ফুটবল

মানচিনির প্রশংসায় সাউথগেট

ফুটবল শুধু মাঠের খেলা নয়, দুই প্রতিপক্ষ দলের কোচের মাথার খেলাও। সেই খেলায় যিনি যত নিখুঁত পরিকল্পনা আঁটতে পারবেন এবং যত ভালোভাবে সেই পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে পারবেন, তিনিই হাসবেন শেষ হাসি।

এবারের ইউরোয় নিঃসন্দেহে দুই সেরা কোচ রবার্তো মানচিনি এবং গ্যারেথ সাউথগেট। তাদের নিখুঁত পরিকল্পনায় এ পর্যন্ত ইউরোর ফাইনালে এসে পৌঁছেছে ইতালি এবং ইংল্যান্ড। ফাইনালে কে শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন করবেন? ৯০ মিনিটের লড়াই শেষে সেটাই প্রমাণ হয়ে যাবে। তবে তার আগে ইতালি কোচ রবার্তো মানচিনির উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করলেন ইংলিশ কোচ গ্যারেথ সাউথগেট।

আর মাত্র কয়েকঘণ্টা পরই ইউরোর শিরোপা লড়াইয়ে নিজেদের দলকে ডাগআউট থেকে পরিচালনা করতে দেখা যাবে গ্যারেথ সাউথগেট এবং রবার্তো মানচিনিকে। দুই ম্যানেজারই রিমোট কন্ট্রোল হাতে নিয়ে দুই জাতীয় দলের ভাগ্য বদলে দিতে সক্ষম হয়েছেন।

ইংল্যান্ডের পাঁচ বছর আগে ইউরো হতাশার পর দলকে বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে পৌঁছে দেওয়ার পাশাপাশি এই ইউরোয় ৫৫ বছর পর কোন টুর্নামেন্টের ফাইনালে পৌঁছতে অন্যত ভূমিকা পালন করেছেন সাউথগেট।

অন্যদিকে, মানচিনির আগের ইতালির ছবিটা আরও খারাপ। ২০১৮ সালের বিশ্বকাপের যোগ্যতাই অর্জন করতে পারেনি ইতালি। এরপর দলের দায়িত্ব নিয়ে বর্তমানে টানা ৩৩ ম্যাচ অপরাজিত।

প্রথাগত ডিফেন্স প্রধান ফুটবলে আমুল পরিবর্তন এনে মানচিনির ইতালির খেলা অনেক দৃষ্টিনন্দন, আকর্ষক। চেনা-পরিচিত ইতালিয়ান ঘরানার ফুটবলের বদলে মানচিনি আজ্জুরিদের বর্তমান ফুটবলে আধুনিকতা এনেছেন বলেই মনে করছেন তার প্রতিপক্ষ ম্যানেজার সাউথগেট।

সাউথগেট বলেন, ‘ওরা দারুণ উদ্যম এবং এনার্জি নিয়ে নিজেদের ফুটবলটা খেলে। পরিকল্পনার দিক থেকে দেখতে গেলে ইতালিয়ান দল বরাবরই খুব ভাল। তবে ওরা বর্তমানে যে ধরনের ফুটবল খেলে, তা বাকি সকল ইতালিয়ান দলের থেকে আলাদা, অনেক বেশি আধুনিক।’

পাশাপাশি ইতালি এবং ইংল্যান্ড যোগ্য দল হিসাবেই ফাইনালে শিরোপা জয়ের লক্ষ্যে মাঠে নামবে বলে ধারণা সাউথগেটের। ‘আমি বিগত দু’বছর ধরে ইতালির খেলা খুব ভালভাবে লক্ষ্য করছি। আমি জানি মানচিনি ওদের হয়ে দুর্দান্ত কাজ করছে। ওরা দলগতভাবে দুর্দান্ত। আমার মনে হয় টুর্নামেন্টের দুই সেরা দলই ফাইনালে নিজেদের জায়গা পাকা করতে সক্ষম হয়েছে’- দাবি ইংল্যান্ড কোচের।

সূত্র : জাগো নিউজ
এন এইচ, ১১ জুলাই

Back to top button