ক্রিকেট

দ্বিতীয় ম্যাচেও অস্ট্রেলিয়াকে উড়িয়ে দিয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ

প্রথম ম্যাচের মতো দ্বিতীয় ম্যাচেও পাত্তা পেল না ফিঞ্চের অস্ট্রেলিয়া। দ্বিতীয় ম্যাচেও অস্ট্রেলিয়াকে এক কথায় উড়িয়ে দিয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। যাতে পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেল নিকোলাস পুরানের দল।

বাংলাদেশ সময় আজ রোববার ভোরে অনুষ্ঠিত এ ম্যাচে আগে ব্যাটিং করে ৪ উইকেটে ১৯৬ রান তুলে ফেলে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। জবাবে অস্ট্রেলিয়া অলআউট হয় ১৪০ রানে। ওয়েস্ট ইন্ডিজ পেয়েছে ৫৬ রানের জয়।

এদিন ড্যারেন স্যামি জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস জিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে আগে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ জানায় অস্ট্রেলিয়া। এভিন লুইসের বদলে সুযোগ পাওয়া আন্দ্রে ফ্লেচার ৯ রান করে বোল্ড হন অ্যাস্টন আগারের বলে। নামের প্রতি সুবিচার করতে ব্যর্থ হন গেইলও। ১৬ বলে ১৩ রান করে তিনিও বোল্ড হন মিচেল মার্শের বলে। তার আগে লেন্ডল সিমন্স ফেরেন ২১ বলে ৩১ রান করে। ফলে ৫৯ রানেই ৩ উইকেট হারায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

সেখান থেকে ৬১ বলে ১০৩ রানের জুটি গড়েন শিমরন হেটমায়ার ও ডোয়াইন ব্রাভো। ৩৬ বলে ৬১ রান করে রান আউটের খাঁড়ায় পড়েন হেটমায়ার। দুই ব্যাটসম্যানের ভুল বোঝাবুঝিতে রান আউট হয়ে ফিরতে হয় তাকে। তার ইনিংসটি সাজানো ছিল ২টি চার ও ৪টি ছক্কায়।

ইনিংসের ১৩ বল বাকি থাকতে মাঠে নামেন আন্দ্রে রাসেল, খেলেন স্বভাবসুলভ এক ক্যামিও ইনিংস। ২ চার ও ২ ছক্কায় রাসেলের ব্যাট থেকে আসে ৮ বলে অপরাজিত ২৪ রান। অপরপ্রান্তে ব্রাভো অপরাজিত থাকেন ৩৪ বলে ৪৭ রান করে। তার ব্যাট থেকে আসে ১টি চার ও ৩টি ছক্কা।

এই তিন ক্যারিবীয় ব্যাটসম্যানের ঝড়ে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৪ উইকেটে ১৯৬ রান জড়ো করে উইন্ডিজ। একটি করে উইকেট পান মার্শ, আগার ও জশ হ্যাজলউড। ৪ ওভারে ৪৯ রান খরচ করেও উইকেটহীন মিচেল স্টার্ক।

বড় লক্ষ্যের জবাব দিতে নেমে রানের খাতা খোলার আগেই শেলডন কোটরেলের শিকার হন আগের ম্যাচে ঝড় তোলা ম্যাথু ওয়েড। ৮ বলে ৬ রান করে ফিদেল এডওয়ার্ডসের বলে বোল্ড হয়ে ফেরেন অ্যারন ফিঞ্চ। আর হেইডেন ওয়ালশের স্পিনে বোল্ড হয়ে ফেরেন জশ ফিলিপও। ফলে অস্ট্রেলিয়াও ৫৮ রানে হারায় ৩টি উইকেট।

তবে এরপর জয়ের লক্ষ্য ছুঁতে অজিদের ছিলেন না হেটমায়ার-ব্রাভো-রাসেলের মতো মারকুটে ব্যাটসম্যানরা। যদিও ম্যাচে কিছুটা ধরে রেখেছিলেন মিচেল মার্শ। তবে ওয়ালশকে উড়িয়ে মারতে গিয়ে তিনিও আউট হয়ে যান। ফেরার আগে ৫ চার ও ১ ছক্কায় করেন ৪২ বলে ৫৪ রান। তাইতো মার্শ ফেরার পরে আর ঘুরে দাঁড়াতে পারেনি অস্ট্রেলিয়া।

আগেই জয় নিশ্চিত করে ফেলাই শেষ ওভারে বোলিংয়ে আসেন গেইল। জশ হ্যাজলউডকে বোল্ড করে অজিদের কফিনে শেষ পেরেকটি ঠুকে দেন ইউনিভার্সাল বস। অস্ট্রেলিয়া অলআউট হয় ১৪০ রানে। অর্থাৎ শেষ ৩৯ রান তুলতেই ৭টা উইকেট হারায় সফরকারীরা।

যাতে ৫৬ রানের জয়ে পাঁচ ম্যাচের সিরিজে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে যাওয়া উইন্ডিজের পক্ষে ওয়ালশ ৩টি, কোটরেল ২টি এবং ব্রাভো, রাসেল ও গেইল একটি করে উইকেট শিকার করেন। তবে ম্যাচ সেরা খেলোয়াড় হয়েছেন বাঁহাতি ব্যাটসম্যান শিমরন হেটমায়ারই।

দুদলের মধ্যকার তৃতীয় ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে আগামী ১৩ জুলাই এই গ্রস আইলেটেই, বাংলাদেশ সময় ভোর সাড়ে পাঁচটায়। একই মাঠে একই সময়ে চতুর্থ ও পঞ্চম টি-টোয়েন্টি ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে আগামী ১৫ ও ১৭ জুলাই। এরপর শুরু হবে দল দুটির মধ্যে ওয়ানডে সিরিজ।

সূত্রঃ একুশে

আর আই

Back to top button