Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শনিবার, ৮ আগস্ট, ২০২০ , ২৪ শ্রাবণ ১৪২৭
হাস্যরসে ভরপুর লেখা দিতে লগইন/রেজিষ্টার করুন

হাসিখুশি ক্লাব -> General

তোমার মনের খবর বুঝি!

ক্লাসে বল্টুর প্রথম দিন- (এক ছাত্রীর পাশে গিয়ে)- বল্টু- আমি কি তোমার পাশে বসতে পারি? ছাত্রী- (চিৎকার করে) না তুমি এক রাতের জন্য আমার কাছে থাকতে পারো না!! (বল্টু শুনে খুব বিব্রত বোধ করল এবং ক্লাসের বাকিরা বল্টুর দিকে বাঁকা চোখে তাকিয়ে রইলো।)  কিছুক্ষণ পরে মেয়েটি বল্টুর কানের কাছে এসে বললো, 'আমি সাইকোলজির ছাত্রী, তাই তোমার মনের খবর বুঝি!!' --  এই কথা শুনে বল্টুর চিৎকার- বলে উঠল- 'কী মাত্র এক রাতের জন্য ২০,০০০ টাকা!!' -- মেয়েটির দিকে এবার সারা ক্লাস আড়চোখে তাকিয়ে, মেয়েটি ভীষণ লজ্জা পেলো। ---  একটু পরে বল্টু মেয়েটির কানের কাছে গিয়ে বললো, আমি আইনের ছাত্র তাই বুঝি কী-ভাবে মানুষকে দোষী করতে হয়!!

“ঘুম” আসেনা!

স্যার, আমার ঘুম আসেনা! ৪ দিন ধরে কি করবো? “ঘুম” আসেনা! তা আমার কাছে কি? তুই ডাক্তারের কাছে যা! থানায় আইছোত ক্যা? ও.কে..যাইতেছি!. “ডাক্তার সাহেব, ঘুম” ৪ দিন আসেনা! আমি একটি ঔষধ লিখে দিচ্ছি, প্রতিদিন রাতে খাওয়ার পর খাবেন। দেখবেন সব ঠিক হয়ে গেছে। এক সপ্তাহ পর আবার আসুন! ৭ দিন পর… ঝিমাইতে ঝিমাইতে ডাক্তার সাব, আমার “ঘুম” ‪‎আসেনা! কি করবো? আপনি তো এখনো ঝিমাইতেছেন! আবার বলছেন ঘুম আসেনা?? সত্যিই আমার “ঘুম” আসেনাই! আমি হাই পাওয়ারের কিছু ঔষধ লিখে দিচ্ছি, এগুলো খেয়ে এক সপ্তাহ পর আসেন! ৭ দিন পর… রোগীর বড় ভাইঃ ডাক্তার কে আপনি? ডাক্তারঃ হ্যাঁ, আমি। কেন কি সমস্যা? সমস্যা তো অনেক বড়! আপনি আমার ভাইয়েরে মাইরা ফেলছেন! ডাক্তারঃ মানে?? কি বলছেন কি? রোগীর বড় ভাইঃ মানে গত দুই সপ্তাহ ধরে আপনি আমার ভাইয়েরে হাই পাওয়ারের ঔষধ দিয়া দিয়া পুরা “ঘুম” ‪‎পড়াইয়া দিছেন! মৃত্যুর আগে সে আপনার নাম উল্লেখ করে চিঠি লিখে গেছে! ডাক্তারঃ সে তো বলছিল তাঁর “ঘুম” আসেনা! রোগীর বড় ভাইঃ ওরে ব্যাডা! ঘটনা না বুইঝা খালি ঔষধ দিলে চলবো? আমার ভাই “ক” রে “ঘ” কয় “ক” উচ্চারন করতে পারেনা! কিছু স্পেলিংএ ওর সমস্যা আছে। ও কইতে চাচ্ছিলো ওর বউয়ের কথা। ওর বউয়ের নাম “কুম” সে ১৮ দিন ধরে গায়েব! তাইতো তোমার কাছে আইছিলো! ডাক্তার চোক পাকিয়ে চেয়ার থেকে পড়ে গেলো!! আরও পড়ুনঃ আমার স্ত্রীকে না জাগিয়ে আমার ঘরে ঢুকল কিভাবে?

