বলিউড

বলিউড ছাড়ার কারণ জানালেন রিয়া সেন

মুম্বাই, ১৯ জুন – মহানায়িকা সুচিত্রা সেনের ছোট নাতনি রিয়া সেন। সাঁতারের পোশাক কিংবা গা-ঢাকা পোশাক সবটাতেই মন্তব্য জুটেছে ‘মারাত্মক উষ্ণ’! শুধুই ছবি নয়, বলিউডে যে ক’টি ওয়েব সিরিজ, সিনেমা করেছেন তাতেও তার অভিনীত চরিত্র, তার নামের পাশে একই ট্যাগ। এই কারণেই কি একটা সময়ের পর বলিউডকে বিদায় জানাতে বাধ্য হন সুচিত্রা-নাতনি? শুক্রবার, সপ্তাহান্তের প্রথম দিন বলিউড সংবাদমাধ্যম সমস্ত প্রশ্নের জবাব হাজির করল রিয়ার জবানিতে। যেখানে রিয়ার দাবি, অভিনয় দুনিয়ায় আসার আগে থেকেই তার গায়ে এই তকমা। রিয়ার আফসোস, মাত্র ১৬ বছর বয়সে স্কুলে পড়ার সময় প্রথম শুনি, আমি সেক্সি! সেই শুরু। অত ছোট বয়স থেকে যৌনতার এই তকমা বহন করে চলতে হয়েছে আমায়। অভিনেত্রীর মতে, এই কথা শুনতে শুনতে হাঁফিয়ে উঠতেন তিনি। এর পরে অভিনয় দুনিয়ায় পা রাখেন রিয়া।

সেখানেও একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি। অভিনেত্রীর জবানিতে, তখন আমি খুবই ছোট। যা বলা হত, তাই করতাম। ছোট পোশাক পরতে রাজি হয়ে যেতাম। চড়া রূপসজ্জা করতাম। এতে তার ‘যৌন আবেদন’ যে আরও জোরালো হয়ে উঠত, বুঝতে পারেননি। রিয়ার অকপট স্বীকারোক্তি, আজ বুঝি, মুঠো মুঠো ছবিতে অভিনয়ের পরেও কেন হাতেগোনা কয়েকটি ছবি দর্শকদের প্রশংসা পেয়েছিল। সবাই কেন বলতেন, রিয়া বাজে অভিনেত্রী। কেবল যৌন আবেদনময়ী। দর্শক, সমালোচকদের কোনও দোষ নেই। আমাকে প্রায় সব ছবিতেই ওই ভাবে দেখানো হয়েছিল। অভিনয় থেকে অনেক দূরে থাকা অভিনেত্রী আজ যখন তার অভিনীত ছবি দেখেন, নিজেই সেটা বুঝতে পারেন। একই সঙ্গে লজ্জায় কুঁকড়ে যান। তার মনে হয়, যেটা তিনি নন সেটাই জোর করে দিনের পর দিন পর্দায় ফুটিয়ে তুলেছেন। এই জন্যে আগে রিয়াকে দেখলে নাকি লোকের আচরণ বদলে যেত। রিয়ার দাবি, সবাই মনে করতেন পর্দার আর বাস্তবের রিয়া এক। তিনি আর যৌনতা অভিন্ন। কিছুতেই কাউকে বোঝাতে পারতেন না, আদতে তিনি শরীরসর্বস্ব নন। তত দিনে অনেক দেরি হয়ে গিয়েছে। দর্শক মনে ছাপ ফেলেছে তার নীচু মানের ছবি। তাই ভাবমূর্তি বদলাতে বলিউড থেকে, অভিনয় থেকে এক সময় নিজেকে সরিয়ে নিতে বাধ্য হন তিনি।

এম এউ, ১৯ জুন

Back to top button