logo

অভিনয়, বাজে ব্যবহারের পর এবার মাদক সেবনের অভিযোগ!

অভিনয়, বাজে ব্যবহারের পর এবার মাদক সেবনের অভিযোগ!

মস্কো, ৩০ জুন- নাইজেরিয়া-আর্জেন্টিনা ম্যাচের স্মৃতি এখনো সবার মনে টাটকা। সেই ম্যাচে ফুটবলারদের সঙ্গে অন্যতম আকর্ষণ ছিলেন ফুটবল কিংবদন্তি দিয়েগো ম্যারাডোনা। মেসির গোলে শিশুর মতো উল্লসিত হয়ে পড়েন। আর্জেন্টিনা গোল খেলে হয়ে পড়েন হতাশ। আর ম্যাচের একেবারে শেষ মুহূর্তে মার্কোস রোহোর শট নাইজেরিয়ার জালে জড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে বাঁধভাঙা উল্লাসে মেতে উঠেন তিনি। এরপরই অসুস্থ হয়ে পড়েন আর্জেন্টাইন এ কিংবদন্তি।

ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যমের দাবি, দেশপ্রেম নয় বরং অভিনয়ের অংশ হিসেবেই এমন করেছেন তিনি। দেশটির সংবাদমাধ্যম এবার দাবি করেছে, মাঠে বসেই মাদক সেবন করেছেন আর্জেন্টিনা ফুটবলের বরপুত্র!

আর্জেন্টিনা-নাইজেরিয়া ম্যাচে ভিআইপি বক্সে থাকা প্রত্যক্ষদর্শীদের সূত্র দিয়ে ব্রিটিশ গণমাধ্যম দ্য সান জানিয়েছে, নাইজেরিয়া ম্যাচ চলাকালে কোকেন গ্রহণ করেছেন দিয়েগো ম্যারাডোনা। আর্জেন্টাইন ফুটবল ইশ্বরের পাশে থাকা রোনান নামে একজন টুইটারে একটি ভিডিও শেয়ার করেছেন। যেখানে দেখা যাচ্ছে, ম্যারাডোনা অন্য একজন দর্শকের হাত থেকে কিছু একটা নিচ্ছেন। রোনাল দাবি করেছেন, 'ম্যারাডোনা ওই দর্শকের কাছ থেকে কোকেন নিয়েছেন।'


এর কিছুক্ষণ পরই অসুস্থ হয়ে পড়েন ম্যারাডোনা। ব্রিটিশ বেশ কয়েকটি গণমাধ্যম দাবি করেছে, ম্যারাডোনা গ্যালারিতে যা করছেন তা সবই অভিনয়! চিত্রপরিচালক আসিফ কাপাডিয়া ম্যারাডোনার ওপর একটি প্রামাণ্য চলচ্চিত্র তৈরি করছেন। চ্যানেল ফোর এই চলচ্চিত্রের অর্থায়ন করছে। সেই চলচ্চি্ত্রের অংশ হিসেবেই মাঠে হাত পা ছুড়াছুড়ি করেছেন তিনি।

এমন দাবি সপক্ষে প্রমাণও দেখিয়েছে গণমাধ্যমগুলো। একজন জানিয়েছেন, 'খেলার আগে থেকেই স্ট্রেচার, অ্যাম্বুলেন্স তৈরি রাখা হয়েছিল। অথচ সেখানে সবকিছুই স্বাভাবিকই ছিল।'  খেলার প্রায় শেষ সময়ে 'রক্তচাপ বেড়ে' যায় ম্যারাডোনার। দ্রুতই হাসপাতালে নেওয়া হয় তাকে। অবশ্য দ্রুত ছাড়াও পেয়ে যান সাবেক এই ফুটবলার। এরপরই বিমানে বসেন তিনি। এ সময় তার পাশে ময়দা জাতীয় পদার্থ দেখা গেছে। অনেকের দাবি প্যাকেটে রাখা সাদা পদার্থটি আর কিছু নয়, 'কোকেন'।

আর্জেন্টিনা-নাইজেরিয়া ম্যাচে বর্ণবাদে অভিযোগও রয়েছে ম্যারাডোনার বিপক্ষে। মেসিদের জয়সূচক গোলটি হওয়ার পরই দর্শকদের উদ্দেশ্যে 'মিডল ফিঙ্গার' প্রদর্শন করে তিনি। সাবেক এই ফুটবলারের অশালীন অঙ্গুলি প্রদর্শন ভালোভাবে নেননি কেউই। এছাড়া ধূমপানমুক্ত স্টেডিয়ামে ধূমপান করা, কোরিয়ার সমর্থকদের উদ্দেশ্যে অশালীন অঙ্গভঙ্গিসহ একাধিক অভিযোগ উঠেছে দিয়েগো ম্যারাডোনার বিরুদ্ধে। মাঠে বসে ম্যারাডোনাকে আচরণ সংযত করার পরামর্শ দিয়েছে ফিফা। ফ্রান্স-আর্জেন্টিনা ম্যাচে একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি করলে জরিমানা হতে পারে ফুটবলের সবচেয়ে বড় তারকার।

সূত্র: সমকাল

আর/১০:১৪/৩০ জুন