আমার স্ত্রীকে না জাগিয়ে আমার ঘরে ঢুকল কিভাবে?…

রাতে চোরকে আটক করল গৃহকর্তা। পুলিশে খবর দিয়ে তাদের হাতে দিয়ে দিলো। পরদিন সকালে সে থানায় গেল। তার বাসায় গত রাতে যে চোর ঢুকেছে, তার সাথে কথা বলতে চায়। পুলিশ: সে সুযোগ আপনাকে আদালতে দেওয়া হবে। লোক: না না, আমি ওই চোরের কাছ থেকে জানতে চাই, কিভাবে আমার স্ত্রীকে না জাগিয়ে আমার ঘরে ঢুকল। আমি কয়েক বছর ধরে চেষ্টা করছি। আরও পড়ুনঃ হারিকেন জ্বলাব কি দিয়ে?

হারিকেন জ্বলাব কি দিয়ে?

এক মাতাল সন্ধার দিকে পকেট থেকে ১টা ম্যাচ বের করে একের পর এক কাঠি ঘষে চললো। কিন্তু কোন কাঠিই জ্বলছে না । অবশেষে একটা কাঠি জ্বলে উঠলো। তখন সে অতিযত্নে কাঠিটা নিভিয়ে ম্যাচ বাক্সে রেখে দিল । কি রে, পোরা কাঠি আবার রেখে দিলি কেন ? আরে বন্ধু, পুরো ম্যাচে মাত্র একটা কাঠি ভাল। এখনি যদি ব্যবহার করে ফেলি তবে বাসায় যেয়ে হারিকেন জ্বলাব কি দিয়ে?  

দ্বিতীয় বিয়ে করার জন্য কী করুম?

বল্টু টেলিফোনে বিয়ে করানোর ব্যুরো খুলেছে। তাই প্রচার করছে এভাবে, ‘পাত্র-পাত্রী দেখার জন্য ১ টিপুন। এনগেজমেন্টের জন্য ২ টিপুন। আর বিয়ে করার জন্য ৩ টিপুন।’ তখন এক লোক বলল, ‘ভাই আমি দ্বিতীয় বিয়ে করার জন্য কী টিপুম?’ বল্টু বলল, ‘দ্বিতীয় বিয়ে করার জন্য প্রথম স্ত্রীর গলা টিপুন।’

আমার কলা কী দোষ করল?

চায়ের দোকানে বিক্রির জন্য কলা ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে। পাশের বিদ্যুৎ অফিসের এক প্রকৌশলী চা খাওয়ার সময় জিজ্ঞেস করলেন- প্রকৌশলী: কলার দাম কত? দোকানদার: কী কাজে কলা ব্যবহার করবেন, তার ওপর নির্ভর করছে কলার দাম। যদি কোনো মিলাদ বা ধর্মীয় কাজে নেন, তাহলে ২ টাকা পিস, রোগীর জন্য হলে ৩ টাকা পিস আর যদি নিজে খাওয়ার জন্য নেন, তবে ৫ টাকা। প্রকৌশলী: ইয়ার্কির জায়গা পাও না! একই কলার দাম আলাদা আলাদা হয় না-কি? দোকানদার: হয় স্যার! একই খুঁটি থেকে বিদ্যুৎ বাসায় গেলে একদর, দোকানে গেলে আরেক দর, কারখানায় গেলে আরও বেশি দর; তাহলে আমার কলা কী দোষ করল?  

আপনাকে কষ্ট দেওয়ার জন্য দুঃখিত!

