পশ্চিমবঙ্গ

জরুরি বিভাগের সামনেই ছটফট করেই বিশ্বজিত্ দাসের মৃত্যু

কলকাতা, ২৭ জুলাই- জরুরি বিভাগের সামনেই ছটফট করে রোগীর মৃত্যু। মেঝেতেই দীর্ঘক্ষণ পড়ে রইল রোগীর নিথর দেহ। মৃত্যুতে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের চরম উদাসীনতার অভিযোগ তুলল পরিবার। কোচবিহারের মাথাভাঙা হাসপাতালে (Mathabhanga Hospital) ব্যাপক উত্তেজনা। মৃত ব্যক্তির নাম বিশ্বজিত্ দাস।

তিন দিন ধরেই হাসপাতালে জেনারেল ওয়ার্ডে ভর্তি ছিলেন বিশ্বজিত্ দাস। হাসপাতাল সূত্রে খবর, সকালে ডিউটি সিফটিংয়ের সময়ে সকলের অলক্ষ্যে বেড থেকে নেমে হাসপাতালের জরুরি বিভাগের সামনে চলে আসার চেষ্টা করেন বিশ্বজিত্। জরুরি বিভাগের গেটের সামনে পড়ে যান। সেখানে বেশ কিছুক্ষণ ছটফট করেন তিনি।

ততক্ষণে খবর যায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কাছেও। কিন্তু প্রত্যক্ষদর্শীরা জানাচ্ছেন, বিশ্বজিত্ বেশ কিছুক্ষণ মাটিতে পড়ে ছটফট করতে থাকেন। কিন্তু তাঁকে হাসপাতালের কোনও কর্মী তুলে ভিতরে নিয়ে যাননি। ওয়ার্ড বয়, হাসপাতাল কর্মী সবাই ‘আমাদের কাজ নয়’ বলেই এড়িয়ে যান, অভিযোগ পরিবারের। কিছুক্ষণ পর সেখানেই পড়ে থেকে মৃত্যু হয় বিশ্বজিতের। ঘটনায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের চরম উদাসীনতার ছবি প্রকাশ্যে এসেছে।

খবর পৌঁছয় রোগীর আত্মীয়দের কাছে। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে চরম উদাসীনতার অভিযোগ তুলে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন পরিবারের সদস্যরা। হাসপাতালে উত্তেজনা ছড়ায়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় পুলিশ। গোটা হাসপাতাল ঘিরে রাখা হয়েছে। তবে এখনও পর্যন্ত এই ঘটনার প্রেক্ষিতে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কোনও বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

সূত্রঃ TV9 BANGLA DIGITAL

আর আই

Back to top button