ঢাকা

মৃত শিশুর নড়ে ওঠা একটি দৈব ঘটনা

ঢাকা, ২০ অক্টোবর- দাফনের সময় শিশুটির নড়ে ওঠার বিষয়টি একটি দৈব ঘটনা উল্লেখ করে ডিএমসির পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এ কে এম নাসির উদ্দিন জানিয়েছেন, দাফনের সময় জীবিত উদ্ধার নবজাতককে মৃত ঘোষণার বিষয়ে চিকিৎসকদের কিছুটা ব্যর্থতা ছিল। তবে তাদের দায়িত্বে অবহেলা ছিলো না।

মঙ্গলবার দুপুরে হাসপাতাল পরিচালক এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, দাফনের সময় শিশুটির নড়ে ওঠার বিষয়টি একটি দৈব ঘটনা। দোষীদের বিরুদ্ধে প্রশাসনিক ব্যবস্থা নিতে তদন্ত কমিটি সুপারিশ করেছে বলেও জানান তিনি।

দাফনের সময় সদ্যজাত মরিয়মের জীবিত ফিরে আসার ঘটনা চমকে দিয়েছে চিকিৎসকদেরও। গণমাধ্যমে সংবাদ প্রচারের পর এ ঘটনা তদন্তে ১৬ অক্টোবর গঠন করা হয় ৪ সদস্যের কমিটি। তাদের তদন্ত নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে হাসপাতাল পরিচালক এ কে এম নাসির উদ্দিন চিকিৎসকদের গাফিলতি না দেখলেও ব্যর্থতা ছিলো বলে জানান।

ঢাকা মেডিকেল কলেজের (ডিএমসি) এ কে এম নাসির উদ্দিন বলেন, এখানে চিকিৎসকদের ব্যর্থতা ছিলো। তা না হলে শিশুটা জীবিত ছিলো এবং আমাদের কাছে ফিরে এসেছে; জীবিত রয়েছে। তবে চিকিৎসকদের আন্তরিকতা ছিলো না।

আরও পড়ুন:  মৌলভীবাজারে চেয়ারম্যান পদে মিছবাহুর রহমান বিজয়ী

শিশুটি এখনো সংকটাপন্ন জানিয়ে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বলছে, বাবা-মার কোলে শিশুটিকে ফেরাতে চিকিৎসকরা সর্বোচ্চ চেষ্টা করা হচ্ছে।

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার ভোরে ঢাকা মেডিকেলে জন্ম নেয় শাহিনুর-ইয়াসিন দম্পতির কন্যা মরিয়ম। নির্দিষ্ট সময়ের আগে জন্ম নেয়া শিশুটিকে মৃত্যুসনদ দেয় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। এরপর বিআরটিসি বাস চালক বাবা ইয়াসিন রায়েরবাজার কবরস্থানে দাফনের জন্য কবরে নামাতে গেলে নড়ে ওঠে মরিয়ম। এরপর আবারো ঢাকা মেডিকেলে নিয়ে আসা হয় তাকে। শিশুটি এখন আশঙ্কাজনক অবস্থায় আইসিইউতে ভর্তি রয়েছে।

সূত্র: বাংলাদেশ জার্নাল

আর/০৮:১৪/২০ অক্টোবর

Back to top button