এক ভদ্রলোকের গাড়ি পার্কিং থেকে চুরি হয়ে গেল। অনেক খোঁজাখুঁজি করেও গাড়ির হদিস পেলেন না। তবে দুই দিন পর হারানো গাড়িটাকে আগের জায়গায় দেখে অবাক। হারানো বাহন ফিরে পেয়ে ভীষণ আনন্দিত হয়ে দৌড়ে গাড়ির কাছে গেলেন। ড্রাইভিং সিটে একটা মুখবদ্ধ খাম। খুলে দেখলেন ভেতরে দেওয়া চিরকূটে লেখা, “মায়ের শরীর হঠাত্ খারাপ হয়ে যাওয়ায় হাসপাতালে নেওয়া প্রয়োজন হয়ে পড়েছিল। কিন্তু একে তো রাত, তার ওপর ছুটির কারণে কোনো গাড়ি না পাওয়ায় আপনার গাড়ি ব্যবহার করতে বাধ্য হয়েছিলাম। ” বিনীতি ভঙ্গিতে আরো লেখা রয়েছে, “আপনাকে কষ্ট দেওয়ার জন্য দুঃখিত। গাড়িতে যত পেট্রল ছিল, সব আগের মতো আছে। তা ছাড়া আপনার গাড়ির খারাপ তালাটাও ঠিক করে দিয়েছি। গাড়ি ব্যবহারের বিনিময়ে আপনার ও আপনার পরিবারের জন্য ১০টা সিনেমার টিকিট দিলাম। এই চিঠির খামের মধ্যেই সেগুলো পাবেন। টিকিটগুলো আগামীকালের, নাইট শো। আমি জানি, আপনার বাসার কাজের মেয়েসহ আপনারা ১০ জন। আপনাদের খাবারের জন্য রাখা আছে সিনেমা হলের ফুড কোর্টের ভাউচারও (বিল পরিশোধিত)। সিনেমা দেখার পর যা ইচ্ছা খেয়ে নেবেন। ” সব শেষে আবারো বিনীত অনুরোধ, “আমার অনন্যোপায় অপরাধের জন্য ক্ষমা করে দেবেন!” ১৫ লাখ টাকা দামী গাড়িটা ফেরত পাওয়ায় পরিবারের সবাই ভীষণ খুশি। পরদিন উপহার পাওয়া টিকিট নিয়ে চলে সবাই গেল সিনেমা দেখতে। ছবি দেখা শেষ করে মনের মতো স্পেশাল চিকেন-রাইস-কফি-আইসক্রিম খেয়ে বের হল সবাই; কিন্তু গাড়ি তো নেই পার্কিংয়ে। আবারো চুরি হলো গাড়িটা!? উপায় না পেয়ে ট্যাক্সি ডেকে বাড়ি ফিরে তারা দেখলো, ফ্ল্যাটের দরজা ভাঙা। ঘরের সব দামি জিনিস, আসবাবপত্র, নগদ টাকা, গয়না চুরি হয়ে গেছে। ক্ষতি প্রায় কোটি টাকা। বাইরে টেবিলে একটি খাম পড়ে আছে। তাতে লেখা, “সিনেমা কেমন দেখলেন? গাড়িটা আবার চুরি করে নিয়ে গেলাম। আপনি কেন গাড়ির লক আর চাবি বদলাতে ভুলে গেলেন? ওদিকে বাসা একেবার ফাঁকা রেখে কেউ সিনেমা দেখতে যায়? দেখলেন তো, এতটুকু বোকামির জন্য কত বড় ক্ষতি হয়ে গেল। আরও পড়ুনঃ জরিমানা দিতে আবার পকেট মারবে

