ব্যবসা

দেশের পুঁজিবাজারে সূচকের পতন

ঢাকা, ০৬ জুলাই – দেশের পুঁজিবাজারে টানা ৪ কার্যদিবস উত্থানের পর মঙ্গলবার (৬ জুলাই) সূচকের পতন হয়েছে। এদিন দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান সূচক কমেছে ২৩ পয়েন্ট। অপর পুঁজিবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সূচক কমেছে ৭৯ পয়েন্ট।

এর ফলে গত ২৭ জুনের পর আজ (৬ জুলাই) উভয় বাজারে সূচক কমলো। মাঝখানের চার কার্যদিবস পুঁজিবাজারে সূচকের উত্থান হয়েছে। লকডাউনের এদিন সূচকের পাশাপাশি কমেছে বেশির ভাগ কোম্পানির শেয়ারের দাম। তবে এ সূচক পতন থেকে রক্ষা করেছে ব্যাংক ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ইউনিট প্রতি শেয়ার। এই দুই খাতের প্রায় সব শেয়ারের দাম বেড়েছে। সে সুবাদে লেনদেন কিছুটা বেড়েছে।

এদিন আর্থিক প্রতিষ্ঠান খাতের তালিকাভুক্ত ২৩টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ২০টির শেয়ারের দাম বেড়েছে। আর দাম কমেছে ২টির, অপরিবর্তিত রয়েছে একটি প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের দাম। অপরদিকে ব্যাংক খাতের ৩১টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে দাম কমেছে ২৫টির, বেড়েছে ৩টির আর অপরিবর্তিতও রয়েছে তিনটি শেয়ারের দাম।

ব্যাংকের পাশাপাশি বিমা খাতের ৫১ এবং বস্ত্র খাতের ৫৮ প্রতিষ্ঠানের বেশির ভাগ দাম কমেছে। এই দুই খাতও সূচক পতনে ভূমিকা রেখেছে। তবে তার বিপরীতে সূচকের বৃদ্ধিতে অবদান রেখেছে মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার। মঙ্গলবার এ খাতের ৩৭টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৩৪টি প্রতিষ্ঠানের দাম বেড়েছে। একটি দাম কমেছে আর দুটির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে। আর তাতে বড় পতন থেকে রক্ষা পেয়েছে পুঁজিবাজার। তবে মঙ্গলবারের সূচক পতনকে মূল্য সংবেদনশীল বলে মনে করেন বাজার সংশ্লিষ্টরা। তারা বলছেন, টানা চারদিন পর আজ মূল্য সংশোধন হয়েছে। এটা পুঁজিবাজারের স্বাভাবিক ধারা।

মঙ্গলবার (৬ জুলাই) ডিএসইতে মোট ৩৭৪টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দাম বেড়েছে ১৪২টির, কমেছে ২২৪টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৮টির। এদিন মোট লেনদেন হয়েছে ১ হাজার ৭৮৯ কোটি ৭৪ লাখ ৪৩ হাজার টাকা। এর আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ১ হাজার ৫৫১ কোটি ৪৮ লাখ টাকা। অর্থাৎ আগের দিনের চেয়ে লেনদেন বেড়েছে।

বেশির ভাগ শেয়ারের দাম বাড়ায় এদিন ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স আগের দিনের চেয়ে ২৩ পয়েন্ট কমে ৬ হাজার ১৯৬ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। প্রধান সূচকের পাশাপাশি ডিএসইর অন্য সূচকগুলোর মধ্যে শরিয়াহ সূচক ১ দশমিক ৯৯ পয়েন্ট কমে ১ হাজার ৩২৬ পয়েন্টে এবং ডিএসই-৩০ সূচক ৩ পয়েন্ট বেড়ে ২ হাজার ২২৯ পয়েন্টে অবস্থান করছে।

এদিন ডিএসইতে লেনদেন হওয়া কোম্পানিগুলোর মধ্যে লেনদেনের শীর্ষে ছিল বেক্সিমকো লিমিটেড। এরপর বেশি লেনদেন হয়েছে লংকাবাংলা ফাইন্যান্সের শেয়ার। এরপর ক্রমান্বয়ে রয়েছে আমান ফিড, কেয়া কসমেটিকস, এমএল ডাইং লিমিটেড, লাফার্জহোলসিম, আলিফ ইন্ডাস্ট্রিজ, এপোলো ইস্পতি, ডেল্টা লাইফ ইনস্যুরেন্স এবং অলিম্পিক এক্সেসরিজ লিমিটেড।

অপরদিকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ৭৯ পয়েন্ট কমে ১৯ হাজার ৯৫৬ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। সিএসইতে লেনদেন হওয়া ৩১২টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে বেড়েছে ১৩৪টির, কমেছে ১৬৬টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১২টির শেয়ারের দাম। সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৮১ কোটি ৫ লাখ ৯ হাজার টাকা। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ৫২ কোটি ৬২ লাখ ৫২ হাজার টাকা।

তথ্যসূত্র: একুশে টিভি
এস সি/০৬ জুলাই

 

Back to top button