কক্সবাজার

উখিয়ায় জব্দ করা টমটম চালকদের জরিমানার বদলে খাদ্য সামগ্রী তুলে দিয়েছে উপজেলা প্রশাসন

কক্সবাজার, ০৯ জুলাই – কক্সবাজারের উখিয়ায় জব্দ করা টমটম চালকদের জরিমানার বদলে খাদ্য সামগ্রী তুলে দিয়েছে উপজেলা প্রশাসন। বৃহস্পতিবার (৮ জুলাই) বিকেলে চালকদের হাতে জরুরি খাদ্য সহায়তা তুলে দেন জেলা প্রশাসক মামুনুর রশীদ।

এর আগে বিধিনিষেধ অমান্য করে টমটম নিয়ে ঘর থেকে বের হয়ে সকাল থেকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের কাছে আটক হন ৪০ জন টমটম চালক। পরে তাদের শহীদ মিনার এলাকায় জড়ো করা হয়। বিকেল পর্যন্ত অপেক্ষার পর জরিমানা কিংবা সাজার পরিবর্তে উখিয়া উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে চালকদের হাতে জরুরি খাদ্য সহায়তা তুলে দেন জেলা প্রশাসক। এসময় করোনার প্রাদুর্ভাব সম্পর্কে সতর্ক করে বাসা থেকে বের না হওয়ার অনুরোধ জানান। আর খাবার দরকার হলে ৩৩৩ নম্বরে কল করতে পরামর্শ দেন জেলা প্রশাসক।

টমটম চালাক আলী আকবর বলেন, দুদিন আগে এক টমটম চালাকসহ তিনজন সাজা নিয়ে কারাগারে গেছেন। আমরাও নিশ্চিত ধরে নিয়েছি জরিমানা করা হবে। পকেটে টাকা নেই, জরিমানা দিতে না পারলে সাজা খাটতে হবে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত যা হলো তার জন্য আমরা কেউ প্রস্তুত ছিলাম না।

এ বিষয়ে জেলা প্রশাসক মামুনুর রশীদ বলেন, বিধিনিষেধ বাস্তবায়নে কঠোরতার পাশাপাশি কর্মহীন মানুষদের সহায়তা প্রদান করছে সরকার। ২১টি ক্যাটাগরি বিবেচনা করে সহায়তা প্রযোজ্য মানুষদের জরুরি এই সাহায্য দেয়া হচ্ছে।

উখিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নিজাম উদ্দিন আহমেদ বলেন, মানবিক বিবেচনায় আমরা আটক টমটম চালকদের নিত্যপ্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী প্রদান করেছি। লকডাউনে খাবার না থাকায় ৩৩৩ নম্বরে কল করা উপজেলার শতাধিক মানুষকে খাদ্য সহায়তা পৌঁছে দেয়া হয়েছে।

লকডাউনে বিধিনিষেধ ভঙ্গ করায় প্রথম সাতদিন উখিয়ায় ১২২ মামলায় এক লাখ ৭৬ হাজার টাকা জরিমানা ও তিনজনকে বিনাশ্রমে কারাদণ্ড দেয় ভ্রাম্যমাণ আদালত।

তথ্যসূত্র: জাগো নিউজ
এস সি/০৯ জুলাই

Back to top button