শুরু হয়ে গেল

অফিস থেকে বাড়ি ফিরে স্বামী বলল, ‘শুরু করার আগে ভাতটা দাও, খেয়ে নিই।’ স্ত্রী ভাত বেড়ে দিল। ভাত খেয়ে স্বামী ড্রয়িংরুমের সোফায় বসতে বসতে বলল, ‘শুরু করার আগে এক গ্লাস পানি দাও…বড্ড তেষ্টা পেয়েছে।’ স্ত্রী পানি দিয়ে গেল। পানি খেতে খেতে স্বামী বিছানায় গিয়ে শুয়ে পড়ল। তারপর বলল, ‘শুরু করার আগে এক কাপ চা দাও না আমাকে।’ এইবার স্ত্রী গেল খেপে, ‘অ্যাই, পেয়েছ কী তুমি আমাকে, আমি তোমার চাকর? অফিস থেকে ফিরে একটার পর একটা খালি অর্ডার মেরেই যাচ্ছ…নির্লজ্জ, অসভ্য, ছোটলোক, স্বার্থপর…’ স্বামী কানে তুলা গুঁজতে গুঁজতে বলে, ‘এই যে…শুরু হয়ে গেল।’

পৃথিবীতে সবেচেয়ে গরিব কে?

শিক্ষক: বল তো পৃথিবীতে সবচেয়ে গরিব কে? পিন্টু: স্যার, নিশ্চিত কইরা কইতে পারি না, তবে... শিক্ষক: অনিশ্চিত করেই বল, শুনি! পিন্টু: স্যার, যারা ফেসবুকে নিজের ছবি দিয়া কয়, পিকটা কেমন হলো বলুন? শিক্ষক: তারা গরিব হয় কিভাবে? পিন্টু: কারণ তাদের ঘরে একটা আয়নাও নাই...

জরিমানা দিতে আবার পকেট মারবে

ম্যাজিস্ট্রেট: ২০ টাকা পকেট মারার জন্য তোমাকে একশ টাকা জরিমানা করা হলো। পকেটমার: স্যার, আমার কাছে মাত্র ২০ টাকা আছে। ম্যাজিস্ট্রেট: ২০ টাকায় হবে না। পকেটমার: বাকি টাকা এখনই এনে দিতে পারি, কিন্তু কিছুক্ষণের জন্য ছাড়তে হবে।

চার ধরনের মেয়ে খুঁজে পাওয়া অসম্ভব

বিকেলে দুই বন্ধুর মধ্যে কথা হচ্ছে। প্রথম বন্ধু মেয়েদের সম্পর্কে বলল- প্রথম বন্ধু: চার ধরনের মেয়ে খুঁজে পাওয়া প্রায় অসম্ভব। দ্বিতীয় বন্ধু: তারা কারা? প্রথম বন্ধু: তারা হলেন- ১. যে মেয়ে তার বয়ফ্রেন্ডকে মিসকল কখনোই দেয় না! ২. যে মেয়ে শপিং করতে পছন্দ করে না! ৩. যে মেয়ের মনে কোনো হিংসা নেই! ৪. যে মেয়ে উপরের তিনটি কথা পড়ার পরেও মাথা ঠান্ডা রাখতে পারে!

শুকনো কাঠ পরীক্ষার উপায়

প্রচণ্ড শীতে বাজার থেকে জ্বালানি কিনলেন কামাল। সবগুলো চাপালেন গাধার পিঠে। তারপর গাধার সঙ্গে হেঁটে হেঁটে রওনা দিলেন। হঠাৎ তার মনে হলো, কাঠগুলো যথেষ্ট শুকনো কি-না? ভাবতে ভাবতেই ম্যাচের কাঠি জ্বালিয়ে এক টুকরো কাঠের পাশে ধরলেন। সঙ্গে সঙ্গে দাউ দাউ করে জ্বলে উঠল কাঠের আঁটি। আগুনের ভয়ে কামালের গাধা প্রাণভয়ে ছুটল। কামাল গাধার দিকে তাকিয়ে চিৎকার করে বললেন, ‘ওরে গাধা, তোর জায়গায় আমি থাকলে বাজারের পাশের দীঘিটার দিকে যেতাম!’

 1 2 3 >  শেষ ›
Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে