নেত্রকোনা

সুস্থ-সবল হয়েও প্রতিবন্ধী ভাতা তুলছেন স্বামী-স্ত্রী

নেত্রকোনা, ২১ জুন- তারু মিয়া ও তার স্ত্রী সমলা বেগম দুজনেই স্বাভাবিক মানুষদের মতো সুস্থ। কারো শারীরিক প্রতিবন্ধকতা না থাকলেও কাগজে-কলমে তারা প্রতিবন্ধী। দুজনের নামেই রয়েছে সরকারি প্রতিবন্ধী ভাতার কার্ড।

নেত্রকোনার মদন উপজেলার তিয়শ্রী ইউনিয়নের শিবপাশা গ্রামের মৃত কিতাব আলীর ছেলে তারু মিয়া ও তার স্ত্রী সমলা বেগম এভাবে প্রতারণার মাধ্যমে হাতিয়ে নিচ্ছেন সরকারি উপকারভোগীদের টাকা। স্থানীয় ইউপি সদস্য, চেয়ারম্যান ও উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তার প্রত্যয়নের পর সরকারি তালিকাভুক্ত হয়ে দীর্ঘদিন ধরে তারা এ ভাতা নিচ্ছেন।

স্থানীয়রা জানান, মদন উপজেলা সমাজসেবা কার্যালয়ে তারু মিয়ার প্রতিবন্ধী ভাতার বহি নং ১৫৩ ও তার স্ত্রী সমলা বেগমের বহি নং ১৫৭ । সব নিয়ম মেনে প্রতিবন্ধী ভাতাও তুলছেন নিয়মিত। সব মিলিয়ে তিন মাস পর পর সাড়ে চার হাজার টাকা ভাতা তুলে নিচ্ছেন এ দম্পতি। তবে এ বিষয়ে এলাকার কিছু সচেতন মানুষ জানলেও তারা প্রভাবশালী হওয়ায় কেউই মুখ খুলছেন না।
স্থানীয়রা আরও জানান, ভাতাভোগী স্ত্রী সমলা আক্তার ও তার স্বামী সুস্থ-সবল অবস্থায় বাড়িতেই আছেন। সমলার স্বামী স্বাভাবিকভাবেই সব কাজকর্ম করেন।

তদের নামে প্রতিবন্ধী ভাতার কার্ড আছে কি-না জানতে চাইলে সমলা বেগম বলেন, ‘তাদের দুজনের নামে ভাতার কার্ড আছে ও তারা নিয়মিত ভাতা উত্তোলন করছেন।’ তবে তারা প্রতিবন্ধী কি-না এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিষয়টি এড়িয়ে যান তিনি। তবে এ বিষয়ে কথা বলতে তার স্বামীকে পাওয়া যায়নি এখনও।

তথ্যসূত্র: বিডি২৪লাইভ
এস সি/২১ জুন

Back to top button