logo

ময়লার স্তুপ সরিয়ে শহীদের কবর উদ্ধার করল ছাত্রলীগ

ময়লার স্তুপ সরিয়ে শহীদের কবর উদ্ধার করল ছাত্রলীগ

চট্টগ্রাম, ৩১ আগস্ট- রেলওয়ের পূর্বাঞ্চলীয় সদর দপ্তর সিআরবি পাহাড়ের পাদদেশে এক কোনায় চিরনিদ্রায় শায়িত শহীদ মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হাসিম। ১৯৭১ সালের ১৯ এপ্রিল পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর হাতে শহীদ হন এই মুক্তিযোদ্ধা।

সিআরবি এলাকাতেই তাকে সমাহিত করা হয়। অনেক বছর যাবত আর আবহেলায় পড়েছিল কবরটি। পরে এই বীর মুক্তিযোদ্ধার কবরটি পাকা করে সংরক্ষিত হয়। শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধার প্রতি সম্মান দেখাতে ভুলে যান অনেকেই তাই হয়তো নামফলকসহ পাকা কবরটিই স্থানীয়দের ফেলা নানা আবর্জনার স্তুপে ঢাকা পড়ে যায়। কবরটি যেন হয়ে উঠে আবর্জনার ডাস্টবিন।

সম্প্রতি অনলাইনে বিষয়টি উঠে আসে। চলে আলোচনা সমালোচনা- বিষয়টি চোখে পড়ে চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের। এরপর নেতাকর্মীরা বৃহস্পতিবার প্রায় দুই ঘণ্টা ধরে ময়লা অপসারণের পাশাপাশি শহীদ আব্দুল হাসিমের কবরটি ধুয়ে মুছে পরিষ্কার করেন। ময়লার স্তুপ থেকে শহীদের কবরটিকে দৃশ্যমান করেন।

চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক জাকারিয়া দস্তগীর সাংবাদিকদের বলেন, সরকার শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের কবর, বধ্যভূমি ও মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিচিহ্ন সংরক্ষণের নির্দেশ দিয়েছে। কয়েক বছর আগে রেল কতৃর্পক্ষ সিআরবির শিরিষতলায় মঞ্চ বানানোর সময় এ কবরটিও সংস্কার করে। সে সময় চারপাশে বেস্টনিও দেওয়া হয়। কিন্তু রেলওয়ের নিজস্ব পরিচ্ছন্নতা কর্মীরা বিভিন্ন স্থান থেকে ময়লা এনে কবরের আশপাশে ফেলতে শুরু করেন। গত দুই বছরে কবরটা আবর্জনার স্তুপে পরিণত হয়।

কবরটি পরিষ্কারের পর নগর ছাত্রলীগের সভাপতি ইমরান আহমেদ ইমু, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক জাকারিয়া দস্তগীর, নগর ছাত্রলীগের সহসভাপতি জয়নাল উদ্দিন জাহেদ, সাংগঠনিক সম্পাদক মঈন শাহরিয়ার, কার্যনির্বাহী সদস্য মুনীর চৌধুরী ও মাহমুদুর রশীদেও নেতৃত্বে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা এই বীর শহীদের কবরে ফুল ছিটিয়ে শ্রদ্ধা জানান।

এমএ/ ১১:৩৩/ ৩১ আগস্ট