চট্টগ্রাম

বাঁশখালীতে নারীকে কুপিয়ে হত্যা, শিশুসহ আহত ৩

চট্টগ্রাম, ১২ জুলাই – চট্টগ্রামের বাঁশখালীতে ফাতেমা বেগম (৪৬) নামে এক নারীকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। এ সময় কুপিয়ে জখম করা হয় আরও তিনজনকে। সোমবার সকালে বাঁশখালীর শীলকুপ এলাকার দাস পাড়ায় এ ঘটনা ঘটে।

এ হত্যাকাণ্ডের পরপরই হামলাকারী এহসান (২৮) নামে এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ।

বাঁশখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শফিউল কবির এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

নিহত ফাতেমা বেগম চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলার শীলকুপ দাস পাড়া এলাকার মোস্তাক আহমেদ সিকদারের স্ত্রী। আহতরা হলেন- রাবিয়া বেগম (৪০) জান্নাতুল ফেরদৌস (২২) ও শিশু বৃষ্টি (৯)।

পুলিশ কর্মকর্তা শফিউল কবির জানান, ফাতেমা আক্তার মানুষের বিভিন্ন রোগের তাবিজ দিতেন। এক বছর আগে এহসান তার কাছ থেকে তাবিজ নিয়েছিলেন। কিন্তু তাতে এহসানের কোনো কাজ হয়নি।

এই নিয়ে সোমবার সকালে ফাতেমার বাসায় এসে বাকবিতণ্ডায় জড়ান এহসান। একপর্যায়ে তিনি ফাতেমাকে এলোপাতাড়ি কোপাতে শুরু করেন। এ সময় বাধা দিতে গেলে আরও তিনজনকে কুপিয়ে জখম করেন। খবর পেয়ে ফাতেমাসহ চারজনকে উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ফাতেমাকে মৃত ঘোষণা করেন। ঘটনার পরপরই হামলাকারী এহসানকে আটক করা হয়।

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই শীলব্রত বড়ুয়া জানান, বাঁশখালী থেকে আহত অবস্থায় চারজনকে হাসপাতালের জরুরি বিভাগে আনা হয়। এর মধ্যে ফাতেমাকে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। বাকি তিনজন হাসপাতালে ভর্তি আছেন। তাদের অবস্থাও গুরুতর।

তিনি বলেন, নিহত ফাতেমার মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য চমেক হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে।

সূত্র: বাংলাদেশ জার্নাল
এম ইউ/১২ জুলাই ২০২১

Back to top button