দুই কোম্পানি এসএসবি চলে গিয়েছে৷" মোর্চার সাধারণ সম্পাদক রোশন গিরি বলেন, "কেন্দ্রীয় বাহিনী পাহাড়ের মানুষের উপর অত্যাচার করছে৷ তাই বাহিনী প্রত্যাহারের দাবি করছি আমরা৷" শনিবার বহু ছাত্র-ছাত্রী স্কুল পোশাকে ভাঙচুর, বিক্ষোভ ও আগুন লাগানোর ঘটনায় যোগ দেয় বলে অভিযোগ পুলিশের৷ কিছু  শিক্ষকও আন্দোলনে যাওয়ার জন্য পড়ুয়াদের উসকানি দেন বলে অভিযোগ৷ এনিয়ে এদিন পাহাড়ের বিভিন্ন্ স্কুল-কলেজের প্রধানকে থানায় ডেকে সতর্ক করে দেয় পুলিশ৷ আন্দোলনে মদত দেওয়ায় দার্জিলিংয়ের একটি স্কুলের প্রধান শিক্ষককে খুঁজছে পুলিশ৷ অন্য এক স্কুলের শিক্ষিকা তাঁর স্ত্রীকেও পুলিশ আটক করেছে৷ ২ অক্টোবর থেকে পুলিশের তরফে পাহাড়ের পড়ুয়াদের নিয়ে কেরিয়ার গাইড কাউন্সেলিং প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে৷ রবিবার দেরাদুনে গোর্খাল্যান্ড শীর্ষক একটি সেমিনারে যোগ দেন মোর্চার প্রচার সচিব হরকা বাহাদুর ছেত্রী৷ তিনি বলেন, "কেন্দ্রীয় সরকারের হাতে এখনও কিছুটা সময় আছে৷ তারা আলোচনার দিন ঠিক করুক৷"
 
আজ সকালে দার্জিলিংয়ের সিংমারিতে বৈঠকে বসছে গোর্খাল্যান্ড জয়েণ্ট অ্যাকশন কমিটি৷ মোর্চার জিটিএতে যোগ দেওয়া নিয়ে এই বৈঠক উত্তপ্ত হতে পারে৷ তবে সিপিআরএম নেতা গোবিন্দ ছেত্রী বলেন, "মোর্চা কমিটিকে জানিয়েছে তারা জিটিএ'র প্রথম বৈঠকেই গোর্খাল্যান্ড প্রস্তাব পাস করাবে৷ আমরা সেদিকেই চেয়ে আছি৷" কমিটির মুখপাত্র এনোস দাস প্রধান এই কথা স্বীকার করে নিয়েছেন৷