পশ্চিমবঙ্গ

জুলাইতে ১২ কোটি ভ্যাকসিন দেবে মোদি সরকার, বরাদ্দের তালিকার পশ্চিমবঙ্গ চতুর্থ

কলকাতা, ০১ জুলাই – দ্বিতীয় ঢেউয়ের ধাক্কা অনেকটাই স্তিমিত। এ বার যাবতীয় উৎকণ্ঠা করোনার তৃতীয় ঢেউকে কেন্দ্র করে। কবে যে এসে পড়বে, এই নিয়ে তটস্থ গোটা দেশবাসী। যত দ্রুত টিকাকরণ করা যাবে তত কম প্রভাব ফেলবে তৃতীয় ঢেউ। এমনটাই মত জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের। কিন্তু টিকা কোথায়? অন্যান্য রাজ্যের ছবিটা যেমনই হোক, এ রাজ্যে অন্তত তেমন কোনও ইতিবাচক দৃশ্য দেখা যাচ্ছে না। ভ্যাকসিনে আকালের মাঝেই বৃহস্পতিবার নতুন করে রাজ্যগুলির জন্য টিকা বরাদ্দ ঘোষণা করেছে কেন্দ্র। যার পর কার্যত স্পষ্ট, জুলাই মাসেও বর্তমান টিকাকরণের পরিস্থিতি খুব একটা বদলাবে না।

গত মাসেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ঘোষণা করেন, ২১ জুন থেকে ১৮ উর্ধ্বদের জন্যও রাজ্যগুলিকে বিনামূল্যে টিকা দেবে কেন্দ্রীয় সরকার। মোট যা টিকা উৎপাদন হবে, তার ৭৫ শতাংশ রাজ্যগুলিকে দেওয়া হবে। এবং বাকি ২৫ শতাংশ বেসরকারি হাসপাতালগুলিকে বিক্রি করা হবে। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় কেন্দ্রের পক্ষ থেকে রাজ্যগুলির জন্য জুলাই মাসের বরাদ্দের তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। যেখানে দেখা যাচ্ছে, জুলাই মাসে ৩৭ টি রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলকে মোট ১২ কোটি ভ্যাকসিনের ডোজ় সরবরাহ করা হবে।

এই ১২ কোটি ডোজ়ের মধ্যে পশ্চিমবঙ্গের জন্য ৯০.১২ লক্ষ ডোজ় বরাদ্দ করা হয়েছে। সঠিক সংখ্যাটা হল ৯০ লক্ষ ১২ হাজার ৬৮০। এর মধ্যে ৭৪ লক্ষ ৭৯ হাজার ১৯০ টি কোভিশিল্ড এবং ১৫ লক্ষ ৩৩ হাজার ৫১০ টি কোভ্যাক্সিনের ডোজ় দেওয়া হবে। মোট ৯০ লক্ষ ১২ হাজার ৬৮০ ডোজ়ের মধ্যে ২২ লক্ষ ৫৩ হাজার ১৮০ টি ডোজ় পাঠানো হবে বেসরকারি হাসপাতালগুলিকে। বাকিটা পাবে রাজ্য সরকার। বরাদ্দের তালিকায় প্রথম স্থানেই রয়েছে উত্তর প্রদেশ। ১ কোটি ৯১ লক্ষ ১৬ হাজার ৮৩০ টি ডোজ় যোগী রাজ্যের জন্য বরাদ্দ করেছে কেন্দ্র। দ্বিতীয় স্থানে থাকা মহারাষ্ট্রের জন্য বরাদ্দ হয়েছে ১ কোটি ১৫ লক্ষ ২৫ হাজার ১৭০। বরাদ্দের পরিমাণের নিরিখে তৃতীয় স্থানে রয়েছে বিহার। নীতীশের রাজ্যে বরাদ্দ হয়েছে ৯১ লক্ষ ৮১ হাজার ৯৩০ টি ডোজ়। চতুর্থ স্থানে পশ্চিমবঙ্গ।

এই বরাদ্দ খুব একটা আশার আলো দেখাতে পারছে না রাজ্যকে। কারণ, ৯০ লক্ষ ডোজ় রাজ্যে এলে সহজ অঙ্কে দিনপ্রতি গড়ে টিকাকরণের পরিমাণ সেই দাঁড়াবে ৩ লক্ষের কাছাকাছি। বর্তমানে রাজ্যে গড়ে প্রত্যেকদিন ৩ লক্ষ বা তার তার সামান্য বেশি মানুষ টিকা পাচ্ছেন। কখনও সেই পরিমাণ কমে যাচ্ছে। আজকের বরাদ্দের পর হলফ করেই বলা যায়, টিকাকরণের গতিবেগ বাড়ার কোনও সম্ভাবনা অন্তত জুলাই মাসে দেখতে পাওয়া যাচ্ছে না।

সূত্র : টিভি৯বাংলা
এন এ/ ০১ জুলাই

Back to top button