হলিউড

মারা গেলেন ‘গ্লাডিয়েটর’ অভিনেতা

গ্লাডিয়েটর ও ব্রেভহার্টের মতো ব্লকবাস্টার সিনেমায় অভিনয় করে সারা বিশ্বে পরিচিতি পান মাইক মিচেল। এ স্কটিশ অভিনেতাকে মৃত পাওয়া গেল তুরস্কের একটি রিসোর্টে। যেখানে তিনি ছুটি কাটাতে গিয়েছিলেন।

অভিনেতার বয়স হয়েছিল ৬৫ বছর।

স্থানীয় ডেইলি সাবাহ সূত্রের বরাত গিয়ে রবিবার জানায়, গোসলের সময় হার্ট অ্যাটাকে আক্রান্ত হন মাইক।

ডেডলাইন জানায়, স্ত্রী ডেনিসসহ রিসোর্টের একটি ওয়াটারক্রাফটে থাকছিলেন মাইক। সেখানেই তিনি মারা যান।

ওই রিসোর্টের পরিচালক বুরাক আর্ডাহান জানান, মাইক অনেকক্ষণ গোসলখানা থেকে বের না হওয়ায় চিন্তিত হয়ে পড়েছিলেন। পরে ভেতরে ঢুকে দেখতে পান তিনি মেঝেতে পড়ে আছেন। এর পরপরই স্বাস্থ্যকর্মী ডাকা হয়। তারা জানান, অভিনেতা মারা গেছেন।

মাইকের মৃতদেহ মর্গে রাখা হয়েছে। ময়নাতদন্তের পর স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

ঘটনার পরপরই পুলিশ তদন্তে নামে। তারাও ধারণা করছেন, হার্ট অ্যাটাকেই অভিনেতার মৃত্যু হয়েছে।

এ দিকে অভিনেতার মুখপাত্র এক বিবৃতিতে বলেন, মাইকের মতো আন্তর্জাতিক তারকার আকস্মিক মৃত্যু বিশ্বাস করা কঠিন। তিনি একজন সৎ মানুষ, সত্যিকারের অভিনেতা, একজন সত্যিকারের বন্ধু।

ক্যারিয়ারের শুরুতে বডিবিল্ডার হিসেবে মাইক মিচেল পরিচিতি পান। তিনি মিস্টার ইউনিভার্স খেতাব জিতেছিলেন। সঙ্গে রয়েছে ব্রিটেনস স্ট্রংগেস্ট ম্যানের খেতাব। পাঁচবার জিতেছেন মাস্টার্স মিস্টার ওয়ার্ল্ড। এ ছাড়া একাধিক খেতাব ছিল তার ঝুলিতে। ২০১০ সালে ওয়ার্ল্ড ফিটনেস ফেডারেশন তাকে সর্বোচ্চ সম্মাননা ‘লিভিং লিজেন্ড অ্যাওয়ার্ড’-এ ভূষিত করে।

ব্রেভহার্ট ও গ্লাডিয়েটর ছাড়াও তাকে দেখা গেছে ওয়ান ডে রিমুভালস, সিটি অব হেল, দ্য প্ল্যানেট, এমারডেল ও লাইফ অন দ্য লাইনসহ বেশ কিছু ছবিতে।

এন এইচ, ২৬ জুলাই

Back to top button